সোমবার , ১৩ নভেম্বর ২০১৭

সঞ্জয় লীলা বানসালির জন্য এ যেন এক বিরাট স্বস্তি। অবশেষে ভারতের সর্বোচ্চ আদালতে ‘পদ্মাবতী’র বিরুদ্ধে দায়ের করা পিটিশন খারিজ করে দিয়েছেন দেশটির আদালত। রাজপুতদের অনুভূতিতে আঘাত দিতে পারে ‘পদ্মাবতী’-এই মর্মে ছবিটির মুক্তি স্থগিত করতে পিটিশন জারি করা হয়। জি-নিউজের খবরে প্রকাশ, সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র না থাকার কারণেই পিটিশনটি খারিজ করে দেওয়া হয়েছে।

পিটিশনটি খারিজ করে দেওয়ার সময় ভারতের সর্বোচ্চ আদালত জানান, ‘সেন্সর বোর্ড স্বাধীন একটি জায়গা এবং তাদের দেওয়া রায়ের ওপর সুপ্রিম কোর্টের হস্তক্ষেপ করা উচিত নয়।’ তবে এ রায়কে না মেনে বিজেপি নেতা অর্জুন গুপ্তা চিঠি লিখেছেন মুখ্যমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের কাছে। সেখানে ছবিটিকে ‘ন্যক্কারজনক’ বলে আখ্যা দেন তিনি। অর্জুন আরো বলেন, ‘শুধু রাজপুতরাই নয়, গোটা ভারত ছবিটির বিরুদ্ধে। ইতিহাস বিকৃত করার জন্য তার (সঞ্জয়লীলা বানসালি) দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত, যাতে করে আর কেউ এই ধরনের ছবি নির্মাণের সাহস না পায়।’

তবে রাজস্থানে ‘পদ্মাবতী’ ছবিটির মুক্তি বিরাট চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াচ্ছে বানসালির জন্য। তারপরও সেখানে থেকে এক রকম সবুজসংকেত পেয়েছেন তিনি। ছবিটির ব্যাপারে রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী জি সি কাটারিয়া বলেছেন, ‘আমার একটা কমিটি ছবিটি দেখবে।’

পদ্মাবতী চলচ্চিত্রটিতে মেওয়ারের শাসক রানা রাওয়াল রতন সিংয়ের স্ত্রী রানি পদ্মিনীর ভূমিকায় অভিনয় করছেন দীপিকা। আর শহিদ কাপুর থাকছেন মেওয়ারের শাসক রানা রাওয়াল রতন সিংয়ের ভূমিকায়। অন্যদিকে চলচ্চিত্রটিতে আলাউদ্দিন খিলজির ভূমিকায় অভিনয় করতে যাচ্ছেন রণবীর সিং। ‘পদ্মাবতী’র মাধ্যমে এই প্রথমবারের মতো নেতিবাচক চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে যাচ্ছেন রণবীর। ‘পদ্মাবতী’ ছবিটি চলতি বছরের ১ ডিসেম্বর মুক্তি পাওয়ার কথা রয়েছে।

 বিনোদন থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ