রবিবার , ১২ নভেম্বর ২০১৭

জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য মো. শওকত চৌধুরীর জামিন টিকিয়ে রাখতে ২৫ কোটি জমা দেয়ার যে শর্ত হাইকোর্ট দিয়েছিল, তার স্থগিতাদেশের মেয়াদ আরও তিন সপ্তাহ বাড়িয়েছে আপিল বিভাগ। সেইসঙ্গে নীলফামারী-৪ আসনের এই সংসদ সদস্যকে এই সময়ের মধ্যে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের আবেদন (লিভ টু আপিল) করতে বলা হয়েছে।

রোববার ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহহাব মিঞার নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারপতির আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেয়। শওকতের আইনজীবী নুরুল ইসলাম সুজন সাংবাদিকদের বলেন, আমরা হাইকোর্টের আদেশের কপি এখনও পাইনি। এজন্য সময় আবেদন করেছি। আদালত তা মঞ্জুর করেছে। আগামী ৩ ডিসেম্বর এ বিষয়ে পরবর্তী শুনানি হবে।

গত ২২ অক্টোবর বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের হাইকোর্ট বেঞ্চ ৫০ দিনের মধ্যে ২৫ কোটি টাকা বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকে জমা না দিলে এমপি শওকতের জামিন বাতিল হবে বলে রায় দিয়েছিল। এরপর শওকতের আবেদনে গত ২৯ অক্টোবর হাইকোর্টের আদেশ দুই সপ্তাহ স্থগিত করেছিল আপিল বিভাগ। এখন তা আরও তিন সপ্তাহ বাড়লো।

ঋণ জালিয়াতির অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশন ২০১৬ সালের ৮ ও ১০ শওকত চৌধুরীসহ নয়জনের বিরুদ্ধে বংশাল থানায় দুটি মামলা করে। এরমধ্যে এক মামলায় ৯৩ কোটি ৩৬ লাখ ২০ হাজার ২১৩ টাকা এবং আরেক মামলায় ৮২ লাখ ৮৯ হাজার ৮১৫ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়।

 আদালত থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ