রবিবার , ২৬ নভেম্বর ২০১৭

 মাহবুবুল আলম ,গাজীপুর প্রতিনিধিঃ
গাজীপুরের টঙ্গী বাজার এলাকায় জমি সংক্রান্ত বিরোধে চাপাতির কোপে মো. ইয়াসিন (৩২) নামের এক পাইকারী ডাল ব্যবসায়ি নিহত হয়েছেন। তাঁকে বাঁচাতে তার স্ত্রী রাবেয়া বশরীও গুরুতর আহত হন। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
নিহত ইয়াসিন, মুন্সিগঞ্জ সদর উপজেলার নয়াগাঁও এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে। তারা স্বপরিবারে টঙ্গী বাজার এলাকার সফিকুল ইসলামের বাড়িতে ভাড়া থাকেন। ইয়াসিন টঙ্গী বাজার এলাকার পাইকারী ডাল ব্যবসা করতেন। 
নিহতের খালাতো ভাই মো. কাউসার জানান, ইয়াসিনদের গ্রামে বাড়িতে তার চাচাতো ভাই আবু বকরদের সঙ্গে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছিল। গত শনিবার বিকেলে চাচাত ভাই আবু বকর টঙ্গীতে ইয়াসিনদের বাসায় বেড়াতে আসে। জমিজমার আলোচনা ছাড়াও আবু বকর  ইয়াসিনকে তার জন্য একটি চাকুরি যোগাড় করতে বলেছিল। বিভিন্ন আলাপ আলোচনা শেষে পাশের ঘরে শুতে যায় আবু বকর। একযর্পায়ে শনিবার রাত আড়াইটার দিকে আবু বকর পাশের ঘর থেকে ইয়াসিনদের ঘরে ঢুকে এবং ঘুমন্ত অবস্থায় ইয়াসিনকে চাপাতি দিয়ে দিয়ে এলোপাথারি কোপাতে থাকে। এসময় তার স্ত্রী রাবেয়া খাতুন ঘুম থেকে জেগে স্বামীকে বাঁচাতে গেলে আবু বকর তাকেও কোপালে তিনি গুরুতর আহত হন। তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাদের উদ্ধার করে টঙ্গী সরকারি হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে ইয়াসিনকে মৃত ঘোষণা করা হয় এবং রাবেয়াকে ঢাকায় রেফার্ড করা হয়। 
টঙ্গী থানার পরিদর্শক মো. হাসান জানান, খুন করে পালানোর সময়  এলাকাবাসী আবু বকরকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে। নিহতের গলা ও শরীরের বিভিন্ন অংশে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

 সারা বাংলা থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ