মঙ্গলবার , ২০ এপ্রিল ২০২১ |

আরেকটি ‘ধবল’ হারে ‘ধোলাই’ বাংলাদেশ

দেশকাল স্পোর্টস ডেস্ক:   শুক্রবার , ২৬ মার্চ ২০২১

নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ব্যর্থতার পাল্লা ভারী করে আরেকটি ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশড বাংলাদেশ। ওয়েলিংটনের বেসিন রিজার্ভে শুক্রবার ১৬৪ রানের সাদামাটা হারে ৩-০ ব্যবধানে আত্মসমর্পণ করতে হয়েছে তামিম ইকবালের দলকে।

টস হেরে আগে ফিল্ডিং করতে নেমে প্রতিপক্ষকে ৩১৮ রান করতে দেখেন বাংলাদেশি বোলাররা। জবাব দিতে নেমে ব্যাটসম্যানরা ১৫৪ রানে গুটিয়ে যান, ৪২.৪ ওভারে। বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। অন্যদের মধ্যে কেউ যখন ত্রিশের ঘরে যেতে পারেননি, তিনি সেখানে ছয় নম্বরে নেমে ৭৩ বলে ৭৬ রান করেন! রুবেল হোসেনকে নিয়ে নবম উইকেটে গড়েন নিজেদের সর্বোচ্চ ৫২ রানের জুটি।

রুবেল ৪৩তম ওভারের প্রথম বলে স্কয়ার-ড্রাইভ করতে গিয়ে উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ দেন ব্যক্তিগত ৪ রানে, ৩৬ মিনিট ক্রিজে ছিলেন তিনি, খেলেছেন ২৮টি বল। বাংলাদেশের টপঅর্ডারের প্রথম তিনজনের কেউ তার সমপরিমাণ বল খেলতে পারেননি।

ম্যাট হেনরি এবং জেমস নিশামের গতিতে এদিন দফারফা হয়েছে বাংলাদেশের। হেনরি নিয়েছেন চার উইকেট, নিশামের শিকার পাঁচটি। বাংলাদেশ সময় ভোর চারটায় শুরু হওয়া ম্যাচে টস হেরে পেস আক্রমণে দাপট দেখানোর চেষ্টা করেন তাসকিনরা। কিন্তু তাদের সেই চেষ্টা বৃথা যায় রানআউটের সুযোগ এবং ক্যাচ হাতছাড়া; সেই সঙ্গে বাজে ফিল্ডিংয়ের পুরোনো অভ্যাসে।

এক হেনরি নিকোলাসকেই দুবার রানআউট করতে পারেনি মুশফিকরা। নিকোলাস (১৮) অবশ্য বিপদের কারণ হতে পারেননি। লিটনের ক্যাচ বানিয়ে সাফল্য আনার শুরুটা করেন তাসকিন। ড্রাইভ করতে গিয়ে কিউই ওপেনার গালিতে ক্যাচ দিলে ভাঙে ৪৪ রানের উদ্বোধনী জুটি।

তারপর রুবেলের জোড়া ধাক্কা। আরেক ওপেনার গাপটিল (২৬) ও একাদশে ফেরা অভিজ্ঞ টেলরকে (৭) সাজঘরের পথ দেখান টাইগার পেসার। স্টাম্পের বাইরের শর্ট বলে পুল করতে গিয়ে মিডঅনে লিটনের দ্বিতীয় ক্যাচ হন গাপটিল। টেলরের ক্যাচ ছেড়েছিলেন মোস্তাফিজ। খানিক পরে স্টাম্পের বাইরের বলে খোঁচা দিয়ে মুশফিকের গ্লাভসে জমা পড়েন তিনি।

গত ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান টম ল্যাথাম উইকেটে জেঁকে বসার আগেই মিরাজের উড়ন্ত ক্যাচে পরিণত হন। ৭ রান করা কিউই অধিনায়কের উইকেট তুলেছেন সৌম্য সরকার। এরপর ড্যারেল মিচেলকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়েন ডেভন কনওয়ে। দুজনে ১৫৯ রানের জুটি গড়েছেন। দুজনেই তুলে নিয়েছেন সেঞ্চুরি।

রুবেল ৩ উইকেট নিতে খরচ করেন ৭০ রান। তাসকিনের ১ উইকেট নিতে খরচ ৫২ রান। ৮৭ রান দিয়ে উইকেটহীন মোস্তাফিজ। সৌম্য ৮ ওভারে ৩৭ রানে নিয়েছেন ১ উইকেট।

 খেলাধুলা থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ