সোমবার , ১৭ ডিসেম্বর ২০১৮

সবাই একটি গ্রহণযোগ্য জাতীয় নির্বাচন চায়

  মঙ্গলবার , ০৭ নভেম্বর ২০১৭

আমরা সবাই আশা করি, আগামি জাতীয় সংসদ নির্বাচন একটি অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন। সকল দলের অংশগ্রহণে একটা অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নিরপেক্ষ অবস্থান নিয়ে নির্বাচন কমিশন মানুষের আস্থা অর্জন করবে। আমাদের দেশের গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা আরও এগিয়ে নিয়ে যাবে। এখন এটা সময়ের ব্যাপার, দেখা যাবে নির্বাচন কমিশন কি করে? আমরা আশা করি, নির্বাচন কমিশন সকল দায়িত্ব নিষ্ঠার সাথে পালন করবে। নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু করতে নির্বাচন কমিশনের সামনে বেশ কিছু চ্যালেঞ্জ রয়েছে। সহিংসতা, জালভোট, নিরাপত্তা এসব দিক দিয়ে নির্বাচন কমিশনকে কঠোর অবস্থান নিতে হবে। স্বাভাবিকভাবেই যারা ভোট দিতে যাবে, তারা যেন নিরাপদে ভোট দিতে পারে, জাল ভোট প্রতিরোধ করতে পারে। শুধু তাই নয়, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী যাতে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারে, সরকার যেন নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালন করে। যে সকল ব্যক্তিরা মনোনয়ন পত্র জমা দিতে আগ্রহী তারা যেন সকলেই মনোনয়ন পত্র জমা দিতে পারে। ভোট গ্রহণ শেষে যেন সঠিকভাবে ভোট গণনা করা হয়, সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। এ সকল বিষয় সঠিকভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে পারলে একটি অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন পরিচালনা করা সম্ভব হবে।

 সাক্ষাৎকার থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ