| বাংলার জন্য ক্লিক করুন
   * রাম নাথ কোভিন্দকে শেখ হাসিনার অভিনন্দন   * টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে : স্পিকার   * বিএনপির লন্ডন মার্কা সহায়ক সরকার জনগণ মানবে না : ওবায়দুল কাদের   * শিগগিরই বিচারকদের শৃঙ্খলা বিধির গেজেট: আইনমন্ত্রী   * নির্বাচন কমিশনের সচিব পরিবর্তন   * সরকার মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে চায় : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী   * চিকুনগুনিয়া রোগীর বাড়ি গিয়ে চিকিৎসা দেবে ঢাকা দক্ষিণ সিটি   * ‘আকাশ সংস্কৃতিতে যা ক্ষতিকর তা বর্জন করুন’   * সবার সহযো‌গিতায় দুর্যোগ মোকা‌বিলা : ত্রাণমন্ত্রী   * চিকিৎসার জন্য ভারতে যাচ্ছেন আল্লামা শফী  
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|

   বিশেষ খবর -
                                                                                                                                                                                                                                                                                                                                 
পুরস্কার পেলেন সেই কনস্টেবল

অনলাইন ডেস্ক :

কুমিল্লায় ডোবায় পড়ে যাওয়া যাত্রীবাহী বাসের ২০-২২ জন যাত্রীকে উদ্ধার করায় পুলিশ কনস্টেবল মো. পারভেজ মিয়াকে পুরস্কৃত করল পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স। অসীম সাহসিকতা ও মানবসেবার স্বীকৃতি হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশ প্রধান (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক নিজেই পারভেজের হাতে তুলে দেন নগদ এক লাখ টাকা, ক্রেস্ট এবং ১২৫ সিসির একটি মোটরসাইকেল।

পুলিশ সদর দপ্তরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে রোববার এ তথ্য জানানো হয়েছে।

মহতী কাজের জন্য পারভেজ মিয়াকে ধন্যবাদ জানান পুলিশ মহাপরিদর্শক। তিনি জনসেবায় এগিয়ে আসতে অন্য পুলিশ সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানান।

পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন) মো. মোখলেসুর রহমান, ডিআইজি (মিডিয়া অ্যান্ড প্ল্যানিং) মো. মহসিন হোসেনসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ৭ জুলাই শুক্রবার সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দাউদকান্দির গৌরীপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ঢাকা থেকে চাঁদপুরগামী একটি যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ডোবায় পড়ে যায়। এ সময় কুমিল্লার দাউদকান্দি হাইওয়ে থানায় কর্মরত কনস্টবল পারভেজ মিয়া জীবন বাজি রেখে বাসের জানালার কাঁচ ভেঙে ২৬ জন যাত্রী উদ্ধার করেন।

পুরস্কার পেলেন সেই কনস্টেবল
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

কুমিল্লায় ডোবায় পড়ে যাওয়া যাত্রীবাহী বাসের ২০-২২ জন যাত্রীকে উদ্ধার করায় পুলিশ কনস্টেবল মো. পারভেজ মিয়াকে পুরস্কৃত করল পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স। অসীম সাহসিকতা ও মানবসেবার স্বীকৃতি হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশ প্রধান (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক নিজেই পারভেজের হাতে তুলে দেন নগদ এক লাখ টাকা, ক্রেস্ট এবং ১২৫ সিসির একটি মোটরসাইকেল।

পুলিশ সদর দপ্তরের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে রোববার এ তথ্য জানানো হয়েছে।

মহতী কাজের জন্য পারভেজ মিয়াকে ধন্যবাদ জানান পুলিশ মহাপরিদর্শক। তিনি জনসেবায় এগিয়ে আসতে অন্য পুলিশ সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানান।

পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন) মো. মোখলেসুর রহমান, ডিআইজি (মিডিয়া অ্যান্ড প্ল্যানিং) মো. মহসিন হোসেনসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ৭ জুলাই শুক্রবার সকালে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দাউদকান্দির গৌরীপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় ঢাকা থেকে চাঁদপুরগামী একটি যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ডোবায় পড়ে যায়। এ সময় কুমিল্লার দাউদকান্দি হাইওয়ে থানায় কর্মরত কনস্টবল পারভেজ মিয়া জীবন বাজি রেখে বাসের জানালার কাঁচ ভেঙে ২৬ জন যাত্রী উদ্ধার করেন।

চেয়ারম্যানের খাল ভরা আবর্জনায় ॥ বিষাক্ত ময়লা পানিতে ডুবে আছে কুতুবপুরের বেশিরভাগ অঞ্চল
                                  

 নিজস্ব সংবাদদাতা:

নারায়ন গঞ্জের কুতুবপুর ইউনিয়নের বেশিরভাগ এলাকা তলিয়ে গেছে শহরের বিষাক্ত ময়লা পানিতে। উক্ত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ মনিরুল আলম সেন্টু নির্বাচনের আগে তার এলাকার খালগুলো পরিষ্কার করে এধরনের সমস্যা লাঘবের প্রতিশ্রতি দিলেও শেষ পর্যন্ত খালগুলো ভয়াবহ আবর্জনা, কচুরিপানা সহ নানাভাবে ভরে আছে। ফলে ঢাকা শহর থেকে বৃষ্টির পানির সাথে বহমান নোংরা পানির ধারা খাল দিয়ে যেতে না পেরে প্লাবিত হয়ে ঢুকে পড়ছে সাধারণ মানুষের ঘরের ভেতর। রাস্তা ঘাট তলিয়ে গিয়ে নোংরা পানির বন্যার কবলে পড়েছে বেশিরভাগ এলাকা।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, রায়ের বাগের পর থেকে মুন্সীবাগ, শহীদ নগর, আদর্শনগর, নুরবাগ, তুষার ধারা, গিরিধারা সহ কুতুবপুরের উত্তরাঞ্চালের প্রায় সব এলাকা রীতিমত ডুবে গেছে। এলাকা এমনিতে খনাখন্দে ভরা রাস্তাঘাট মৃত্যু ফাঁদ। এর উপর এধরনের নোংরা পানির বন্যায় সাধারণ জীবন যাত্রা বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। পানিবন্দী লোকজন এলাকার জনপ্রতিনিধিদের সুদৃষ্টির দিকে তাকিয়ে রয়েছে।
ডিএনডির ভেতর এই এলাকার পানি নিষ্কাশনের জন্য একাধীক স্থানে পাম্পের ব্যবস্থা থাকলেও খাল ভরাট থাকার কারণে দ্রুত এবং স্বাভাবিক ধারায় সেখানে পানি যেতে পারছেনা। এসব দুর্যোগ কবলিত এলাকার লোকজন জানিয়েছে, কোনো সমস্যা বা দুর্যোগ কালে জনপ্রতিনিধি চেয়ারম্যান এসব এলাকায় আসেন না এবং খোঁজ রাখেন না। চেয়ারম্যানের কাছে সমস্যা নিয়ে গেলে তিনি এমপির দায় দিয়ে নিজের দায় এড়িয়ে চলেন। সাধারণ লোকজন আরো জানিয়েছে, বর্তমান চেয়ারম্যান বিএনপির সমর্থক হবার কারণে এবং এমপি আওয়ামী লীগের মনোনীত হবার জন্য এলাকার উন্নয়ন প্রশ্ন নিয়ে চলছে হযবরল গ্যাড়াকল। সাধারণ জনগনের ভাষ্যমতে, সংশ্লিষ্ঠ এলাকার লোকজন যত দুর্যোগে থাকুক দায় এসে পড়ে আওয়ামী লীগের উপর। এসব দোষারোপের ইঙ্গিতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের উন্নয়নমূলক প্রচেষ্টা মারপ্যাচে স্থবীর হয়ে যায় বলেও জানিয়েছেন সচেতন ব্যাক্তিবর্গ। প্রঙ্গটি নিয়ে সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম রসুলের কাছে জানতে চাওয়া হলে ও তিনি এ নিয়ে মন্তব্য করা প্রয়োজন মনে করেননি। জলবদ্ধতা এবং খাল ভরাট প্রসঙ্গ নিয়ে আলহাজ মনিরুল আলম সেন্টুর সাথে কথা বললে তিনি জানান, ডিএনডি এলাকার উন্নয়নে সরকারের প্রায় পাঁচশত কোটি টাকা বাজেট বরাদ্দ হয়েছে। আর ডিএনডি বাধের ভেতর এসব খাল পরিস্কার সহ অন্যান্য উন্নয়ন কর্মকান্ডে সেনাবাহিনীর নিয়োজিত হবে। ইতোমধ্যে কাজ শুরু হবার কথা। এসব ক্ষেত্রে আমার আর কোনো হাত নেই।

২০ রোজার মধ্যে গার্মেন্ট শ্রমিকদের পাওনা দাবী
                                  

ডেস্ক রিপোর্ট: ২০ রোজার মধ্যে গার্মেন্ট শ্রমিকদের ১ মাসের সম পরিমান ঈদ বোনাস ও বকেয়া বেতন-ভাতাসহ জুন মাসের পূর্ণ বেতন প্রদান এবং বাজেটে গামের্›ট শ্রমিকদের রেশনিং, বাসস্থান ও চিকিৎসার জন্য আলাদা বরাদ্দ রাখার দাবীতে গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের উদ্যোগে মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। কাচপুর শাখার উদ্যোগে কাচপুর চৌরাস্তায় বিকালে অনুষ্ঠিত এ মানব বন্ধনে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের আঞ্চলিক শাখার নেতা শফিকুল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির সভাপতি এম এ শাহীন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন, জেলা কমিটির সিনিয়র নেতা দুলাল সাহা, জেলা সহ সভাপতি আব্দুস সালাম বাবুল, সহ সম্পাদক দীলীপ দাস, আঞ্চলিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ জামাল হোসেন, জেলা নেতা মোঃ মুস্তাকিন, দাউদ হোসেন প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন- ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষ্যে শ্রমিকদের কাংখিত ঈদ বোনাস ও বকেয়া বেতন-ভাতাসহ জুন মাসের পূর্ণ বেতন প্রদান করতে হবে। কোন কোন মালিক শ্রমিকদের বেতন-ভাতা নিয়ে সারা বছর নানা রকম টাল বাহানা করে। মাসের পর মাস তাদেও বেতন-ভাতা বকেয়া রাখে। ঈদ মুহুর্তে এসে শ্রমিকদের বেতন-বোনাস থেকে বঞ্চি কওে চরম দূর্ভোগে ফেলে দেয়। অন্যদিকে শিল্পে অস্থিতিশীন পরিস্থিতি সৃষ্টি করে। তাই ঈদের পূর্বে ২০ রোজার মধ্যেই শ্রমিকদের বেতন-বোনাস পরিশোধ করতে হবে। কারণ সময়মত শ্রমিকরা টাকা না পেলে বাগী ফেরার জন্য গাড়ীর অগ্রিম টিকিট বুকিং করা বা একটা নতুন কাপড় কেনা, হাট-বাজার করা সম্ভব হয়না। সুতরাং বেতন-বোনাস নিয়ে কোন গড়িমসী সহ্য করা হবে না। শ্রমিকদেও বেতন-বোনাস প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে সররকার ও মালিকদের আগেই প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহন করতে হবে। অন্যথায় বেতন-বোনাস নিয়ে কোন অস্থিতিশীন পরিস্থিতি সৃষ্টি হলে এর জন্য সরকার এবং মালিকরাই দায়ী থাকবে। নেতৃবৃন্দ আরও বলেন- মন্ত্রী, এমপি, সরকারী -বেসরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ ১ মাসের বেতনের সমপরিমান ঈদ বোনাস পায় কিন্তু দেশের অর্থনীতির মুল চালিকা শক্তি গার্মেন্ট শ্রমিকদের একই হারে বোনাস দেওয়া হয় না। অধিকাংশ কারখানার মালিক নিজের ইচ্ছেমত নামমাত্র বোনাস দিয়ে থাকে। নেতৃবৃন্দ যথা সময়ে গার্মেন্টস শ্রমিকসহ অপরাপর সকল শ্রমিকদের ১ মাসের বেতনের সমপরিমান বোনাস ও বকেয়া পাওনাসহ জুন মাসের পূর্ণ বেতন প্রদানের আহব্বান জানান।
তারা আরও বলেন বাজেটে শ্রমিকদের রেশনিং, বাসস্থান ও চিকিৎসার জন্য আলাদা বরাদ্দ দেওয়ার দাবী জানানো হলেও সরকার তা বিবেচনায় নেয়নি। প্রস্তাবিত বাজেটে শ্রমিকদের দুঃখ-কষ্ট লাঘব ও তাদের জীবনমান উন্নয়নে কো ছোয়া লাগার কোন সম্ভাবনা নেই। এই বাজেটে ধনবৈষম্য ও শ্রেনীবৈষম্য বৃদ্ধি পাবে। জাতীর অর্থনৈতিক, সামাজিক, রাজনৈতিক পরিমন্ডলে নৈরাজ্য, অস্থিতিশীলতা ও নাজুকতা বাড়িয়ে তুলবে। তাই নেতৃবৃন্দ গরীব মারার প্রস্তাবিত বাজেট প্রত্যাখান করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ধারায় দরিদ্র জনগনের স্বার্থ প্রতিষ্ঠা ও আতœনির্ভরশীলতার ধারয় বাজেট প্রনয়নের জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবী জানান।

 

শামীম ওসমানের এলাকা কুতুবপুর আদর্শনগরে গৃহবন্দী লাখ লাখ মানুষ ॥ বছরের পর বছর চলাচলের রাস্তা বড় খনাখন্দ খালে পরিণত হয়ে আছে
                                  

নিজস্ব সংবাদদাতা:

নারায়নগঞ্জের এমপি শামীম ওসমানের এলাকা কুতুবপুর ইউনিয়নের আদর্শনগর থেকে নুরবাগ পর্যন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার রাস্তা দীর্ঘ দিন মেরামতের অভাবে বড়বড় গর্ত, খনাখন্দ খালে পরিণত হয়ে আছে। চরম জনদুর্ভোগে পড়ে সাধারণ জনগণ এক রকম গৃহবন্দী হয়ে রয়েছে।
আদর্শনগর টেম্পু স্ট্যান্ড থেকে আহসান উদ্দিন হাই স্কুল হয়ে নুরবাগ সিএনজি স্ট্যান্ড পর্যন্ত চলাচলের একমাত্র রাস্তাটি বছরের পর বছর নির্মাণ না হবার কারণে লাখ লাখ লোক কঠিন পনিস্থিতির মধ্যে পড়েছে। রাস্তার ভয়াবহ অবস্থার জন্য লোকজন স্বাভাবিকভাবে হেঁটে চলাচল করতে পারছে না আবার সাধারণ যানবাহনও চলাচল করতে পারছেনা। বেশিরভাগ রাস্তা মৃত্যুফাঁদ গর্ত এবং কিছু অংশ নৌকা চলার অবস্থায় পরিণত হয়েছে। ভরা চৈত্রেও এই এলাকার এই রাস্তা এমন চলাচলের অযোগ্য হয়ে থাকে। রিক্সা ভ্যান, বেবী ট্যাক্সী বা ট্রাক মাঝে মধ্যে চলার চেস্টা করলেও ঘটছে দুর্ঘটনা।
শুধু তাই নয় আদর্শনগর টু নুরবাগ রাস্তার মধ্যে বড়বড় গর্তের ভেতর থেকে গ্যাস পাইপ ফেটে ব্যাপকভাবে বের হচ্ছে গ্যাসের বুদবুদ। পানির পাইপ ফেটে পানি বের হচ্ছে আবার ময়লা পানি ঢুকে যাচ্ছে রাস্তার মধ্যে পানির পাইপ দিয়ে। একটু ভারী বৃষ্টি হলে রাস্তার খনাখন্দ খাল হয়ে ময়লা পানি গলি রাস্তা দিয়ে ঢুকে যাচ্ছে বাড়ীর ভেতর। রাস্তাঘাটের এমন করুন দশা হবার কারণে ভাড়াটিয়ারা এলাকা ছাড়ছেন এবং এলাকাটি দুর্যোকপূর্ণ নিম্নমানের এলাকায় পরিণত হয়েছে। নতুন করে বাড়ী করতে কেউ আসতে চাচ্ছেনা এবং যারা বাড়ীঘর বানিয়ে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন তারাই সবচেয়ে বিপদজনক পরিস্থিতির মধ্যে পড়েছেন।
আদর্শনগর থেকে নুরবাগ পর্যন্ত রাস্তার পাশে রয়েছে আহসানউদ্দিন হাই স্কুল, সিকেন্দার আলী ল্যাবরেটরী স্কুল, ওয়েসকরণী আদর্শ হাই স্কুল সহ বেশ ক’টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মসজিদ, মাদ্রাসা। রাস্তার এই করুণ দশা হবার কারণে এসব প্রতিষ্ঠানে যাওয়াটা সবার জন্য দুর্গম হয়ে পড়ছে এবং প্রতিনিয়ত রাস্তায় দূর্ঘটনার শিকার হতে হচ্ছে তাদের। শুধু তাই নয় এসব এলাকায় বাইরের কোনো মেহমান, ভিক্ষুক, ফেরিওয়ালা এসে যেমন এই এলাকার মানুষের কষ্ট দেখে আফসোস করছেন একই সাথে এখানের প্রশাসনিক ও রাজনীতিক অভিভাবকদের গালিগালাজ, অভিশাপ দিয়ে যাচ্ছেন তারা। শুধু তাই নয়, এখান থেকে মাতুয়াইল শিশু মাতৃসদনে মা ও শিশু রোগিরা যেতে ভয়াবহ আযাবের কবলে পড়তে হচ্ছে। ডেলিভারী রোগীদের হাসপাতাল পর্যন্ত যাবার আগেই ডেলিভারী হবার উপক্রম হচ্ছে। রোগীরা যত কষ্ট পাচ্ছেন রোগের কারণে তার চেয়ে বেশি কষ্ট পাচ্ছেন রাস্তায়।
বিষয়টি নিয়ে কুতুবপুর ইউপি চেয়ারম্যানের সাথে কথা বললে তিনি জানিয়েছেন রাস্তাটি এলজিইডির আওতায়। এমপি শামীম ওসমানের সাথে তার মোবাইলে যোগাযোগ করলে করলে ও তাঁর সাথে কথা বলা যায়নি। তবে এমপি শামীম ওসমানের ঘনিষ্ঠ কয়েকজন জানিয়েছেন বাজেটের সীমাবদ্ধতার জন্য রোডটি সংস্কার করা যাচ্ছে না।

 

শ্রীপুরে এপার ওপার বাংলার সংগীত শিল্পীদের সুরে ভেসেছে রবীন্দ্র-নজরুল-অতুল সেন
                                  

রাতুল মন্ডল, শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:
দুই বাংলার শিল্পীদের অংশগ্রহনে গাজীপুরের শ্রীপুরে তিন মহাসাহিত্যিককে স্মরণ করা হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে আলোচনাসভা ও সাংষ্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়েছে।
মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে নবারুন ক্লাব অনুষ্ঠানের আয়োজনে আলোচনা সভা ও সন্ধ্যা থেকে রাত পৌনে ১০টা পর্যন্ত দুই বাংলার জনপ্রিয় সংগীত শিল্পীরা এখানে গান পরিবেশেন করেন।
বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম ও বাংলা সাহিত্যের অন্যতম প্রতিভা অতুল প্রসাদ সেন স্মরণে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মাননীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এ্যাডভোকেট মোঃ রহমত আলী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেহেনো আকতার, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম মন্ডল (বুলবুল), শ্রীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান প্রমূখ
নবারুন ক্লাবের সভাপতি শেখ মো: নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও নজরুল সঙ্গীত শিল্পী ফেরদৌস আরার পরিচালনায় অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন ভারতের বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী মিতালী ব্যানার্জী, বাচিক শিল্পী রবীন্দ্রনাথ মুখার্জী, বাচিক শিল্পী বিশ্বজিৎ ব্যানার্জী, সাইকা ইসলাম, রিদম, রাকিন প্রমুখ।




আজ মুক্ত গণমাধ্যম দিবস: মুক্ত নয় গণমাধ্যম
                                  

আজ মুক্ত গণমাধ্যম দিবস: মুক্ত নয় গণমাধ্যম

নিজেস্ব প্রতিবেদক:

 
 
মুক্ত গণমাধ্যম দিবস

করপোরেট সাংবাদিকতা, বিজ্ঞাপন, কর্তৃপক্ষের স্বার্থরক্ষার সাংবাদিকতার বাইরে মুক্ত সাংবাদিকতার অঙ্গীকার ধরে রাখার প্রচেষ্টায় বুধবার (৩ মে) বিশ্বব্যাপী পালন করা হবে বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস। এবারের প্রতিপাদ্য ‘ক্রান্তিকালে সমালোচকের দৃষ্টি: শান্তিপূর্ণ, ন্যায়নিষ্ঠ ও অন্তর্ভুক্তিমূলক সমাজ প্রতিষ্ঠায় গণমাধ্যমের ভূমিকা’।

১৯৯১ সালে ইউনেস্কোর ২৬তম সাধারণ অধিবেশনের সুপারিশে জাতিসংঘ ১৯৯৩ সাল থেকে এ দিবস পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। সাংবাদিকতার স্বাধীনতা ও মুক্ত গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠার মৌলিক নীতিমালা অনুসরণ, পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে ক্ষতিগ্রস্ত ও জীবনদানকারী সাংবাদিকদের স্মরণ ও তাদের স্মৃতির প্রতি সম্মান ও শ্রদ্ধাজ্ঞাপনের মধ্য দিয়ে সাংবাদিক সংগঠনগুলো দিবসটি পালন করলেও গণমাধ্যম কতটা মুক্ত তা নিয়ে ওঠা প্রশ্নের সমাধান হয়নি আজও। গণমাধ্যম বিশ্লেষকরা বলছেন, গণমাধ্যমের স্বাধীনতা বাস্তবায়ন এখনকার সময়ে আর পুরোটা সম্ভব নয়।’

প্রসঙ্গত, রামপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ বন্ধের দাবিতে গত ২৬ জানুয়ারি হরতাল চলাকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় পিকেটারদের সঙ্গে পুলিশের দফায় দফায় সংঘর্ষ হয়। ওই ঘটনার সংবাদ সংগ্রহে থাকা এটিএন নিউজের প্রতিবেদক এহসান বিন দিদার ও ক্যামেরা পারসন আব্দুল আলীমকে দুপুরের দিকে শাহবাগ থানার ভেতরে নিয়ে মারধর করে পুলিশ। কেবল এ ঘটনাই নয়, সাম্প্রতিক সময়ে একুশে টেলিভিশনের সাংবাদিক নাজমুলকে আটক করে একের পর এক মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়।

মানবাধিকার প্রতিষ্ঠান আর্টিকেল-১৯-এর ‘ফ্রিডম অব এক্সপ্রেশন ইন বাংলাদেশ-২০১৪’ শীর্ষক এ প্রতিবেদনে ২০১৪ সালের জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত তথ্যে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে রাষ্ট্রযন্ত্রের মাধ্যমে সাংবাদিকদের ওপর নির্যাতন, হয়রানি ও আক্রমণ আশঙ্কাজনকভাবে বেড়েছে। ২০১৩ সালে বাংলাদেশে রাষ্ট্রযন্ত্রের মাধ্যমে সাংবাদিক নির্যাতনের হার ছিল ১২ দশমিক ৫ শতাংশ। এক বছরের ব্যবধানে ২০১৪ সালে এই হার হয়েছে ৩৩ দশমিক ৬৯ শতাংশ। এর প্রায় ২৩ শতাংশ নির্যাতনই হয়েছে পুলিশ, র্যা ব ও গোয়েন্দাদের হাতে।

এদিকে বিশ্ব মুক্ত গণমাধ্যম দিবস পালন উপলক্ষে বাংলাদেশেও বিভিন্ন সংগঠন পৃথকভাবে কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। বাংলাদেশে এমন এক সময়ে এবার মুক্ত গণমাধ্যম দিবস পালিত হচ্ছে যখন তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারার শঙ্কায় কী লেখা যাবে আর কী লেখা যাবে না তা সমাধান হয়নি। নতুন এই আইনটি অনলাইন সাংবাদিকতার জন্য কতটা হুমকি বা কতটা নিরাপদ সেই আলাপের মধ্যে সময় কাটছে। অভিযোগ আছে সাংবাদিক সংগঠনগুলোর প্রতিও।

যদিও তথ্য মন্ত্রণালয়ের হিসাব বলছে, সার্বিকভাবে গত আট বছরে তথ্য মন্ত্রণালয়ের সুবিশাল কর্মযজ্ঞে দেশে গণমাধ্যমের অভূতপূর্ব বিকাশ ঘটেছে এবং অবাধ তথ্যপ্রবাহের নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হয়েছে। পিআইডি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, গণমাধ্যমের উন্নয়নে এ সময়ে নতুন ১৬৪৭টি পত্রিকা নিবন্ধিত হয়েছে; বেসরকারি খাতে নতুন ৩৬টি স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেলের অনুমোদনসহ ২৪টি এফএম রেডিও এবং ৩২টি কমিউনিটি রেডিওকে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

বর্তমানে দৈনিক, সাপ্তাহিক, পাক্ষিক, মাসিক, ত্রৈমাসিক ও ষান্মাষিক মিলে মোট পত্রিকার সংখ্যা ২৮৫৫টি। বাংলাদেশ টেলিভিশন, বিটিভি ওয়ার্ল্ড, সংসদ বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বাংলাদেশ টেলিভিশন চট্টগ্রাম কেন্দ্র নিয়ে সরকারি ৪টি ও অনুমোদনপ্রাপ্ত ৪৪টি বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশন চ্যানেলের মধ্যে ২৬টি সম্প্রচাররত; পাশাপাশি সম্প্রচারিত হচ্ছে ২১টি এফএম রেডিও ও ১৭টি কমিউনিটি রেডিও। এছাড়া সংবাদপত্রকে ঘোষণা করা হয়েছে শিল্প হিসেবে।

তথ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা মীর আকরাম উদ্দীন আহম্মদ পিআইডি প্রতিবেদনের মাধ্যমে বলেন, ‘দেশের উন্নয়নকে টেকসই, গতিশীল ও অংশগ্রহণমূলক করতে অবাধ তথ্যপ্রবাহের কোনও বিকল্প নেই। বর্তমান সরকারের এই অন্যতম মূলমন্ত্র বাস্তবায়নে কাজ করছে তথ্য মন্ত্রণালয়। উন্নয়নে জনগণের অংশগ্রহণ এবং প্রয়োজনীয় তথ্য পাওয়ার অধিকার নিশ্চিত করার পাশাপাশি দেশের গণমাধ্যমকে শক্তিশালী করার দৃঢ় প্রত্যয় সেই কাজেরই অংশ।’

সরকারকেই স্বাধীন গণমাধ্যম তৈরির পরিবেশ গড়ে তুলতে হবে বলে মনে করেন ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশের (টিআইবি) নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান। তার মতে, এটা সরকারের দায়িত্ব। কারণ এর কাঠামোগত ক্ষমতা সরকারের কাছেই আছে। মঙ্গলবার (২ মে) টিআইবি’র মেঘমালা সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত ‘এসডিজি-১৬ ও সুশাসন: সরকার, গণমাধ্যম ও জনগণ’ শীর্ষক এক সংলাপে তিনি এ মন্তব্য করেন।

টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক বলেন, ‘গণমাধ্যম আগের তুলনায় এখন অনেক বেশি চাপের সম্মুখীন হচ্ছে। আইনি, প্রাতিষ্ঠানিক-অপ্রাতিষ্ঠানিক, দৃশ্যমান-অদৃশ্যমান কাঠামো তৈরি করা আছে যেখানে গণমাধ্যমের ওপর ক্রমাগতভাবে চাপ বাড়ছে। এটা নিঃসন্দেহে গণমাধ্যমে স্বাধীনতা বিকাশের অন্তরায়। এই চাপের কারণে অনেকের মাঝে স্ব-আরোপিত সেন্সরশিপ বিরাজ করছে। সুষ্ঠু সাংবাদিকতা করার চেষ্টা রয়েছে এমন অনেকের মধ্যেও এর প্রভাব দেখা যায়।’

এদিকে করপোরেট যুগে সাংবাদিকতা কতটা মুক্ত, এমন প্রশ্নের উত্তরে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের (ডিইউজে) সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘বাংলাদেশের গণমাধ্যম এখন তুলনামুলক মুক্ত। তবে পরিপূর্ণ মুক্ত হতে পারেনি। সংকটের জায়গা হলো, গণমাধ্যম মুক্ত নয়। এর কারণ বিভিন্ন গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রির হাতে গণমাধ্যমের চলে যাওয়া। মিডিয়া প্রতিষ্ঠানের কর্মকাণ্ড স্বাধীন হতে হবে যেমন, তেমনই যারা গণমাধ্যমের সঙ্গে আছে তাদের পেশা ও জীবনের নিরাপত্তা থাকতে হবে যা এখনও অর্জিত হয়নি।’

রাবি উপাচার্যের সঙ্গে ব্রিটিশ কাউন্সিলর পরিচালকের সৌজন্য সাক্ষাৎ
                                  

রাজশাহী প্রতিনিধি:

ঢাকাস্থ ব্রিটিশ কাউন্সিলের কান্ট্রি ডিরেক্টর বারবারা উইকহ্যামের রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) উপাচার্য অধ্যাপক মুহম্মদ মিজানউদ্দিনের সৌজন্য সঙ্গে সাক্ষাৎ ও  মতবিনিময় করেছেন। সোমবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তরের পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা কার্যক্রম বিশেষ করে ইংরেজি ভাষার শিক্ষাব্যবস্থা, এর উন্নয়ন ও প্রসার সম্পর্কে আলোচনা করেন। আলোচনাকালে উপাচার্য রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের ইংরেজি  ভাষা শিক্ষা ও এর ব্যবহারে দক্ষতার উন্নয়নে ব্রিটিশ কাউন্সিলের সহযোগিতা প্রত্যাশা করলে বারবারা উইকহ্যাম সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

এসময় অন্যদের মধ্যে রাবি ইনস্টিটিউট অব ইংলিশ এন্ড আদার ল্যাঙ্গুয়েজের পরিচালক অধ্যাপক মো. আতর আলী, ইংরেজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আব্দুল্লাহ আল মামুন, সেন্টার অব এক্সেলেন্স ইন টিচিং এন্ড লার্নিং-এর পরিচালক অধ্যাপক বিশ্বজিৎ চন্দ, জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক মো. মশিহুর রহমান, ঢাকাস্থ ব্রিটিশ কাউন্সিল টিচিং সেন্টারের ম্যানেজার জেমি মান, লাইব্রেরি ম্যানেজার সারওয়াত রেজা ও বিজনেস ডেভেলপমেন্ট কো-অর্ডিনেটর নাবিলা রহমান উপস্থিত ছিলেন

বিদ্যুৎ বিভাগ দখলে নিতে বেপরোয়া দুই বিএনপি নেতার প্রতিষ্ঠান
                                  

বিশেষ সংবাদদাতা: পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের ১৭০ কোটি টাকার দরপত্র পাওয়ার পরও কাজ না করার স্দ্ধিান্ত নিয়েছে এস কিউ ও বিএন্ডটি নামক দুটি প্রতিষ্ঠান। জানা গেছে, এই প্রতিষ্ঠান দুটির মালিক দুই বিএনপির প্রভাবশালী নেতা। গত ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৬ তারিখে আরইবি’র প্রজেক্ট ২.৫ এর জন্য যৌথ টেন্ডারে সবনি¤œ হয়। এখন ছয় মাস পরে এসে আরইবি কর্তৃপক্ষ তাদেরকে কাজে বিশেষ সুযোগ দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

জানা গেছে, এস কিউ ও বিএন্ডটি নামক দুটি প্রতিষ্ঠান নানা সময়ে দরপত্রে অনিয়ম করে আসছে। বিতর্কিত প্রতিষ্ঠান দুটি বিদ্যুৎ বিভাগে ব্যবসা শুরু করে হাওয়া ভবনের খাম্বা বাণিজ্যের সময়। তাছাড়া উল্লেখিত দুটি প্রতিষ্ঠানের প্রয়োজনীয় জনবল এবং যন্ত্রাংশও নেই। ফলে সরকারের সম্প্রসারিত ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ প্রকল্প ব্যাহত হচ্ছে।
বিএন্ডটি কেবলের মালিক মোকলেসুর রহমান, দর্শনা সীমান্ত এলাকায় যার সকল প্রতিষ্ঠান। যিনি ২০০২ সাল থেকে খাম্বা বাণিজ্যের সাথে সম্পৃক্ত। ২০০৪ সালে বিএনপির গিয়াস আল মামুনের সাথে যোগসাজসে হাওয়া ভবন কানেকশনের মাধ্যমে অবাধে টেন্ডারবাজী করে শতশত কোটি টাকার মালিক হয়েছেন। তিনি বর্তমানে একটি প্রাইভেট ব্যাংকের পরিচালক। তিনি মুলত একজন প্রকৈাশলী, সেই সুবাদে আরইবি ও পিডিবির প্রকৈাশলীদের সাথে সম্পর্ক করে অবৈধ ভাবে বিভিন্ন টেন্ডারের কাজ বাগিয়ে নিচ্ছে। বিএনপি পন্থি একজন লোক আজ বিদ্যুৎ বিভাগে একক আধিপত্ব কায়েম করছে। তার বনানী অফিসেই নাকি টেন্ডারের কাজ ভাগ করে দেন সিন্ডিকেটের সদস্যদের মাঝে। তার সকল টেন্ডারের বিষয় আজ প্রশ্ন বিদ্ধ, তাই এগুলো তদন্তের প্রয়োজন।
এছাড়া এস কিউ ও বিএন্ডটি নামক প্রতিষ্ঠান দুটি পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন সিস্টেম ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট (পিডিএসডিপি)-৬ এর দরপত্র নিয়ে ব্যাপক অনিয়ম করেছে মর্মে অভিযোগ উঠেছে। জানা গেছে, পিডিএসডিপি দরদাতা প্রতিষ্ঠান শর্তপূরণহীন কোম্পানীকেই অনুমোদন দিচ্ছে। এ নিয়ে সম্প্রতি বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ে দেন দরবার হয়। বিদ্যুৎ বিভাগে অভিযোগ আসে সর্বনিম্ন দরদাতাকে না দিয়ে প্রায় সাড়ে সাত কোটি টাকা বেশি দরদাতা প্রতিষ্ঠানকে কার্যাদেশ দিচ্ছে আরইবি। পিডিএসডিপি সিলেট ডিভিশনের জন্য গত ২০ নভেম্বর ২০১৬ দরপত্র আহবান করে, যার দরপত্র নং পিডিএসডিপি/এসডি/২০১৬-১৭, দরপত্র প্যাকেজ নং জিডি-৬ এবং প্যাকেজ-৪২ এর লট নং-১ও ৩ তে এসিএসআর ডগ=৭৬০ কিঃমিঃ, এবং লট নং- ৪ তে এসিএসআর ওয়াসপ= ১৩৬০ কিঃমিঃ। অভিযোগে যে দুটি প্রতিষ্ঠান দর প্রদান করে তাদের দামের ব্যবধান সাড়ে সাত কোটি টাকা। কিন্তু বিদ্যুৎ বিভাগ কর্র্তৃক সর্বনিম্ন দরদাতা প্রতিষ্ঠানকে কার্যাদেশ না দিয়ে সর্বোচ্চ দরদাতা এসকিউ ওয়ারস এন্ড কেবল লিঃ কে কাজ দিয়েছেন। জানা গেছে, টিসি কমিটির সিদ্ধান্ত দুইবার বাতিল করে প্রভাবশালী মহলের চাপে পিডিএসডিপি তাদেরকে কাজ দিয়েছে, যা সম্পূর্ণ বেআইনী।
একই বিড ডকুমেন্টের দরপত্র প্যাকেজ নং জিডি-৬ এবং প্যাকেজ-৪৩। মোট ৪টি লটের প্রতিটি লটে এএসি এন্ট কনডাক্টর পরিমাণ ১১৩০ কিলোমিটার। এখানে প্রত্যেকটি লটের সর্বনিন্ম দরদাতা বিবিএস কেবলকে কার্যাদেশ দেয়া হয়েছে। এই দরপত্রটির অংশগ্রহনের জন্য কিছু অত্যাবশ্যকীয় শর্ত এবং ডকুমেন্টের রিকোয়ারমেন্ট ছিল, যার কোনটিই এই প্রতিষ্ঠানের ছিল না অথচ ডিপিএসডিপি’র বিবিএস কেবলসকে কার্যাদেশ প্রদান করে।
আরইবি এর দরপত্র প্যাকেজ নং- ২.৫ এমসিসি-জি-২ এন্ড সাব প্যাকেজ নং- ২.৫ এমসিসি-জি-২ -০০১, এবং সাব প্যাকেজ নং- ২.৫ এমসিসি-জি-২ -০০২, সাব প্যাকেজ নং- ২.৫ এমসিসি-জি-২ -০০৩ ও সাব প্যাকেজ নং- ২.৫ এমসিসি-জি-২ -০০৪ এ উল্লেখিত দরপত্রের মালামাল উক্ত যৌথ কোম্পানীকে দেয়ার পাঁয়তারা চলছে। উক্ত দরপত্র অংশগ্রহণ করতে হলে যে সমস্ত যোগ্যতা তদসঙ্গে কাগজপত্র ও নিয়মকানুন থাকার প্রয়োজন তা বি এন্ড টি কেবলস ও এসকিউ ওয়্যার কেবলস এর নাই বলে প্রতীমান হয়। কারণ উল্লেখিত দুটি কোম্পানীর কারখানার উৎপাদন ক্ষমতা, কাঁচামাল ও কেবলস তৈরীর জনবল ও স্থান শর্ত পূরণ করার মত যথেস্ট নয়। যৌথ দরপত্রে দেখা উল্লেখিত মালামালের মূল্য ১৭০ কোটি টাকা দরপত্র খোলার তারিখ ছিল ২০.০৯.২০১৬ প্রায় ৫মাস অতিবাহিত হলেও পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডে ২.৫এমসিসিপি প্রজেক্টের সংম্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ এই অংকের দরপত্রটি এখন পর্যন্ত বিদুৎ মন্ত্রণালয়ে পাঠাননি বলে জানা যায়।
আরইবি ২.৫ এমসিসিপি প্রজেক্টের এই দরপত্রে অংশ গ্রহন করতে যে যোগ্যতা থাকা প্রয়োজন- বার্ষিক বিক্রি-লট-১ ৩৬ কোটি টাকা, লট-২ ৩৬ কোটি টাকা ও লট-৩ ৩৬ কোটি টাকা মোট ১০৮কোটি । লিকুইড এ্যাসেট লট-১এ ২০ কোটি টাকা, লট-২ এ ২০ কোটি টাকা ও লট-৩এ ২০ কোটি টাকা মোট ৬০কোটি । জয়েন্ট ভেঞ্জারের ক্ষেত্রে প্রত্যেকর পার্টির কমপক্ষে ২৫% যোগ্যতা থাকতে হবে। সাপ্লাই রের্কড লট-১এ ২০ কোটি টাকা, লট-২ এ ২০ কোটি টাকা ও লট-৩এ ২০ কোটি টাকা মোট ৬০কোটি যে কোন দুইটি চুক্তি বিগত ৫ বছরের হতে হবে ও সাধারণ যোগ্যতা ৩ বছরের। উল্লেখ বি এন্ড টি কেবলস ও এসকিউ ওয়্যার কেবলস এর মালিক ২ জনই প্রভাবশালী নেতা আরইবির খামবা কেলেঙ্কারীর আমল থেকে টেন্ডার বাণিজ্য নিয়ন্ত্রণ করে আসছে এখন পর্যন্ত নামে-বেনামে পুরো বিদ্যুৎ সেক্টর নিয়ন্ত্রণ করে আসছে বলে সূত্র জানায়।
জানা গেছে, উল্লেখিত এসকিউ কেবলস লিমিটেড দীর্ঘদিন ধরে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতিতে জড়িত হওয়া সত্ত্বেও নানা অযুহাতে কাজ দেয়া হচ্ছে। এর নেপথ্যের কারণ হিসেবে জানা যায়, সরকার দলীয় এক এমপি এই প্রতিষ্ঠানে একটি বড় পদে রয়েছেন। ডিপিএসডিপি’র কোনো শর্তই পালন না করে নিয়মনীতি তোয়াক্কা না করে তিনি ক্ষমতা প্রয়োগের মাধ্যমে বিদ্যুতের বৃহৎ টেন্ডার ভাগিয়ে নিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

নবীনগরে এতিম শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরন
                                  

নবীনগর প্রতিনিধি:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে সুবিধা বঞ্চিত দুঃস্থ,অনাথ,অসহায় শিক্ষার্থীদের মাঝে দায়েমী ফাউন্ডেশ এর সমাজ কল্যান ও সামাজিক উন্নয়ন কর্মসূচীর আওতায় শিক্ষা উপকরণ বিতরন করা হয়। আন্তজার্তিক মাতৃভাষা দিবসে উপজেলার ইব্রাহিমপুর সুফিয়াবাদ শাহ্ সুফি সাইয়্যেদ আজমত উল্লাহ্(রাঃ) ফাজিল মাদ্রাসায় স্কুল ব্যাগ,কলম,পেনসিল,খাতা, স্ক্যাল,সাপনার, পেনসিল বক্্র ইত্যাদি শিক্ষা উকরণ মাদ্রাসার সকল ক্লাশের ছাত্র/ছাত্রীদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন দায়েমী ফউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক আতায়ে দায়েম মাহমুদ উল্লাহ্। সভাপতিত্ব করেন শাহ্ সুফি হযরত মাও: ফয়েজী মুহাম্মদী আহমদউল্লাহ্। বিশেষ অতিথি ছিলেন, চট্রগ্রাম সাতবাড়িয়া শাহ্ আমানত মাদ্রাসার অধ্যক্ষ হযরত মাও: মাহমুদুল হক, মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মুফতি এনামুল হক কুতুবী, দুপ্রক সভাপতি আবু কামাল খন্দকার, প্রেসক্লাব সভাপতি মাহাবুব আলম লিটন। বক্তব্য রাখেন, হযরত মাও: নূরুল ইসলাম, হযরত মাও: মাহমুদুল হক প্রমূখ । 

খিলগাঁয়ে চার বর্গফুট ফুটপাতের দাম ৫০হাজার টাকা ॥ ট্রাফিক ও লাইনম্যান অর্ন্তঃদ্বন্দ
                                  

কামরুজ্জামান মিল্টন:
রাজধানীর খিলগাঁও রেগেট সংলগ্ন ফুটপাতের তিন-চার বর্গফুঁট জায়গা নিয়ে ট্রাফিক পুলিশ ও ফুটপাতের কথিত লাইনম্যানের মধ্যে ফের অর্ন্তঃদ্বন্দ দেখা দিয়েছে বলে একটি সুত্র জানিয়েছে।
সুত্র আরো জানায়,খিলগাঁও গভঃ স্টাফ কোয়ার্টার সংলগ্ন দীর্ঘ ফুটপাতের পশ্চিম মাথার প্রায় এক মাস আগে পুলিশ বক্সটি হঠাৎ উধাও হয়ে যায়। এতে ট্রাফিকের সবুজবাগ জোনের মোক্তারুজ্জামান নামের জনৈক এসি (ট্রাফিক) সদ্য ওই খালি জায়গাঁয় একটি বক্স পূনঃস্থাপনের প্রস্তাব করেন। আর এ নিয়ে ওই ফুটপাতের লাইনম্যান মোল্লা ও এসির মধ্যে আবার মতবিরোধ দেখা দেয়। কারন প্রায় আড়াই বছর ধরে পুলিশ বক্স থাকায় বেশ মোটা অংকের টাকা মেল্লার হাত ছাড়া হয়ে যায়। কিন্তু প্রায় মাস খানেক আগে হঠাৎ ওই পুলিশ বক্সটি সরিয়ে ফেলায় জায়গাটা খালি হওয়ার সাথে সাথে লাইনম্যান মোল্লা মোটা অংকের অগ্রিম নিয়ে জনৈক ফল ব্যবসায়ীর কাছে ভাড়া দেন। এর আগে ওই জায়গায় বক্সটি স্থাপন করতে তৎকালীন এসি ট্রাফিক (সবুজবাগ জোন) কে যথেষ্ঠ হিমশিম খেতে হয়। তাই ওই সোনার ডিম পাড়া হাঁস তুল্য জায়গা টুকু বের বেহাত হওয়ার সম্ভাবনায় তিনি তা ঠেকানোর জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছেন। প্রায় দুই-আড়াই বছরের মাথায় প্রায় মাস দেড়েক ধরে ওই জায়গা থেকে অজ্ঞাত কারনে বক্সটি সরিয়ে ফেলা হয়। এতে ওই জায়গায় কর্তব্যরত পুলিশ (ট্রাফিক) সদস্যদের বসার জন্য ফের ওই জায়গা বক্স বসানোর চেষ্টায় ওই জোনের দায়িত্বরত এসি ট্রাফিক ও লাইনম্যান মোল্লার মধ্যে অর্ন্তদ্বন্দ সৃষ্টি হয়। একদিকে ওই জায়গায় বক্স বসানোর ব্যতায় ঘটাতে মোল্লা দিকবিদিক ছুটছে। আর অন্য দিকে পুলিশ ওই জায়গায় বক্স বসানোর জন্য ফুটপাতের ওই অংশের দোকান উচ্ছেদের সব ব্যবস্থা পাকা করে ফেলেছেন।
আরো জানায়, ওই ফুটপাতের সব চেয়ে দামী ওই জায়গাটাতে দীর্ঘদিন বেহাত থাকায় লাইনম্যান মোল্লা মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়া থেকে বঞ্চিত হন। যার কারনে ওই জায়গাটি খালি হওয়া সাথে সাথে তা গ্রাস করেন। আর তাই ট্রাফিকের নতুন এক এসি এসেই ওই জায়গায় পুলিশ বক্স বসানোর পরিকল্পনার খবর মোল্লার কানে পৌছানোর পরই তা থামানোর জন্য মোল্লা দিশাহারা হয়ে পড়েছেন। ওইএসি কে ঠেকানোর জন্য স্থানীয় নেতাসহ বিভিন্ন মহলের দ্বারস্থ হচ্ছেন তিনি।
ওই ফুটপাতের ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম জানান,দুই-আড়াই বছর আগে একজন মহিলা এসি ওই জায়গায় পুলিশ বক্সটি বসাতে গিয়ে ও অনেক বাঁধার মুখোমুখি হয়। শেষ পর্যন্ত লাইনম্যান মোল্লা ওই এসির তোপের মুখে পড়ে বক্স স্থাপনের বাঁধার পথ থেকে সরে দাড়ায়। এত দিন পর আবার ওই জায়গায় আবার পুলিশ বক্স বসানো নিয়ে একই ভাবে আর এক এসির সাথে মোল্লার দেনদরবার রেষারেষি চলছে। কারন ওই জায়গা টুকু তিনি কিছু দিন আগে বেশ মোটা অংকের টাকা অগ্রীম নিয়ে মাসিক ৬ হাজার টাকা ভাড়ায় ফল দোকান বসিয়েছেন। আবার ওই জায়গা মোল্লার আয়ত্বের বাইরে চলে যাওয়ার সম্ভাবনায় তিনি পুলিশের (ট্রাফিকের) সাথে ঝামেলা বাধিয়েছে।
ওই ফুটপাতে ব্যবসায়ী নুর মোহাম্মদ জানান, মুরগী ওয়ালা মোল্লা প্রায় ২৫বছর ওই ফুটপাতের কথিত লাইনম্যান হসাবে পুলিশের নামে চাঁদা তুলছেন। বর্তমানে খিলগাঁও থানার ওসিসহ একধিক উর্ধ্বতন নামে পুর্বের তুলনায় প্রায় দশ গুন বেশী চাঁদা আদায় করছেন। ফুটপাতের ওই কোনাটার চাহিদা একটু বেশী । আর তা হাত ছাড়া হওয়ার সম্ভাবনায় মোল্লা দিশাহারা হয়ে পড়েছে। ওই জায়গা নিয়ে ট্রাফিকের সাথে মতবিরোধের কারনে পুলিশ বিগড়ে যাওয়ায় কয়েক দিন ধরে মোল্লা সটকে পড়েছে।
তবে ট্রাফিক সবুজবাগ জোনের একটি সুত্র জানায়,ওই জায়গায় কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যদের ওই জায়গায় একটি বক্স স্থাপন দরকার। আর বিগত সময়ে যেখানে বক্সটি ছিল সেখানেই আর একটি বক্স স্থাপনের পরিকল্পনা রয়েছে। হয়তো খুব শীগ্রই তা বাস্তবায়ন করা হবে। কেউ কেউ বাঁধা দেয়ার চেষ্টা করছে। তবে বিষয়টি চুড়ান্ত হলে তাদের জন্য করনীয় বিষয়টি ও মাথায় থাকবে।
এ ব্যাপারে ওই ফুটপাতের লাইনম্যান মোল্লার সাথে কথা বলার জন্য যোগাযোগ করার চেষ্টা করে ও সম্ভব হয়নি।
তবে চাঁদা তোলার দায়িত্বে নিয়োজিত মোল্লার ভাতিজা আবুল জানায়, তারা এসি ও খিলগাঁও থানার ওসির টাকা তোলে।
সরেজমিনে খোজ নিয়ে জানা যায়, ওই মোল্লা শুধু ওই জায়গা টুকু নয়। খিলগাঁও রেল-গেটের পূর্ব-দক্ষিণ পার্শ্বস্থ গভঃ স্টাফ কোয়ার্টার সংলগ্ন ফুটপাত থেকে উত্তরে খিলগাঁও তাঁলতলা রোড় ও পূর্বে গোঁরান বাজার রোড় বিস্তৃর্ণ ফুটপাতের হকারদের লাইনম্যান হিসাবে প্রায় ত্রিশ বছর ধরে চাঁদা আদায় করে আসছে। যখন যে সরকার ক্ষমতায় থাকে ওই লাইনম্যান মোল্লা কৌশলে ওই সরকারের লোক সেজে যায়। তাই তিনি নির্বিঘেœ প্রায় দুই যুগের বেশী সময় ধরে ওই বিশাল ফুটপাতের চাঁদা আদায় করে বিশাল বিত্তবৈভবের মালিক হয়েছেন। শুধু তাই নয়, নিজ জেলায় তিনি ধনকুবের সেজে ও বসেছেন। তাই যে কোন উপয়ে ওই ফুটপাতের কতৃত্ব হাত ছাড়া করতে তিনি নারাজ। বিগত এক-এগারোর সময়ে ওই লাইনম্যান মোল্লা পালিয়ে যান। এর পর আবার একই কায়দায় ওই ফুটপাতের ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে পুলিশের নামে চাঁদা আদায়ে লিপ্ত হন। ইদানিং মোল্লা এ কইভাবে পুলিশের নামে প্রতিদিন প্রায় দুই’শ হকারের কাছ থেকে এক’শ টাকা হারে আদায় করে যাচ্ছে। আসলে পুলিশ কত টাকা পাচ্ছে? তাছাড়া আদৌ কি পুলিশজানে-তাদের নামে প্রতিদিন ওই মোল্লার মত আরো অনেক মোল্লা হতদরিদ্র হকারদের রক্ত পানি করা আয়ের একটা বড় অংশ হাতিয়ে নিচ্ছে। এভাবেই মোল্লা ওরফে মুরগী ওয়ালা মোল্লা ওই ফুটপাতের লাইনম্যান গিরি করে নিজ জেলা চাঁদপুরে ধনাঢ্য ব্যক্তিদের তালিকায় নিজের নাম লিপিবদ্ধ করেন। তাছাড়া দীর্ঘদিন ধরে ওই ফুটপাতের চাঁদা আদায় করে তিনি অর্থিকভাবে প্রতিষ্ঠীত। খিলগাঁও রেলগেট ফুটপাাত বিষয়ে তিনি বেশ প্রভাব তৈরী করেছেন। আর তাই খোদ পুলিশের সাথে ও দ্বন্দে জড়াতে দ্বিধাবোঁধ করেন না।

বালিয়াডাঙ্গীর লাহিড়ী তীরনই নদী ব্রীজ নির্মাণ কাজের শুভ উদ্বোধন
                                  

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: 

রাজিউর রহমান জেহাদ রাজু, ঠাকুরগা্ওঁ জেলা প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার চাড়োল ইউনিয়নে মঙ্গলবার বিকাল ৩ঘটিকার সময় তীরনই নদীর উপর ৬৩টি মিটার আরসিসি ব্রীজ নির্মাণ কাজের শুভ উদ্বোধন করেন। উদ্বোধন শেষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয় মধুপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গনে এতে বক্তব্য রাখেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ঠাকুরগাঁও জেলা আওয়ামলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মো: দবিরুল ইসলাম এমপি, বিশেষ অতিথি হিসেবে উদ্বোধনে ও আলোচনায় বক্তব্য রাখেন বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা চেয়ারম্যান সফিকুল ইসলাম, উদ্বোধন ও আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ২নং চাড়োল ইউনিয়ন পরিষদেও চেয়ারম্যান দিলীপ কুমার চ্যাটার্জী(বাবু), এছাড়া বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা শাখার যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক জুলফিকার আলী, আইন বিষয়ক সম্পাদক বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা শাখার আইন বিষয়ক সম্পাদক জিল্লুর রহমান, উপজেলা প্রকৌশলী কর্মকর্তা মাইনুল ইসলাম, স্বাগত বক্তব্য রাখেন মধুপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রশিদ প্রমূখ। প্রধান অতিথি বক্তেব্যে বলেন বর্তমান সরকার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়নের রুপকার ও দেশের উন্নয়নের কাজ করে যাচ্ছেন। ২০৪১ সালের মধ্যে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলা প্রতিটি রাস্তা পাকা করণ সহ বিভিন্ন উন্নয়নের ক্জা করে যাবেন বলে আহব্বান জানান।

Vietnam embassy celebrate Vietnamese Lunar New Year
                                  

 

Desk report:

Today, Vietnam Embassy in Bangladesh holds a reception for overseas Vietnamese in Bangladesh and Bangladeshi friends to celebrate Vietnamese Lunar New Year. On this occasion, Iwould like to wish a very happy new year to all of dear friends.

In 2016, relations between Vietnam and Bangladesh have witnessed major developments, especially in economic and trade cooperation, as well as cultural exchange between people of the two countries. they would like to take this opportunity to highly appreciate  good sentiments about Viet Nam, as well as thank sincerely  valuable supports that have remarkably contributed to developing relations between two countries.

they said,  as you can see, a lot of lanterns are decorated around the Chancery because today, according to Vietnamese tradition, is the Lantern Festival or Full moon of the firstlunar month. Vietnamese people often take this opportunity to pay respect to ancestors, grandparents and parents, and send each other best wish for a happy new year. Therefore, the reception today entitled Tet Gathering is an opportunity for all overseas Vietnamesein Bangladesh to get together and remember their national root, as well as encourage and support each other during their lifetime in Bangladesh, make contributions to the development of Viet Nam and relations between Viet Nam and Bangladesh.)

 

 

ডিমলায় প্রধান শিক্ষক বিএনপি সভাপতি হওয়ায় বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ছবি নেই
                                  

ডিমলা প্রতিনিধি:
প্রধান শিক্ষক বিএনপি সভাপতি হওয়ায় বিদ্যালয়ে অফিসে বঙ্গবন্ধু শেখ হাসিনার ছবি নেই। অনুপস্থিত ৮জন শিক্ষক। শিক্ষা মনোনিবেশ পরিবেশ পাচ্ছেনা শিক্ষার্থীরা। শিক্ষা জীবন ব্যহত।

নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার পূর্বছাতনাই ইউনিয়নের পূর্বছাতনাই আদর্শ বহুমুখী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়টি স্থাপিত হয়েছে ১৯৯৩ ইং সালে। ৬ জন শিক্ষক নিয়ে এমপিও ভুক্তি আওতায় আসে। মোট শিক্ষকের সংখ্যা ১৫ জন। শনিবার বিদ্যালয়ে কোন প্রকার

ছুটির আবেদন ছাড়াই অনুপস্থিত ৮জন। বিদ্যালয়টিতে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৩শ ৫০ জন। বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠাকাল হতে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করে আসছেন প্রধান শিক্ষক আব্দুল মতিন। আব্দুল মতিন রাজনৈতিক দল বিএপি’র সাথে সম্পৃক্ত। এবং পূর্বছাতাই ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতি হওয়ায় প্রধান শিক্ষকের মাথার উপরে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু কিংবা সরকার দলীয় রাষ্ট্র প্রধানের ছবি নেই। শনিবার সরজমিনে দেখা যায়, বিদ্যালয় চলাকালীন সময় দুপুর ১২ টায় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সহ ৮জন সহকারী শিক্ষক অনুপস্থিত। অনুপস্থিত ৮জন শিক্ষকের মধ্যে মাত্র একজন ছুটির আবেদন করেছেন। প্রধান শিক্ষকসহ বাকী সাতজনের কোন ছুটির দরখাস্ত অথবা শিক্ষক হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর নেই এবং প্রধান শিক্ষক বিএনপি সংগঠনের ইউনিয়ন সভাপতি মর্মে বঙ্গবন্ধু শেখ হাসিনার ছবি তিনি ঝুলিয়ে রাখতে নারাজ।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের সভাপতি সাইদুল হক বলেন, আমি সভাপতি হয়েছি প্রায় এক বছর হলো। আমিও বিএনপি সংগঠনের সাথে জড়িত। তবুও প্রধান শিক্ষককে বার বার বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ছবি লাগানোর বিষয়ে তাগিদ দেয়ার পরেও পূর্বছাতনাই ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতি ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মতিন আমার কথার কোন প্রকার গুরুত্ব দেননি। ভাষা শহীদের মাস ফেব্রুয়ারী। শহীদ মিনার ২১শে ফেব্রুয়ারী ফুল দিতে পারে না শিক্ষার্থীরা। বিদ্যালয়ের শহীদ মিনারটি দীর্ঘদিন হতে তা ভেঙ্গে মুছেগেছে । সে বিষয়েও মেরামতের কোন তাগিদ নেই প্রধান শিক্ষকের।

প্রধান শিক্ষক আব্দুল মতিন বলেন, আমি একটি নতুন টেবিল তৈরী করতে দিয়েছি টেবিলটি তৈরী হলেই ছবি লাগানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি। অথচ আওয়ামী সরকার ৮ বছরে পা রাখলেও তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ হাসিনার ছবি লাগাননি। ৮জন শিক্ষক অনুপস্থিতির বিষয়ে তিনি বলেন, শিক্ষকরা বেশির ভাগই অত্র এলাকার। পাশাপাশি বাড়ী হওয়ায় বাড়ী হতেই বেশিরভাগ সময় তারা ক্লাশ করেন। নাম প্রকাশ্যে না করার শত্যে কয়েকজন সহকারী শিক্ষক বলেন, মতিন স্যার প্রায় দিনই

আওয়ামীলীগের বিপক্ষে জামায়াত বিএপি’র এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য। জামায়াত ও বিএনপি’র নেতাদের নিয়ে প্রায়দিন বিদ্যালয় চলাকালীন সময়ে ঘন্টার পর ঘন্টা সরকার বিরোধী সভা করেন। তিনি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এবং এলাকার প্রভাবশালী হওয়ায়। আমরা তার কোন বিষয়েই বাধা প্রদান করার সাহস পাইনা। কেউ কোন বাধা বা নিষেধ করতে চাইলে তার বিভিন্ন হুমকীর কারনে ভয়ে আমরা মুখ বন্ধ রাখি।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রধান শিক্ষকের মাথার ওপরে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি ও প্রধান মন্ত্রীর ছবি না থাকার বিষয়টি অত্যন্ত দুঃখ জনক। আমি বিষয়টি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছি। ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ হাসিনার ছবি না থাকার বিষয়ে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আহসান হাবীব বলেন, আমি প্রতিমাসে বিদ্যালয়গুলি পরিদর্শন করি। ছবি না থাকার বিষয়টি লক্ষ করিনি। তবে অনুপস্থিত বিষয়টি জেনেছি। প্রধান শিক্ষক আব্দুল মতিন সহ অনুপস্থিত শিক্ষকদের বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করে দোষি শিক্ষকদের শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহনের প্রক্রিয়া করা হচ্ছে।

নড়াইলের জোবায়ের পেটের ভেতর দেড় কেজি সোনা এলাকায় তোলপাড়
                                  

নড়াইল প্রতিনিধি:
এলাকায় তোলপাড় নড়াইলের জোবায়ের আক্তারের পেট থেকে দেড় কেজি ওজনের ১৫টি  সোনার বার উদ্ধার করেছে ঢাকা কাস্টমস। হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বের হওয়ার সময় যাত্রী জোবায়েরকে গ্রিন চ্যানেল এলাকায় চ্যালেঞ্জ করার পর ওই সোনার বারগুলো উদ্ধার করা হয়। বিস্তারিত আমাদের নড়াইল জেলা প্রতিনিধি উজ্জ্বল রায়ের রিপোর্টে।  ঢাকা কাস্টমসের যুগ্ম কমিশনার সোহেল রহমান সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন। সোহেল রহমান জানান,  জোবায়ের আক্তারের বাড়ি নড়াইল। তিনি  সকালে মালয়েশিয়া থেকে ঢাকায় আসেন। প্রথমে চ্যালেঞ্জ করলে তিনি অস্বীকার করেন। পরে এক্স-রে করার পর পেটে সোনার অস্তিত্ব পাওয়া যায়। এরপর  প্রাকৃতিক পদ্ধতিতে পানি খাইয়ে, শারীরিক কসরত শেষে পেট থেকে ১৫টি স্বর্ণের বার বের করা হয়। দেড় কেজি ওজনের সোনার বারগুলোর বর্তমান বাজার মূল্য ৭৫ লাখ টাকা। গতকাল শনিবার তাকে বিমানবন্দর থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

সুইজ্যারল্যান্ডে বরফের রাজ্যে বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) ৪৭তম বার্ষিক সভায় অংশ নিতে এখন সুইজ্যারল্যান্ডের ডাভোসে অবস্থান করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সভা শেষে আজ তুষার হাতে দাঁড়িয়ে ছবি তুলেছেন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনাএবং শেখ রেহেনা।

দুইজনকে বরফ রাজ্যের ছবিতে বেশ হাস্যেজ্জ্বল দেখা গেছে। তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক তার ফেসবুক পেজে ছবি শেয়ার করেছেন। 

ছবি শেয়ার করে পলক তার ফেসবুকে লিখেছেন, ডাব্লুউইএফ-২০১৭ এর বার্ষিক সফল একটি সভা শেষে ডাভোস থেকে জুরিখের পথে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যার সঙ্গে খুব স্মরণীয় মুহূর্ত। 

একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে মুঠোভর্তি বরফ। অন্য আরেকটি ছবিতে প্রধানমন্ত্রীর দুষ্টুমির হাত ছোটবোন রেহেনার মাথার উপর যেন বরফ ফেলছেন ছোটবোনের মাথার উপর। হাস্যেজ্জ্বমুখ দুই বোনেরই।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) নিবার্হী চেয়ারম্যান অধ্যাপক ক্লাউস সোয়ানের আমন্ত্রণে ফোরামের ৪৭তম বার্ষিক সম্মেলনে যোগ দিতে গত ১৬ জানুয়ারি সুইজারল্যান্ডে পৌঁছান।

৫ দিনের সফর শেষে শুক্রবার সন্ধ্যায় তিনি ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা দেন।

শীতলক্ষ্যা নদী থেকে বিলাসবহুল জিপ উদ্ধার
                                  

অনলাইন ডেস্ক :

গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলায় শীতলক্ষ্যা নদী থেকে একটি বিলাসবহুল জিপগাড়ি উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার দস্যুনারায়ণপুর বাজার সংলগ্ন শীতলক্ষ্যা নদী থেকে প্রাডো ব্রান্ডের (ঢাকা মেট্রো ঘ-১১-২০২৯) গাড়িটি উদ্ধার করা হয়। তবে জিপটির মালিক কে বা গাড়িটি কীভাবে নদীতে এল, তা জানা যায়নি। 
স্থানীয়দের বরাত দিয়ে কাপাসিয়া থানার এসআই দুলাল মিয়া জানান, দস্যুনারায়ণপুর বাজারের কাছে শীতলক্ষ্যা নদীতে পানির নিচে একটি গাড়ি পড়ে আছে বলে স্থানীয়রা থানায় সংবাদ দেয়। ঘটনাস্থলে গিয়ে এলাকার লোকজনের সহযোগিতায় পানির নিচ থেকে গাড়িটি উদ্ধার করা হয়। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।
তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, কোনো সংঘবদ্ধ চোর চক্র গাড়িটি চুরি করে এনে নদীতে ফেলে দিয়েছে। বিআরটিএতে গাড়ির নম্বরটি দিয়ে মালিকানা বের করার পর প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে।


   Page 1 of 14
     বিশেষ খবর
পুরস্কার পেলেন সেই কনস্টেবল
.............................................................................................
চেয়ারম্যানের খাল ভরা আবর্জনায় ॥ বিষাক্ত ময়লা পানিতে ডুবে আছে কুতুবপুরের বেশিরভাগ অঞ্চল
.............................................................................................
২০ রোজার মধ্যে গার্মেন্ট শ্রমিকদের পাওনা দাবী
.............................................................................................
শামীম ওসমানের এলাকা কুতুবপুর আদর্শনগরে গৃহবন্দী লাখ লাখ মানুষ ॥ বছরের পর বছর চলাচলের রাস্তা বড় খনাখন্দ খালে পরিণত হয়ে আছে
.............................................................................................
শ্রীপুরে এপার ওপার বাংলার সংগীত শিল্পীদের সুরে ভেসেছে রবীন্দ্র-নজরুল-অতুল সেন
.............................................................................................
আজ মুক্ত গণমাধ্যম দিবস: মুক্ত নয় গণমাধ্যম
.............................................................................................
রাবি উপাচার্যের সঙ্গে ব্রিটিশ কাউন্সিলর পরিচালকের সৌজন্য সাক্ষাৎ
.............................................................................................
বিদ্যুৎ বিভাগ দখলে নিতে বেপরোয়া দুই বিএনপি নেতার প্রতিষ্ঠান
.............................................................................................
নবীনগরে এতিম শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরন
.............................................................................................
খিলগাঁয়ে চার বর্গফুট ফুটপাতের দাম ৫০হাজার টাকা ॥ ট্রাফিক ও লাইনম্যান অর্ন্তঃদ্বন্দ
.............................................................................................
বালিয়াডাঙ্গীর লাহিড়ী তীরনই নদী ব্রীজ নির্মাণ কাজের শুভ উদ্বোধন
.............................................................................................
Vietnam embassy celebrate Vietnamese Lunar New Year
.............................................................................................
ডিমলায় প্রধান শিক্ষক বিএনপি সভাপতি হওয়ায় বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ছবি নেই
.............................................................................................
নড়াইলের জোবায়ের পেটের ভেতর দেড় কেজি সোনা এলাকায় তোলপাড়
.............................................................................................
সুইজ্যারল্যান্ডে বরফের রাজ্যে বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা
.............................................................................................
শীতলক্ষ্যা নদী থেকে বিলাসবহুল জিপ উদ্ধার
.............................................................................................
কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে জঙ্গী ও মাদক বিরোধী র‌্যালী আলোচনা সভা
.............................................................................................
চিড়িয়াখানার চেহারা বদলে যাচ্ছে
.............................................................................................
সেই শের আলী পিপিএম পদকে ভূষিত হচ্ছেন
.............................................................................................
আজ শুভ বড় দিন
.............................................................................................
দুর্যোগকালে প্রতিবন্ধীদের সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিতে হবে: পুতুল
.............................................................................................
রিটার্ন জমা না দিলে সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন বন্ধ
.............................................................................................
ট্রাক্টর পরিবহনে নষ্ট হচ্ছে ৮০% রাস্তা ॥ দেশের ক্ষতি হাজার হাজার কোটি টাকা
.............................................................................................
দোয়া কামনা
.............................................................................................
সুনামগঞ্জে সড়ক দূঘটনা প্রতিরোধে সচেতনতা উদ্বুদ্ধকরন কর্মশালা অনুষ্টিত
.............................................................................................
৭১ সালে মৌলভীবাজার মনুব্রীজে মুক্তিযোদ্ধা হত্যা কান্ড
.............................................................................................
আর কত বয়স হলে এরা বয়ষ্ক ভাতা পাবে অঞ্জলী মনিদাস
.............................................................................................
পরীক্ষা দেওয়া হল না প্রতিবন্ধী সবুজের
.............................................................................................
দেশীয়রা কর্মসংস্থানের সুযোগ হারাচ্ছে ॥ বিদেশীরা নিয়ে যাচ্ছে হাজার হাজার কোটি টাকা
.............................................................................................
গোপালগঞ্জে পুন: ইউপি নির্বাচনে ২টিতে আওয়ামী লীগ, ১টিতে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী
.............................................................................................
ফের অস্ত্রোপচার করা হবে নার্গিসের
.............................................................................................
খাদিজাকে দু’তিন দিনের মধ্যেই কেবিনে নেয়া হবে
.............................................................................................
লক্ষ্মীপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় ৯ মাসে নিহত অর্ধশতাধীক
.............................................................................................
গোপালগঞ্জের যে বিখ্যাত নৌকা-বাইচ সবাইকে মুগ্ধ করে
.............................................................................................
লাকসাম রেলওয়ে জংশন যাত্রী বিশ্রামাগার নাকি প্রসূতি ঘরে
.............................................................................................
মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতির জন্য দ্বারে দ্বারে
.............................................................................................
খাদিজার অবস্থা আগের চেয়ে অনেক ভালো’
.............................................................................................
৯৬ ঘণ্টা পর চোখ খুলেতে পেরেছে খাদিজা
.............................................................................................
সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্রী নির্যাতনের জন্য মানববন্ধন ও সভা
.............................................................................................
বদরুলের দ্রুতবিচার চান খাদিজার বাবা
.............................................................................................
আগামীকাল শুক্রবার শুভ মহালয়া
.............................................................................................
পরীক্ষার ফলাফলে বাংলাদেশের সেরা প্রতিষ্ঠান দক্ষিণবঙ্গ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট
.............................................................................................
জাতীয় প্রেস ক্লাবের উন্নয়নে এগিয়ে এলো ওয়ালটন গ্রুপ
.............................................................................................
এবার দেখা যাবে ভূমিকম্প!
.............................................................................................
তরুণরা গড়বে দেশ, শেখ হাসিনার নির্দেশ - প্রতিমন্ত্রী পলক
.............................................................................................
রাত ৯টার মধ্যে প্রতিমা বিসর্জনের আহ্বান
.............................................................................................
দিল্লীতে শুক্রবার শুরু হচ্ছে বিজিবি-বিএসএফ সম্মেলন
.............................................................................................
তেঁতুলিয়া নদীতে জেলেদের জালে ধরা পরছে ঝাঁকে ঝাঁকে রুপালি ইলিশ
.............................................................................................
দাফনের আগে কেঁদে ওঠা শিশুটি আর নেই
.............................................................................................
ভাঙ্গায় ভূয়া সাংবাদিকদের দৌরাত্মে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী
.............................................................................................

|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
|
[ সম্পাদক মন্ডলী ]
2, RK Mission Road (5th Floor) Motijheel, Dhaka - 1203.
মোবাইল: ০১৭১৩৫৯২৬৯৬, ০১৯১৮১৯৮৮২৫ ই-মেইল : deshkalbd@gmail.com
   All Right Reserved By www.deshkalbd.com Developed By: Dynamicsolution IT [01686797756]