সোমবার , ২৫ ডিসেম্বর ২০১৭

নোয়াখালী সংবাদদাতা ঃ
আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক সড়ক পরিবহন  ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আগামী চার জানুয়ারি ভিডিও কনফারেন্সরে মধ্য দিয়ে প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা নোয়াখালী খাল খননের কাজ আনুষ্ঠানিকভাবে শুভ উদ্বোধন করবেন। এ খাল খননের মধ্য দিয়ে  দীর্ঘ দিনের নোয়াখালী বাসীর দুঃখ নোয়াখালী খাল, সে দুঃখ দুর হবে। দুর হবে জলাবদ্ধতা নামক এক অভিশাপ। বছরে একাধি বার ফসল চাষ করার সুযোগ পাবে কৃষক। দুর হবে বেকারত্ব। তিনি বলেন, ৩২৪ কোটি ৯৮ লাখ টাকা ব্যায়ে সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে আগামী ২০২১ সালের জুন মাসে এই কাজ শেষ হবে। এর মধ্যে রয়েছে বামনী নদীর ৭ কি:মি: ড্রেজিং ,একটি স্লইস গেইট যা নদীর দুই অংশকে সংযোগ করবে। এছাড়াও  সংশিষ্ঠ খাল সমূহে ড্রেজিংসহ ২৫ কিলো:মি খাল পূন:খনন ও নোয়াখালী এবং মহিষমারা খালে স্লুইস গেইট নির্মান করা হবে। এর ফলে নোয়াখালীর ৬টি উপজেলার জলাবন্ধতা নিরসন হবে এবং কৃষি উৎপাদনে সমৃদ্ধ হবে এলাকাবাসী । 
তিনি সোমবার দুপুরে সেনাবাহিনীর প্রকৌশল বিভাগের প্রধান জেনারেল সিদ্দিকুর রহমানকে সাথে নিয়ে কবিরহাট উপজেলার ধানশালিক ইউনিয়ন এলাকায় ফলক নির্মানের স্থান পরিদর্শনকালে এসব কথা বলেন। 
তিনি আরো বলেন, এ নোয়াখালী খাল নিয়ে দীর্ঘ দিনের জলাবন্ধতা ও সেচ সমস্যার সমাধান বিগত কোন সরকারই করেনি। বর্তমান সরকার প্রধান শেখ হাসিনা এলাকার মানুষের কষ্টের কথা বিবেচনা রেখে নোয়াখালী খাল পুন: খননের জন্য  একনেক এর বৈঠকে টাকা বরাদ্ধ দেয়ায় তাকে ধন্যবাদ জানান। 
এ সময় মন্ত্রীর সাথে উপস্থিত ছিলেন, নোয়াখালী ৪ আসনের সংসদ সদস্য  ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী, কবিরহাট উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শিউলি একরাম, নোয়াখালী জেলা প্রশাসক মাহবুব আলম তালুকদার, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল, কবিরহাট পৌরসভার মেয়র জহিরুল হক রায়হান প্রমুখ।  

 বিশেষ খবর থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ