শনিবার , ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭

 মো.মরিুল আলম,কালীগঞ্জ(গাজীপুর)ঃ 
গাজীপুরের কালীগঞ্জে ব্যবসায়ী সাইকুল ইসলাম হত্যা মামলার এজাহাভুক্ত আসামীসহ দুইজনকে আটক করেছে কালীগঞ্জ থানা পুলিশ। কালীগঞ্জ পৌর এলাকায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে ওই হত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে একটি র্নিভরযোগ্য সূত্র নিশ্চিৎ করেছেন।
গত বুধবার গভীর রাতে উপজেলার বাইপাস সংযোগস্থল থেকে এজহারভুক্ত আসামী আল-আমিনকে আটক করেছে কালীগঞ্জ থানার এস.আই আলাল উদ্দিন। পরে ওই রাতে চৌড়া এলাকার বিশিষ্ঠ ব্যবসায়ী জালাল উদ্দিন জালু কোম্পানীকে তার নিজ বাড়ি থেকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।
উল্লেখ্য,গত ৩ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার চৌড়া বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে ব্যবসায়ী সাইকুল ইসলামকে হত্যা করে বাড়ির পাশে ভিআইপি ক্লাবের সামনে ফেলে রেখে চলে যায় দুস্কৃতিকারীরা। ওই সময় ক্লাব ও একটি মুদি দোকান তালা দিয়ে সবাই পালিয়ে যায়। এলাকাবাসীর জানায়, ঘটনার পর থেকে ক্লাবের সভাপতি মাসুমসহ অনেক সদস্য পলাতক রয়েছে। এ সংক্রান্ত বিষয়ে গত ৫/১২/১৭ তারিখে নিহতের স্ত্রী রোকেয়া বেগম ১। আজীজুল্লাহ ২। আরিফ উল্লাহ, ৩। আল আমিন, ৪। জুলহাস, ৫। কবির হোসেন, ৬। আসাদুল্লাহ  ও ৭। নাঈমকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের করেন। যার নং ৫(১২)১৭ 
এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পংকজ দত্ত বলেন, হত্যা ঘটনাটি তদন্ত অব্যহত রয়েছে, ইতিমধ্যে ২জনকে আটক করা হয়েছে। অতি শিঘ্রই রহস্য উদঘাটনসহ হত্যায় জড়িতদের আটক করা সম্ভব হবে।
এ সংক্রান্ত বিষয়ে তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আলালউদ্দিন বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধরার রাতে আটককৃত আল-আমিন কালীগঞ্জে প্রবেশের খবর পাই। পরে বাইপাস সংযোগস্থলে ওৎ পেতে থাকি এবং  সিএনজি থেকে আল-আমিনকে আটক করি। পরে ওই ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত থাকার সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিশিষ্ঠ ব্যবসায়ী জালাল উদ্দিন জালুকে তার নিজ বাড়ি থেকে আটক করে থানায় নিয়ে আসি।  

 আইন-শৃংখলা থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ