বুধবার , ০৮ নভেম্বর ২০১৭

মানুষের চেহারা মনে রাখে ভেড়া!

  বুধবার , ০৮ নভেম্বর ২০১৭

খুব বোকা কাউকে আমরা ভেড়া বলে থাকি। ধারণা করা হয়, এরা শুধু মাংস আর পশম উৎপাদনে ভূমিকা রাখে। আর কাউকে ভেড়া বলার অর্থ হচ্ছে তাকে হেয় করা এবং বোঝানো যে, তিনি কাউকে বোকার মতো অনুসরণ করছেন।

সাম্প্রতিক এক গবেষণায় উঠে এসেছে ভিন্ন তথ্য। তারা বলছেন, ভেড়া আদতে অতটা বোকা নয়। বরং অন্যান্য প্রাণির সঙ্গে তুলনা করলে বলতে হবে, ভেড়া আশ্চর্যরকম বুদ্ধিমান একটি প্রাণি।

কী কারণে ভেড়া বুদ্ধিমান? গবেষণায় দেখা গেছে, এদের রয়েছে গভীর স্মৃতিশক্তি এবং চিনতে পারার মতো গুণ। দুঃখ-অনুভূতিও প্রবল এদের। এটি পৃথিবীর বুদ্ধিমান প্রাণিগুলোর মধ্যে অন্যতম।

অনেকের কাছে ভেড়া মানেই মনে করা হয় একটি মস্তিষ্কহীন মাংসের পিণ্ড। কিন্তু সত্য হচ্ছে, মানুষ যতখানি ভাবে ভেড়া ততটা বোকা নয়। বরং যথেষ্টই বুদ্ধিমান। এরা নিজস্ব পরিবেশের ওপর বেশ প্রভাব রাখে।

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় দেখা যায়, ভেড়া মানুষের চেহারা মনে রাখতে পারে। এমনকি মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার চেহারাও তারা স্বাচ্ছন্দের সঙ্গে মনে রাখতে পারে।

এরআগে একই ধরনের গবেষণা করেছিলেন চীনের গবেষকরা। চীনের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক কিথ কেনড্রিক তার গবেষণায় বলেন, ভেড়া অন্তত ৫০টি চেহারা দুই বছরের বেশি সময় চিনে রাখতে পারে। তিনি আরও বলেন, ভেড়া নিজেদের মধ্যে পার্থক্য করতে পারে এবং এসব ক্ষেত্রে তারা স্বরের পার্থক্যকে গুরুত্ব দেয়। চীনা গবেষক বলেন, এরা অনুভূতিপ্রবণ এবং চারপাশে যা দেখে তার ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া দেখায়। 

অস্ট্রেলিয়ার গবেষক ক্যারোলিন লি ভেড়ার বুদ্ধিমত্তা নিয়ে কাজ করেছেন। তিনি বলেন, ভেড়া জটিল ধাঁধা থেকে বের হওয়া আয়ত্ত করতে পারে। বুদ্ধিমত্তার পাশাপাশি ভেড়া কৌতুকপূর্ণ এবং খেলাপ্রিয় একটি প্রাণি বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

 উপ-সম্পাদকীয় থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ