বুধবার , ২৫ এপ্রিল ২০১৮

ব্যর্থতা থেকে ঘুরে দাঁড়ানোর চাবি

  বুধবার , ২৫ এপ্রিল ২০১৮

অনলাইন ডেস্ক

ডিজনি ইন্টার‌অ্যাক্টিভের মোবাইল সার্ভিস প্রোডাক্টসের সাবেক পরিচালক রাজিব বেহেরা। ডিজনি বেশ কয়েকটি মারাত্মক জনপ্রিয় মোবাইল গেমসের নির্মাতা তিনি। ১০০ জন কর্মীর সেই স্টুডিওতে এসব গেম বানানো হয়েছিল তারই নেতৃত্বে। কর্মজীবনে এমন বিশাল একটি প্রতিষ্ঠানে সফলতা ও ব্যর্থতাকে খুব কাছ থেকে দেখেছেন বেহেরা।

দিনে ১০ ঘণ্টা কঠিন পরিশ্রম করে আজ তিনি সফল। তবে তার সফলতার পেছনে কয়েকটি জিনিস কাজ করেছে যেগুলোকে তিনি মূলমন্ত্র বলে বর্ণনা করেছেন। তার সফলতার মূলমন্ত্রগুলো অন্যদের জন্যও পথপ্রদর্শক হতে পারে। নিচে সেগুলো দেয়া হলো : 

ঝুঁকি বিবেচনা করে আশাবাদ নির্ধারণ : যেকোনো কাজে ঝুঁকি নির্ধারণের বিষয়ে স্বচ্ছ থাকতে হবে। আগে ঝুঁকি বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নিতে হবে এ কাজে পা বাড়াবেন কিনা। এতে নেতৃত্বের ওপর বিশ্বাসযোগ্যতা আসে। আর বিশ্বাসযোগ্যতা ব্যর্থতায় ঘুরে দাঁড়ানোর অন্যতম শক্তি।

ব্যর্থতার দায় নেওয়া : কোনো কাজে সফল নাও হতে পারেন। আর তা না হতে পারলে আবারো নতুন পরিকল্পনায় ফিরে আসতে হবে। ব্যর্থতার দায় নিজের কাঁধে নিতে হবে। এ মানসিকতা আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দেবে। শুরুতেই আসন্ন সম্ভাব্য সমস্যা সমাধানের উপায় নিয়ে চিন্তা করতে হবে। এতে আশপাশের মানুষ আপার দূরদৃষ্টিসম্পন্ন বৈশিষ্ট্যের সন্ধান পাবেন। পরিকল্পনা নিশ্ছিদ্র থাকলে প্রাণোচ্ছলতা নিয়ে কাজ করতে পারে পুরো দল।

ভুল থেকে শিক্ষাগ্রহণ : ধরে নিন ভুল হবেই। আর তা থেকে শিক্ষা নিতে ভুল করবেন না। এ শিক্ষা ভবিষ্যতে আপনাকে ভুল থেকে দূরে রাখবে। ব্যর্থতা মেনে নেওয়ার মাধ্যমে ভুল চিহ্নিত করুন। আর শিক্ষা নিয়ে নিজেকে আরো দক্ষ করে তুলুন। 

 ফিচার থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ