বৃহস্পতিবার , ০৯ নভেম্বর ২০১৭

ভারতীয় ট্রাকে অস্ত্র : বেনাপোল অচল

  বৃহস্পতিবার , ০৯ নভেম্বর ২০১৭

যশোরের বেনাপোল স্থলবন্দরে ভারত থেকে আমদানিকৃত পণ্যবোঝাই ট্রাকে একটি দেশীয় শুটার আগ্নেয়াস্ত্র পাওয়ার ঘটনায় এক সিঅ্যান্ডএফ কর্মচারীকে আটকের প্রতিবাদে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট কর্মচারীরা অনির্দিষ্টকালের জন্য দুই দেশের মধ্যে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ করে বিক্ষোভ করছেন। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট কর্মচারী ইউনিয়নের আন্দোলনের মুখে বেনাপোল-যশোর সড়ক অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে। 

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে কয়েক হাজার কর্মচারীর আন্দোলনের কারণে বন্দর থেকে মালামাল লোড-আনলোডসহ বন্ধ রয়েছে সব ধরনের পণ্য খালাশ প্রক্রিয়া।  এদিকে পণ্য খালাশ বন্ধ থাকায় চাল ও পচনশীল পণ্যসহ শত শত পণ্যবোঝাই ট্রাক আটকে আছে উভয় বন্দর এলাকায়।এ ছাড়া বেনাপোল থেকে দূরপাল্লার যাত্রীবাহী বাসসহ সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

জানা গেছে, বুধবার রাতে খবর আসে ভারতীয় ট্রাকে আগ্নেয়াস্ত্র রয়েছে বলে খবর আসে। এর পর রাত সাড়ে ১০টায় বেনাপোল বন্দরের ভারতীয় ট্রাক টার্মিনালে কাস্টমস, বন্দর, বিজিবি, পুলিশসহ বিভিন্ন সংস্থা অভিযান চালায়।

এ সময় ভারতীয় এন-২৩ প- ০৩৭৩ নম্বর ট্রাকের ডালার পেছনে কাগজে মোড়ানো প্যাকেট থেকে পুরনো একটি দেশি ওয়ানশুটার গান ও দুই রাউন্ড বন্দুকের গুলি উদ্ধার করে পুলিশ। অভিযানের খবর পেয়ে আগেই পালিয়ে যান ট্রাকচালক।পরে অস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় সিঅ্যান্ডএফ কর্মচারী মিকাইল হোসেনকে আটক করা হয়।

আন্দোলনকারীরা জানিয়েছেন ,তার নিঃশর্ত মুক্তি না দেয়া পর্যন্ত আমদানি-রফতানি বন্ধ থাকবে।

 সারা বাংলা থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ