বুধবার , ২৯ নভেম্বর ২০১৭

কুড়িগ্রাম থেকে, রাশিদুল ইসলাম:
কুড়িগ্রামের হলোখানায় ইউনিয়ন পরিষদ চত্ত্বরে প্রকাশ্য দিবালোকে চাঞ্চল্যকর লুৎফর রহমান হত্যা মামলার প্রধান আসামী মাদক সহ গ্রেফতার হয়েছে। তাকে গ্রেফতারে এলাকার মানুষের মাঝে স্বস্তি ফিরে এসেছে। 
কুড়িগ্রাম সদর থানা সূত্র জানায়, গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত্রে কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার হলোখানা ইউনিয়নের মদাজালফারা এলাকা থেকে একদল পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে হত্যা মামলার প্রধান আসামী মুকুল সহ দুইজনকে গ্রেফতার করে। এছাড়াও বিভিন্ন এলাকা থেকে হাবিবুর রহমান হ্যাভেন (৩৫), আকাশ মিয়া (১৮), মাসুদ (৩০), সাজু (২৮) গ্রেফতার হয়। 
জানা গেছে, সদর উপজেলার হলোখানা ইউনিয়নের মদাজালফারা এলাকার নেছাব উদ্দিনের পুত্র মুকুল, মনছুর ও মাহাবুব এর বিরুদ্ধে কুড়িগ্রাম সদর থানার হত্যা, চাঁদাবাজী ও মাদক সহ একাধিক মামলা রয়েছে। ২০১২ সালে ১৪ আগস্ট জমিজমা সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রকাশ্য দিবালোকে হলোখানা ইউনিয়ন পরিষদ চত্ত্বরে খুন হয় লুৎফর রহমান (৩৫)। এ ঘটনায় ১৬জনকে আসামী করে কুড়িগ্রাম জজ আদালতে একটি মামলা দায়ের হয়। মামলা নং-২৮৭/১৪।  
নিহত লুৎফর রহমানের ভাই উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল গাফফার জানান, মামলার অন্যতম আসামী মুকুল, মনছুর, শফি, সিরাজুল, মাহবুব, হাছিমুদ্দিন, হামিদ মেম্বার, ছয়ফুল ও আকুল (রাহুল) গং মামলা তুলে নিতে অনবরত হুমকি ও আপোষ-নিষ্পত্তির প্রস্তাব দিয়ে আসছে। অভিযুক্ত আসামীরা এলাকায় মাদক ব্যবসা, চুরি, ডাকাতি, জুয়া, ছিনতাই, ধর্ষণ, চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অনৈতিক কার্যকলাপ চালিয়ে যাচ্ছে। এদের প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ৬/৭টি করে মামলা রয়েছে। এরা এখন হলোখানাবাসীর কাছে আতঙ্ক। 
এ ব্যাপারে কুড়িগ্রাম সদর থানার অফিসার ইনচার্জ এস.এম আব্দুস সোবহান জানান, হত্যা মামলার প্রধান আসামী গ্রেফতারকৃত মুকুল হাইকোট থেকে জামিনে রয়েছে। গতকাল রাতে তাকে মাদক সহ গ্রেফতার করা হয়েছে। মাদকের ব্যাপারে কোন ছাড় নেই। এই অভিযান অব্যাহত থাকবে। 

 আইন-শৃংখলা থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ