বৃহস্পতিবার , ২৩ নভেম্বর ২০১৭

রায়পুরে ডাক্তারের অবহেলায় প্রসূতির মৃত্যু

  বৃহস্পতিবার , ২৩ নভেম্বর ২০১৭

রায়পুর(লক্ষ্মীপুর)প্রতিনিধি : লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে  ডাক্তার ও নার্সের অবহেলায় প্রসূতি মা রোজীনা আক্তার (১৮) ও তার সদ্য জন্ম নেওয়া নবজাতক ছেলের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার ভোরে সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এ ঘটনা ঘটে।
সকালে খবর পেয়ে উত্তেজিত স্বজনরা হাসপাতালে হামলার চেষ্টা চালায়। পরে তারা মা-ছেলের লাশ নিয়ে হাসপাতালের সামনে অবস্থান নেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। নিহত রোজীনা উপজেলার চরবংশী ইউনিয়নের খাসের হাট এলাকার গনি মিস্ত্রী বাড়ীর ইমরানের স্ত্রী। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে স্বজনরা জানা যায়।
হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও নিহতের স্বামী ইমরান জানায়, গত রবিবার ১৯ নভেম্বর বিকেলে অন্তঃসত্ত্বা রোজীনা আক্তারকে রায়পুর সরকারি হাসপাতালের লেবার ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। এ সময় তারা চিকিৎসক কোথায় জানতে চাইলে কর্তব্যরত নার্সরা চিকিৎসা শুরু করেন। পরে কর্তব্যরত ডাক্তার ওই প্রসূতিকে দেখে সিজার অপারেশনের সম্ভাব্য তারিখ ২২ নভেম্বর দিয়ে থাকেন। বুধবার রাত ৩টার
দিকে রোজীনার প্রসূত ব্যথা শুরু হলে বারবার নার্সদের চিকিৎসককে ডাকতে বলা হলেও কেউ কোনো চিকিৎসককে ডাকেননি এবং নার্সরা একে অপরের কথা বলে সময় পার করতে থাকে বলে অভিযোগ ওঠেছে। একপর্যায় রোজীনা ছেলে সন্তান প্রসব করলেও নবজাতকটি মারা যায়। এর কিছুক্ষণ পর অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে রোজীনারও মৃত্যু হয়।
রায়পুর সরকারি হাসপাতালের দায়িত্বরত ডাক্তার শামীমা জাহান বলেন, আমার কোন অবহেলা নেই। আমি খবর পেয়েই দ্রুত ওই রোগীকে চিকিৎসা দেওয়ার আগেই মা ও নবজাতক মারা যায়। এখানে আমার চিকিৎসায় অবহেলার কোনো ব্যাপার নেই। 
রায়পুর থানার ওসি (তদন্ত) মোহাম্মদ সোলাইমান জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে প্রাথমিক ভাবে নার্স ও ডাক্তারের
অবহেলার কথা ওঠে আসছে।

 বিশেষ খবর থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ