রবিবার , ০৭ জানুয়ারী ২০১৮

নবাবগঞ্জ-দোহার প্রতিনিধি
ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলার গালিমপুর ইউনিয়নের নোয়াদ্দা গ্রামে নিশি আক্তার (২২) নামে এক গৃহবধুকে স্বামী হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এঘটনায় স্বামী জহিরুলকে আটক করেছে পুলিশ। মৃত নিশি উপজেলার ঐ গ্রামের নয়ন বক্সের মেয়ে ও পাশ্ববর্তী শাহবাগ তিনটেক এলাকার অধিবাসী দিদার আলীর পুত্র মো. জহিরুলের স্ত্রী। 
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার রাত ১০টার দিকে নিশির সাথে স্বামী জহিরুলের কথা কাটাকাটি হয়, এক পর্যায়ে জহিরুল স্ত্রী নিশিকে পরকিয়ায় আসক্ত বলে দোষারোপ করে মারধর করে।
 সেই রাতেই নিশি শশুর বাড়ির রান্না ঘরের কাঠের আড়ার সাথে তার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পেয়ে   শশুর বাড়ির স্বজনরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. তাজুল, নিশিকে মৃত ঘোষনা করেন। তবে লাশের গাঁয়ে কোনো জখম ছিল না বলে চিকিৎসক জানান।
সকালে খবর পেয়ে গালিমপুর তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ নিশির বাবার বাড়ি থেকে লাশ উদ্বার করে ময়না তদন্তের জন্য ঢাকা প্রেরণ করে। 
নিহতের বাবা নয়ন বক্স অভিযোগ করেন, তার মেয়েকে হত্যা করে লাশ ঝুলিয়ে রেখে আত্মহত্যা বলে প্রচারের চেষ্টা করে স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির লোকজন। আমি মেয়ে হত্যার সঠিক বিচার চাই। 
এবিষয়ে গালিমপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক (ইনর্চাজ) আব্দুর রাশিদ বলেন, পরকিয়া ও পারিবারিক কলহের জের ধরে নিশি আত্মহত্যা করতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মিডফোর্ড হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্ত প্রতিবেদন পেলে সঠিক বিষয় জানা যাবে।  

 ক্রাইম নিউজ থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ