বুধবার , ২৩ মে ২০১৮

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি:
কুষ্টিয়ায় পুলিশের সঙ্গে পৃথক ‘‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুজন মারা গেছেন। নিহতরা হলেন, ফটিক ওরফে গাফফার (৩৭) ও লিটন শেখ (৪০)। পুলিশের দাবী এরা এলাকার চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী ছিলেন। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১টার দিকে কুমারখালী উপজেলার লাহিনী পাড়ার গড়াই নদীর পাড় সংলগ্ন ব্রীজের নিচে ও ভেড়ামারা উপজেলার হাওখালী মাঠে এসব ঘটনা ঘটে। 
পুলিশ জানায়, মাদক কেনাবেচার উদ্দেশ্যে একদল মাদক ব্যবসায়ী লাহিনী পাড়ার গড়াই নদীর পাড় সংলগ্ন ব্রীজের নিচে অবস্থান করছে এমন গোপন সংবাদ পেয়ে কুমারখালী থানা পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য কর গুলি ছোড়ে। জবাবে পুলিশ ও পাল্টা গুলি চালালে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ একজন গুলিবিদ্ধ হন। তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। পরে পুলিশ জানতে পারে বন্দুকযুদ্ধে নিহত ব্যাক্তি শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী ও সন্ত্রাসী ফটিক ওরফে গাফফার । ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৫ পুলিশ সদস্য আহত হলে তাদের চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে বলে পুলিশের দাবি। ঘটনাস্থল থেকে ১টি বিদেশী পিস্তল, ১ রাউন্ড গুলি ও ৭শ’ পিচ ইয়াবা ও ৫০০ গ্রাম গাজা  উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত ফটিক ওরফে গাফফার উপজলার এলেঙ্গীপাড়া গ্রামের মৃত ওসমান গনীর ছেলে। এদিকে, ভেড়ামারা উপজেলার হাওখালী মাঠে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী লিটন শেখ (৪৫) নিহত হন। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ১টি এলজি, ৩ রাউন্ড গুলি, ৫০০ পিস ইয়াবা ও ২ গ্রাম হেরোইন উদ্ধার করেছে। নিহত লিটন শেখ উপজেলার নওদাপাড়া এলাকার মৃত গোলবার শেখের ছেলে। পরিবারের দাবি গতকাল রাত থেকে লিটন নিখোজ ছিল।  

 আইন-শৃংখলা থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ