বুধবার , ২০ মে ২০২০ |

ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ পোশাক শ্রমিকদের, ২০ কিমি যানজট

অনলাইন ডেস্ক   বুধবার , ২০ মে ২০২০

শ্রমিকরা সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত নগরীর বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ ও ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধের ফলে রাজধানীর উত্তরা থেকে টঙ্গী পর্যন্ত এবং টঙ্গী থেকে ভোগড়া বাইপাস মোড় পর্যন্ত উভয় দিকে প্রায় ১০ কিলোমিটার করে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়।

বেতন ও বোনাসের দাবিতে শ্রমিক বিক্ষোভে অচল হয়ে পড়ে গাজীপুর মহানগরীর ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের উভয় দিকের ১০ কিলোমিটার করে এলাকা। বকেয়া বেতন ও ঈদ বোনাসের দাবিতে বুধবার সকাল থেকে টঙ্গীসহ নগরীর বেশে কয়েকটি পোশাক কারখানার শ্রমিকরা প্রথমে কারখানার সামনে বিক্ষোভ করে।

পরে তারা মিছিল সহকারে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে সড়ক অবরোধ করে। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, মহানগরীর টঙ্গী গাজীপুর এলাকার ক্লাসিক ফ্যাশন কনসেপ্ট লিমিটেড কারখানার শ্রমিকরা সকাল ৮টায় কারখানার সামনে এসে বিক্ষোভ করে। পরে তারা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে।

টঙ্গীর সাতাইশ লস্কর পাড়া এলাকায় আবিদ অ্যাপারেলস লিমিটেড কারখানার শ্রমিকদের বেতন না দিয়ে কারখানা বন্ধ করার চলে যাওয়ায় শ্রমিকরা বিক্ষোভ করে। আটারকল এলাকায় প্রিমিয়ার ওয়াশিং লিমিটেড শ্রমিকরা বকেয়া বেতন ও বোনাসের দাবিতে বিক্ষোভ করে।

নগরীর বড়বাড়ি এলাকায় ‘ইন্টার ফ্যাব ম্যানুফেকচারিং লিমিটেড’ কারখানার শ্রমিকরা বেতন ও বোনাসের দাবিতে বিক্ষোভ এবং ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে। এতে সড়কের দুইপাশে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

ক্লাসিক ফ্যাশন কনসেপ্ট কারখানার শ্রমিক নুরুজ্জামান বলেন, ‘কারখানা কর্তৃপক্ষ ১৬ মে এপ্রিল মাসের মূল বেতনের ৬০ শতাংশের কম বেতন পরিশোধ করেছেন। এখন তারা ঈদ বোনাসের ৫০ শতাংশ না দিয়ে ২৫ শতাংশ দিতে চাচ্ছে।’ মঙ্গলবারও কারখানা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে বেসিক বেতনের ৫০ শতাংশ বোনাস পরিশোধের দাবি জানানো হয়েছিল বলে জানান নুরুজ্জামান।

আরেক শ্রমিক শাহানাজ বেগম বলেন, ‘বুধবার সকালে কারখানায় কাজে যোগ দিতে গিয়ে শ্রমিকরা প্রধান ফটকে তালা দেখে বিক্ষোভ শুরু করে। এক পর্যায়ে তারা পাশের ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে আবারো বিক্ষোভ শুরু করে।’ তবে এ সময় কারখানার কোনো কর্মকর্তার সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে গাজীপুর মহানগর (টঙ্গী জোন) পুলিশের সহকারী কমিশনার থোয়াই অং প্রু মারমা বলেন, ‘ক্লাসিক ফ্যাশন কনসেপ্ট কারখানার শ্রমিকরা ঈদ বোনাস ও এপ্রিলের বেসিকের ৬০ শতাংশ বেতন পরিশোধের দাবিতে বুধবার সকালে কারখানার সামনে গিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন। পরে তারা পাশে থাকা ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করলে রাস্তার দুই দিকে কয়েক কিলোমিটার যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।’

বেলা ১টার দিকে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে বলে জানান তিনি। এদিকে বেতন ও বোনাসের  দাবিতে বিভিন্ন পোশাক কারখানার শ্রমিকরা সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত নগরীর বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ ও ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধের ফলে রাজধানীর উত্তরা থেকে টঙ্গী পর্যন্ত এবং টঙ্গী থেকে ভোগড়া বাইপাস মোড় পর্যন্ত উভয় দিকে প্রায় ১০ কিলোমিটার করে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে দুপুর একটার দিকে শিল্প পুলিশ ও থানার পুলিশ শ্রমিকদের বুঝিয়ে সড়ক থেকে সরিয়ে দেয়।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের টঙ্গী পশ্চিম থানার ওসি মো. এমদাদ হোসেন জানান, বেতন বোনাসের দাবিতে শ্রমিকরা মহাসড়ক অবরোধ সৃষ্টি করে। তাদের বেলা ১টার দিকে বুঝিয়ে সড়ক থেকে সরিয়ে দিলে সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

 রাজধানী থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ