শনিবার , ২১ এপ্রিল ২০১৮

পাথরঘাটায় হাত-পা বেঁধে ডাকাতি, আহত ৩

  শনিবার , ২১ এপ্রিল ২০১৮

পাথরঘাটা (বরগুনা) প্রতিনিধি:

বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলায় ঘরের লোকজনদের হাত-পা বেঁধে একদল মুখোশধারী ডাকাত এক বাড়িতে ডাকাতি করেছে। এঘটনায় ৩ জনকে পিটিয়ে আহত করেছে ডাকাত দল। শুক্রবার (২০ এপ্রিল) দিবাগত রাত দেড়টা থেকে ফজরের আজান পর্যন্ত উপজেলার সদর ইউনিয়নের রুহিতা গ্রামে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। 

আহতরা হল, সৌদি প্রবাসী আলমগীর হোসেন মুন্সি (৪৫), তার স্ত্রী রহিমা বেগম (৩৮) ও মেয়ে সুমাইয়া আক্তার (১৫)।

সরজমিন গিয়ে জানা যায়, সদর ইউনিয়নের রুহিতা গ্রামে সৌদি প্রবাসী মো. আলমগীর এর বাডিতে মুখোশধারী দেশীয় ও আগ্নেয়াস্ত্রসহ ডাকাতি করে ডাকাত দল। এ সময় ঘরের দক্ষিণ পাশ থেকে গাছ দিয়ে বেয়ে মাচার উপরের জানালা দিয়ে ঘরের মধ্যে ঢুকে ঘরে থাকা প্রবাসী আলমগরিকে খাটে উপরে বেঁধে তার স্ত্রী ও মেয়েকে পিটিয়ে আহত করে। পরে ঘরের মধ্যে স্বর্ণালংকারসহ নগদ ৭৫ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায় তারা। 

এঘটনায় আলমগীর হোসেন বলেন, ঘরে ঢুকে আমাকে ও আমার স্ত্রী-মেয়েকে রশি দিয়ে বেঁধে পাইপগান দিয়ে পিটিয়ে আহত করে এবং আলমিরাসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ আসবাবপত্র ভাঙচুর করে নগদ ৭৫ হাজারসহ ৫ ভরি স্বর্ণ লুটে নিয়ে যায়। সে সময় ডাকাত দলের দু'জনের মুখ খোলা ছিল তাবে তাদেরকে চিনতে পারিনি। চিৎকার করলে খুন করারও হুমকি দেয় তারা। 

তিনি আরও বলেন, আগামী ২ মাসের মধ্যে ৫০ হাজার টাকা দিতে হরে তাদেরকে। তা না দিলে হত্যার হুমকি দিয়ে যান তারা।

এ ব্যপারে পাথরঘাটা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোল্লা মো. খবীর আহমেদ বলেন, পাথরঘাটা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তবে এখন পর্যন্ত কেউ লিখিত অভিযোগ দেয়নি।

পাথরঘাটা সদর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য মো. খলিলুর রহমান বলেন, স্বাধীনতার পর এই প্রথম আমার এলাকায় ডাকাতি হয়েছে। তবে এই এলাকার লোকজনের সহায়তা ছাড়া এ ডাকাতি করা সম্ভব নয়। 

 সারা বাংলা থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ