বৃহস্পতিবার , ২৪ জানুয়ারী ২০১৯ |

জেলা প্রতিনিধি  কুমিল্লা :

গত ৩ দিন ধরে কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম থেকে চট্টগ্রামের কুমিরা পর্যন্ত অন্তত ৮০ কিলোমিটার এলাকায় যানজট রয়েছে। এতে মহাসড়কের দাউদকান্দি অংশে যাত্রী ও পণ্যবাহী যানবাহনের চাপ অনেক কম ছিল। তবে সোমবার ভোর থেকে মহাসড়কের কুমিল্লা অংশে যানবাহনের চাপ বাড়তে থাকে। ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লার দাউদকান্দিতে ৩৫ কিলােমিটার যানজট সৃষ্টি হয়েছে।

জানা যায়, সোমবার ভোর থেকে ইলিয়টগঞ্জ থেকে দাউদকান্দির গোমতী সেতুর টোল প্লাজা পর্যন্ত এই যানজটের সৃষ্টি হয়। এতে যাত্রীদের ভোগান্তি চরম আকার ধারণ করেছে। মহাসড়কে আটকা পড়েছে অনেক যাত্রী ও পণ্যবাহী যানবাহন। দুপুর পৌনে একটায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত যানজট অব্যাহত রয়েছে।

এছাড়াও দাউদকান্দি টোল প্লাজা এলাকায় ওজন নিয়ন্ত্রণ স্কেলে ঢাকামুখী পণ্যবাহী যানবাহনে ওজন নিয়ন্ত্রণ পরীক্ষার নামে চাঁদাবাজির কারণে ঢাকামুখী সড়কে ব্যাপক যানটের সৃষ্টি হচ্ছে।

রাঙামাটি থেকে ঢাকাগামী কাঠ বহনকারী ট্রাকের চালক আমির হোসেন হোসেন বলেন, গত দুই দিন ফেনীতে যানজটে আটকে থেকে কুমিল্লা অংশে এসেও একই অবস্থা। সোমবার সকাল পর্যন্ত দাউদকান্দির রায়পুরে যানজটে আটকে আছি।

বন মন্ত্রণালয়ের পিকআপ চালক নুরুল ইসলাম বলেন, ৪ ঘণ্টা দাউদকান্দির আমিরাবাদে যানজটে আটকে আছি, এ কথা তো অফিসকে জানাইলেও বিশ্বাস করছে না।

হাইওয়ে পুলিশের দাউদকান্দি থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, গত ৩ দিন ধরে দাউদকান্দিতে বড় ধরনের কোনো যানজট ছিল না। সোমবার ভোর থেকে কিছুটা যানজট থাকলেও তা স্থায়ী হচ্ছে না। মহাসড়কে যানবাহনের গতি অনেক কম তাই যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।

 সারা বাংলা থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ