বৃহস্পতিবার , ৩১ মে ২০১৮

ঈদ উপলক্ষে আজ বুধবার থেকে দূরপাল্লার বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। বাস কর্তৃপক্ষ ও টিকিটপ্রত্যাশীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ঈদের আগে মূলত ১৩ ও ১৪ জুন—এই দুই দিনের টিকিটের চাহিদা সবচেয়ে বেশি। অন্যান্য দিনের বাসের টিকিট বিক্রি কম।
আজ বুধবার সকাল ছয়টা থেকে রাজধানীর বিভিন্ন বাস কাউন্টারে অগ্রিম টিকিট বিক্রি হয়েছে। ভোরের আলো ফোটার সঙ্গে সঙ্গে টিকিটপ্রত্যাশীরা বাসের কাউন্টারগুলোর সামনে ভিড় করতে শুরু করেছেন।
কল্যাণপুর বাসস্ট্যান্ডে কথা হয় নীলফামারীর বাসিন্দা আফতাব উদ্দিনের সঙ্গে। একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন তিনি। তিনি বলেন, ঈদের আগে ১৪ জুন তাঁর শেষ অফিস। তাই ওই দিন তিনি বিকেলে বাসে উঠবেন। পরিবারকে আগেই পাঠিয়ে দেবেন তিনি।
বাংলাদেশ বাস-ট্রাক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও শ্যামলী পরিবহনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রমেশ চন্দ্র ঘোষ প্রথম আলোকে বলেন, ‘বেশি মানুষ ১৪ জুনের টিকিট খুঁজছেন। এর অন্যতম কারণ হচ্ছে, ওই দিন ঈদের আগে শেষ অফিস। আমাদের কাউন্টারেও এসে অনেকে ওই দিনের টিকিট না পেয়ে চলে গেছেন। আমরাও ওই দিনের টিকিট দিতে হিমশিম খাচ্ছি।’
তবে কেউ কেউ ঈদের আগে এক দিন ছুটি নিয়ে ১৩ জুন ঢাকা ছেড়ে যাবেন। এমনই একজন গাইবান্ধার পলাশবাড়ীর মো. মেরাজ হোসেন। সরকারি এই কর্মকর্তা বলেন, ‘কয়েক বছর ধরে দেখছি, ঈদের আগে মহাসড়কে অনেক যানজট হয়। এতে আমাদের বাড়ি পৌঁছাতে ২৫ থেকে ৩০ ঘণ্টা লেগে যায়। পরিবারকে কিছুটা সময় বাড়তি দিতে এক দিন আগেই ঢাকা ছাড়ছি। ঈদের পরপরই আবার ঢাকা চলে আসতে হবে।’
ঈদের আগে ১৪ জুনের টিকিটের পরপরই ১৩ জুনের টিকিটের চাহিদা বেশি বলে জানালেন এস আর ট্রাভেলসের সহকারী মহাব্যবস্থাপক প্লাবন রহমান। তাঁর প্রতিষ্ঠানের সব বাস উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় চলে। প্লাবন বলেন, বেশি লোক ১৪ জুনের টিকিট খুঁজছেন। তবে ওই দিনের টিকিট না পেয়ে ১৩ জুনের টিকিট চাইছেন। তবে আগাম টিকিট দেওয়ার প্রথম দিনেই ১৩ ও ১৪ জুনের টিকিট শেষ হয়ে গেছে বলে জানান তিনি। ওই দুই দিন বাদে অন্য দিনগুলোর টিকিটের চাহিদা তেমন নেই বলে জানান প্লাবন।
তবে চাকরিজীবীরা ঈদের ঠিক আগমুহূর্তে ঢাকা ছাড়ার প্রস্তুতি নিলেও কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা কিছুদিন আগেই ঢাকা ছেড়ে যাচ্ছেন।
সকাল সাতটায় গাবতলী এলাকায় হানিফ কাউন্টারে গিয়ে দেখা গেছে, টিকিটপ্রত্যাশীদের দীর্ঘ সারি। সেখানে বাসের অগ্রিম টিকিট কাটতে এসেছিলেন ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থী মিলন মাহমুদ। তিনি জানান, আগামী ১১ জুন ঢাকা ছেড়ে যাবেন। ঈদের আগে আগে যানজট ও ভোগান্তি বেড়ে যাওয়ার অভিজ্ঞতা থেকে তিনি এবার আগেই ঢাকা ছাড়ছেন।
হানিফ পরিবহনের মহাব্যবস্থাপক মো. মোশারফ হোসেন আজ সকাল আটটার দিকে বলেন, সকাল সোয়া ছয়টা থেকে তাঁরা অগ্রিম টিকিট দেওয়া শুরু করেছেন। ১৩ ও ১৪ জুনের টিকিটের চাহিদা বেশি। বিভিন্ন গন্তব্যের এই দুই দিনের টিকিট সকাল ১০টার মধ্যে প্রায় শেষ হয়ে যাবে বলে তাঁর ধারণা। ছুটি ভাগ করে দিলে টিকিটের চাপ কম হতো বলে মনে করেন মোশারফ হোসেন।

 পাঁচমিশালি থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ