শুক্রবার , ৩০ অক্টোবর ২০২০ |

করোনার মধ্যেই স্থানীয় সরকারের শতাধিক প্রতিষ্ঠানে ভোট শুরু

অনলাইন ডেস্ক   শনিবার , ১০ অক্টোবর ২০২০

করোনার প্রকোপের মধ্যেই জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদসহ স্থানীয় সরকারের শতাধিক প্রতিষ্ঠানে সাধারণ ও বিভিন্ন পদে উপ-নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। শনিবার (১০ অক্টোবর) সকাল ৯টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়।

চলবে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। তবে, জেলা পরিষদের ভোট হবে সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত। এদিকে নির্বাচন কমিশন এসব নির্বাচনে জন্য সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছে। এরমধ্যে চাঁদপুর ও জয়পুরহাটের কালাই পৌরসভা নির্বাচনে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন ব্যবহারের মাধ্যমে ভোট চলছে।
 
নির্বাচনের পরিবেশ শান্তিপূর্ণ রাখতে সব নির্বাচনী এলাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করেছে কমিশন। এছাড়া জুডিসিয়াল ম্যাজিট্রেটও নিয়োগ করেছে ইসি। গঠন করা হয়েছে আইনশৃঙ্খলা মনিটরিং সেল। এই সেলের নেতৃত্বে আছেন জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক। এছাড়া জননিরাপত্তা বিভাগ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, পুলিশ হেডকোয়াটার্স, বিজিবি, র‌্যাব, আনসার ও ভিডিপি, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের শীর্ষ কর্মকর্তারা এই সেলে কাজ করছেন। তারা নির্বাচন সংক্রান্ত আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নির্বাচন কমিশনকে অবিহত করছেন।
   
ইসির কর্মকর্তারা জানান, বিভিন্ন জেলা পরিষদের ১০ পদ ও ফরিদপুরের চরভদ্রাসন উপজেলার চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন হচ্ছে। অন্যদিকে চাঁদপুর পৌরসভায় সাধারণ নির্বাচন এবং জয়পুরহাটের কালাই পৌরসভা ও সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর পৌরসভায় মেয়রের শূন্য পদে, পাঁচ পৌরসভার কাউন্সিলর পদে এবং ২ ইউনিয়নের সাধারণ এবং ৮২ ইউপির বিভিন্ন শূন্য পদে উপ-নির্বাচন হচ্ছে।

একইসঙ্গে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৪৪ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ডে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সব মিলে স্থানীয় সরকারের ১০৪ প্রতিষ্ঠানে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে।  

নির্বাচন কমিশন জানায়, টাঙ্গাইলের মির্জাপুর পৌরসভায়, নোয়াখালীর হাতিয়া পৌরসভার ৭ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর, রাজশাহীর কেশরহাট পৌরসভার ৯ নম্বর সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদের প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। 

 রাজনীতি থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ