বৃহস্পতিবার , ২৩ মে ২০১৯ |

বিদেশ ডেস্ক

সেনা ও বিমান বাহিনী প্রধানসহ সামরিক বাহিনীর শীর্ষ কয়েকজন কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করেছেন সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদ।

সোমবার দিবাগত মধ্যরাতে রাজকীয় ফরমান বলে তাদের বরখাস্তের ঘোষণা দেওয়া হয়। এরইমধ্যে অনেককে পদোন্নতি দিয়ে শূন্যপদগুলোতে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। সৌদি নিউজ এজেন্সি’র বরাতে এ খবর জানিয়েছে বিবিসি।

নারীদের সেনাবাহিনীতে যোগদানের সুযোগ দেওয়ার এক সপ্তাহেরও কম সময়ের মধ্যে এ ঘটনা ঘটলো।

সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থায় এই খবর প্রকাশিত হলেও, এর কোনো কারণ জানানো হয়নি। দেশটিতে বেশ কয়েকজন নতুন উপ মন্ত্রীও নিয়োগ দেয়া হয়েছে, যাদের মধ্যে একজন নারী মন্ত্রীও রয়েছেন।

ইয়েমেনে বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে সৌদি জোটের লড়াইয়ের তিন বছর পূর্তির ঠিক আগে আগে দেশটির সামরিক বাহিনীতে এই রদবদলের ঘটনা ঘটলো।

গত বছর যুবরাজ সালমানের দুর্নীতি বিরোধী অভিযানেই বেশ কয়েকজন পরিচিত সৌদি নাগরিক, প্রিন্স, মন্ত্রী আর কোটিপতিদের রিয়াদের একটি পাঁচ তারকা হোটেলে বন্দী করা হয়েছিল।

সংবাদমাধ্যম বলছে, বাদশাহের ক্ষমতার প্রতীক হিসাবে পরিচিত প্রতিষ্ঠানগুলোয় এটি আরেক দফা সংস্কার চালানো হল, যদিও এসব পদক্ষেপের পেছনে তার পুত্র এবং উত্তরাধিকারী যুবরাজ সালমান রয়েছেন। ইয়েমেনে সৌদি জোটের অভিযানও যুবরাজের সিদ্ধান্তে হয়েছিল, যা দৃশ্যত ব্যর্থ হয়েছে।

কিন্তু এসব পদক্ষেপের মাধ্যমে তিনি পরিষ্কার বুঝিয়ে দিয়েছেন যে, দেশটির প্রচলিত অনেক রীতিনীতি তিনি ভাঙ্গতে চলেছেন।


 সারাবিশ্ব থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ