বুধবার , ২৩ মে ২০১৮

সৈয়দ হুমায়ুন কবির, পটুয়াখালী থেকে:
পটুয়াখালী পৌরসভার মোড় থেকে ১০০গজ পূর্ব দিকে মুসলিমপাড়ায় রাস্তার উত্তর পাশে মেসার্স এম.আর মার্কেটিং লিঃ নামে একটি প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন ধরে শহর থেকে প্রত্যন্ত গ্রাম অঞ্চলের মানুষকে প্রত্যারণার ফাঁদে ফেলে নব কৌশল হিসেবে বেছে নিয়েছে স্ক্যাচকার্ড এবং এই ভাবে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা। যে কার্ড ঘষলে পাওয়া যাচ্ছে নিম্ন মানের সামগ্রী মগ, গ্লাস, প্লাস্টিকের চেয়ার, ফ্লাক্স, বৈদ্যুতিক ফ্যান, মোবাইল, ফ্রিজ, টিভি প্রেসার কুকার, পানির ফিল্টারসহ ২০/২৫ ধরনের অতি নিম্ন মানের পন্য সামগ্রী। এলাকার একভুক্তভোগী মোঃ সুমন মৃধা-৩৫ বলেন এমআর মার্কের্টিং এর কাছ থেকে আমি একটি স্ক্যাচ কার্ড ক্রয় করি একশত টাকা দিয়ে। পরের দিন অফিসে গিয়ে তাদের নিয়ম অনুযায়ী আরও ১৬০০টাকা দিয়ে পাতিলটি নিয়ে আসি। পাতিলে পাক করার জন্য গ্যাসস্টোভে বসালে ১০ মিনিটের মধ্যে পাতিলটি পুড়ে যায়। এতে প্রমান হয় তাদের সকল পন্য সামগ্রী অতি নিম্ন মানের, তাই আমি চাই আমার মত হাজারো সাধারণ মানুষ এই সামগ্রী কিনে প্রতারিত না হয়। স্থানীয় লোকজন বলেন এদের সকল পন্য ব্যবহার অনউপযোগী, স্ক্যাচ কার্ড ক্রয় বাবদ ১০০ টাকা অর্থাৎ মোট ১৭০০ টাকায় মাত্র ৫শ থেকে ৭শ টাকার মালমাল পাওয়া যাচ্ছে বলে অভিযোগ করেন। তাদের প্রতিষ্ঠানের প্রচারের জন্য কমবয়সী মেয়েদেরকে সেলসম্যান হিসেবে চাকুরী দিয়ে থাকেন যাহাতে অনেক গ্রাহক মেয়েদের সাথে বাড়াবাড়ী না করতে পারেন।  এই প্রত্যরণা করার জন্য অনেক সময় তাদের প্রতিষ্ঠানের নাম পরিবর্তন করে বিভিন্ন জেলা উপজেলায় গিয়ে নতুন নামে ব্যবসা চালু করেন বলে জানান গ্রাহকরা। এলাকাবাসী জানান যত দ্রুত সম্ভব সাধারণ মানুষকে প্রত্যারণা থেকে বাঁচানোর জন্য এই প্রতিষ্ঠানকে প্রশাসনিকভাবে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হোক।

 ক্রাইম নিউজ থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ