শনিবার , ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭

জাকির হোসেন নারায়ণগঞ্জ থেকে :
বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, উচ্চ আদালত আজ ধ্বংস। বিচার বিভাগ ধ্বংস  জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা না দিলে দেশ স্বাধীন হতো না। বুকের তাজা রক্ত দিয়ে অর্জিত এ স্বাধীনতা আজ ধুলিস্যাৎ হতে যাচ্ছে। বাকশাল কায়েম করে গণতন্ত্র হত্যা করেছিল। সেই গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করেছিলেন জিয়াউর রহমান। জিয়াউর রহমান সকল স্থানে সমান অবস্থান রেখে গেছেন। তার নীতি আদর্শে আমরা বিএনপির রাজনীতি করি। জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা না দিলে স্বাধীনতা আসতো না। আজকে আওয়ামী লীগ অপপ্রচার করে। কিন্তু ইতিহাস স্বাক্ষী দেয় জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা করেছেন। শনিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জে মহিলা দলের সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।
খন্দকার মোশাররফ বলেন, গুরুত্ব দিয়ে জিয়াউর রহমান মহিলা দল প্রতিষ্ঠা করেছেন। কারণ, ভোটের হিসাবে মহিলা দল গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করতে পারে। আমাদের আন্দোলন সংগ্রামে মহিলা দল সামনে থাকলে পুলিশ ও গুন্ডারা কিছুটা হলেও সমীহ করে থাকে।
তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনা ছিল গণতন্ত্র। আজ গণতন্ত্র আওয়ামী লীগের বাক্সে বন্দি। জনগণ ভোট দিতে পারে নাই। দেশের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনগুলোতে জোর করে তারা সীল মেরে জয় লাভ করেছে। জনগণের সমর্থন তাদের দরকার হয় না। কারন জনগণের ভোটের অধিকার তারা ছিনিয়ে নিয়েছে। আইন বিভাগ নিয়ন্ত্রণ করছে তারা। বিচারপতি সিনহা বলে গিয়েছিলেন পার্লামেন্ট বিচার বিভাগকে ধ্বংস করবে। সুস্থ বিচারপতিকে অসুস্থ বানিয়ে অব্যাহতি দিয়ে জোর করে বিদেশে পাঠানো হলো।
তিনি বলেন, মিথ্যা বানোয়াট মামলায়  বেগম খালেদা জিয়াকে সপ্তাহে তিন দিন হাজিরা দিতে হয়। ষড়যন্ত্র করে ভুয়া বিচার করা হচ্ছে। কোনো স্বাক্ষী নেই ডুকুমেন্ট নেই, সরকার বিচারকদের যা লিখে দিবে তাই রায় দিবে। আগামীতে আওয়ামী লীগ  আবারো ক্ষমতায় থাকতে বেগম খালেদা জিয়াকে সাজা দেয়ার পায়তারা করছে। কিন্তু জনগণ মেনে নিবে না।
সম্মেলনের উদ্বোধন করেন কেন্দ্রীয় মহিলা দলের সভাপতি আফরোজা আব্বাস। এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট তৈমূর আলম খন্দকার, প্রমুখ।   

 রাজনীতি থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ