বুধবার , ২১ মার্চ ২০১৮

ডেস্ক রিপোর্ট:
বাংলাদেশ সেন্টার ফর অ্যাডভান্সড স্টাডিস (বিসিএস), ব্র্যাক বিশ্বাবদ্যালয়ের জলবায়ু পরিবর্তন ও পরিবেশ গবেষণা নিয়ে এসপা ২০ মার্চ বিশেষ আলোচনার আয়োজন করে। সেখানে মূলত এসপা’র নীতি নির্ধারক ও প্রাকৃতিক সম্পদ ব্যবহারকারীদের জন্য বিগত ৮ বছরের অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরা হয়। এসপা মূলত উপকূলীয় শহরঞ্চলের টেকসই প্রতিবেশ ব্যবস্থাপনা ও দারিদ্র  হ্রাসে বাংলাদেশের ৬টি গবেষণা প্রকল্পে সহয়তা দিচ্ছে।
বাংলাদেশ সেন্টার ফর অ্যাডভান্সড স্টাডিজের নির্বাহী পরিচালক এসপার আইপ্যাক সহ-সভাপতি ড. আতিক রহমান বলেন, দরিদ্র জনগোষ্ঠি ব্যাপক ভাবে প্রতিবেশ ও তার সম্পদেও উপর নির্ভরশীল। বন জঙ্গল ধংস না করে, বায়ুমন্ডলকে দূষিত না করে পরিকল্পিত ভাবে প্রতিবেশের সম্পদ ব্যাবহারের মাধ্যমে দারিদ্র  হ্রাস পেতে পারে।
এসপা ডেলটা প্রকল্পের গঙ্গা-ব্রম্মপুত্র-মেঘনা অববাহিকার প্রতিবেশ অঞ্চলের গবেষণায় দেখা গেছে উপকূলীয় এলাকায় কয়েক কোটি মানুষ প্রতিবেশ ও প্রাকৃতিক সম্পদেও উপর নির্ভরশীল। এসপার গবেষণায় নিশ্চিত হওয়া গিয়েছে যে এই অঞ্চলের গ্রামীণ দারিদ্র জনগোষ্ঠির উপর লবণাক্ততার প্রভাব ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে যা মাটি ও পারিবেশকে দূষিত করছে এবং তাদের স্বাস্থ্য ও জীবন জীবিকার উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে।
এসপা গবেষক দল বাংলাদেশে পরিকল্পনা কমিশনের সাথে প্রতিবেশ ও প্রাকৃতিক ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা ও উন্নয়নের লক্ষ্যে বাংলাদেশ ডেলটা পরিকল্টনা ২১০০ নিয়ে একত্রে কাজ করছে, যার লক্ষ্য হচ্ছে নতুন উপকূলীয় সবুজ বেষ্ঠুনী, কৃষির উন্নয়নে নতুন বাধ কার্যক্রম বাস্তবায়ন। এই নতুন বাধ উন্নয়নের ফলে একদিকে যেমন জনগণের দারিদ্র  হ্রাস পাবে অপর দিকে জলোচ্ছাসের তীব্র ঝুকি কমবে। এই কর্মসূচীর মাধ্যমে সরকারের নীতি নির্ধারণে স্বল্প ও দীর্ঘ মেয়াদী পরিকল্পনায় যথেষ্ঠ সহায়ক হবে বলে সেমিনারে জানানো হয়।
এসপা পরিচালক কেট শ্রেকেনবার্গ বলেন, আমাদের সমাজ ও প্রতিবেশ রক্ষার জন্য অতিমাত্রায় প্রাকৃতিক সম্পদ আহরণ রোধে একটি নীতিমালা ও পরিকল্পনা করা দরকার।
এ লক্ষ্যে কর্মশালার দ্বিতীয় দিবসে বিভিন্ন পর্যায়ের স্টেকহেল্ডার যেমন নীতি নির্ধারক, গবেষকগণ, উন্নয়ন সহযোগীদের সমন্বয়ে ডেলটা প্রকল্পের বিষয়াবলী নিয়ে আলোচনা করা হবে যা পরবর্তীতে বাংলাদেশ এসপা কর্যক্রমের নীতি নির্ধারণে কাজে আসবে। সাংবাদিক, গবেষক, শিক্ষক সহ সেমিনারে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার উচ্চতর পর্যায়ের ব্যক্তিগণ উপস্থিত ছিলেন।

 সভা-সেমিনার থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ