শনিবার , ০২ জুন e ২০১৮

স্মার্টফোন ব্যবহারের আদ্যোপান্ত

  শনিবার , ০২ জুন e ২০১৮

বর্তমানে মোবাইল ফোন ব্যবহারকীদের তালিকায় যারা রয়েছেন তাদের মধ্যে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীর সংখ্যাই বেশি। অনেকেই  শুধু ভয়েস কল ও নেট কলের বাইরের স্মার্টফোনের ব্যবহার সম্পর্কে তেমন জানেন না। আমাদের এবারের আয়োজন স্মার্টফোনের পরিপূর্ণ ব্যবহার নিয়ে। 

অ্যান্ড্রয়েড হলো অপারেটিং সিস্টেম। বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে অনেক সুবিধা ভোগ করা যায় এই অপারেটিং সিস্টেম দিয়ে। কিন্তু থার্ডপার্টি অ্যাপ্লিকেশনগুলোর মাধ্যমে আপনি যে সুবিধা ভোগ করতে চান, আপনি কি আপনার ফোনে থাকা ফিচারগুলো সম্পর্কে সবকিছুই জানেন? আমাদের এবারের আয়োজনে সেসব ফিচার নিয়েই বিস্তারিত আলোচনা করা হবে যা অনেক ব্যবহারকারীরাই জানেন না। নিশ্চই অবাক হবেন আপনার না জানা ফিচারগুলো আপনার কাছেই রয়েছে তা ভেবে। অস্ট্রেলিয়ায় ব্যবহূত স্মার্টফোনের প্রায় ২০ শতাংশ ফোনেই অ্যান্ড্রয়েড সিক্স মাশম্যালো ভার্সনটি ব্যবহার করা হচ্ছে। এর চেয়েও দ্বিগুন সংখ্যায় ব্যবহার হচ্ছে অ্যান্ড্রয়েড ৭ নুগাট ভার্সন। পরবর্তী অ্যান্ড্রয়েড ৮ ওরিও ভার্সনও উন্মুক্ত হয়েছে ইতোমধ্যে। বস্তুত গতবছর বিক্রিত অনেক স্মার্টফোনই পরবর্তীতে অ্যান্র্ভ্রয়েড ৮ ওরিও ভার্সনে আপডেট করা হয়েছে। ফলে আমাদের আয়োজনের মূল ফোকাস অ্যান্ড্রয়েড ৭ নুগাট ও ওরিও নিয়েই।

নোটিফিকেশন ওভারলোড
অ্যান্ড্রয়েড ফোনের অন্যতম মজার বিষয় হলো নোটিফিকেশন। এই সুবিধাটির মাধ্যমে আপনি জানতে পারেন বিভিন্ন অ্যাপের আপডেট তথ্য, ই-মেইল, ম্যাসেঞ্জারে বার্তা, বিভিন্ন ধরনের রিমাইন্ডারসহ বিশ্বের বিভিন্ন আপডেট তথ্য। কিন্তু আপনি কীভাবে এটাকে কন্ট্রোল করবেন? কীভাবে এবং কখন আপনি এর সুবিধাটি ভোগ করতে চান? বস্তুত; আপনার অ্যান্ড্রয়েডে এই বিষয়টি সংরক্ষণ করা সম্ভব। এজন্য প্রথমে আপনাকে সেটিং অপশনে প্রবেশ করতে হবে এর পর নোটিফিকেশন সেটিং অপশনে প্রবেশ করতে হবে। অনেক স্মার্টফোনে সুইপট ডাউন করলেও নোটিফিকেশন সেটিং পাওয়া যায়। এখানে প্রবেশ করে নোটিফিকেশন সেটিংস বিভিন্ন ফোনে বিভিন্ন রকমের দেখতে পাবেন। অধিকাংশ ফোনেই ‘ম্যানেজ দ্য নোটিফিকেশন’ নামের অপশনটি দেখতে পাবেন। আবার অনেক স্মার্টফোনে ‘লিস্ট অব অ্যাপস’ নামের একটি অপশন দেখেতে পাবেন। এখান থেকে অ্যালাউ নোটিফিকেশন অপশনটি চালু করে দিন। এখানে আপনি আরো অনেকগুলো অপশন দেখতে পাবেন।  শো সাইলেন্টলি, অনলক স্ক্রিন, সেট এজ প্রিয়রিটি, ডনট ডিস্টার্ব ইত্যাদি।  ইচ্ছেমতো সাজিয়ে নিন নোটিফিকেশন অপশনটি। এর মাধ্যমে আপনি উপভোগ করতে পারবেন আপডেট যত তথ্য ও রিমাইন্ডার।

ডু নট ডিস্টার্ব ডাউনলোড টাইম
ডাউনলোড টাইম অথবা ডু নট ডিস্টার্ব অপশনটি খুঁজে পাবেন স্মার্টফোনের সেটিংয়ে। অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ কোনো মিটিং কিংবা ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কের মাধ্যমে ডাউনলোড করার প্রয়োজন হতে পারে। এ সময় হঠাত্ কোনো কল আসলে মিটিংয়ের জন্য বেমানান ও ডাউনলোডে ব্যাঘাত ঘটতে পারে। এই সমস্যা সমাধানেরও উপায় রয়েছে। বর্তমানের প্রায় সকল স্মার্টফোনেই ‘ডু নট ডিস্টার্ব’ নামের একটি অপশন দেখতে পাওয়া যায়। এই অপশনটি চালু করলে শুধুমাত্র ওয়াই-ফাই ও আইওএস অপশনটি সক্রিয় থাকে। গুরুত্বপূর্ণ কোনো ডকুমেন্ট ডাউনলোড করার সময় এই অপশনটি চালু করে নিলে ব্যবহারকারীরা বিরক্তিহীনভাবে ডাউনলোড করেত পারবেন। মনে রাখতে হবে, সরাসরি ডাউনলোডের ক্ষেত্রে ডাউনলোড টাইমের যেকোনো সময় কল আসলে বা নোটিফিকেশন আসলে ডাউনলোড ডিসকানেক্ট হয়ে যাবে এবং নতুন করে আবার ডাউনলোড করতে হবে। এতে যেমন সময় অপচয় হয় তেমনি ডাটাও বেশি খরচ হয়। ‘ডু নট ডিস্টার্ব’ অপশনটি সক্রিয় করে নিলে আপনি এই ধরনের ঝামেলায় পরবেন না।

আনলক অ্যাট হোম
স্মার্টফোনের এমন কিছু সুবিধা রয়েছে যার মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা বিশেষ সুবিধা ভোগ করতে পারে। তেমনই একটি সুবিধা হলো আপনার স্মার্টফোনটি অটোমেটিক আনলক হবে যখন আপনি আপনার বাসায় প্রবেশ করবেন। অ্যান্ড্রয়েড বা স্মার্টফোনের এই সুবিধাটি গ্রহণের ফলে ব্যবহারকারীদের আলাদা করে আর স্মার্টফোনকে আনলক করতে হয়না। এতে করে তার মোবাইলের লকস্ক্রিন বোতামের ওপর চাপ কমে আসছে। এই অপশনটি চালু করতে হলে ব্যবহারকারীকে প্রথমে Settings> Lock screen > Smart Lock’ এ প্রবেশ করতে হবে।  এখান থেকে ‘Trusted Locations’ অপশনটি বেছে নিতে হবে। আপনি যে লোকেশনটি বাছাই করবেন আপনার স্মার্টফোনটি ওই লোকেশনে আসলেই অটোমেটিক আনলক হবে। শুধু তা—ই নয়, আপনার ভয়েস ব্যবহার করেও স্মার্ট আনলাক অপশনের সুবিধাটি ভোগ করতে পারবেন।

গেট ব্যাকআপ
অ্যান্ডয়েড স্মার্টফোনের বিভিন্ন তথ্য ব্যাবআপ রাখার সুবিধাও রয়েছে। অনেক সময় অ্যান্ডয়েড ফোনকে ডিফল্ট সেটিং দিতে হয়। এর ফলে, স্মার্টফোনে থাকা বিভিন্ন ডকুমেন্টস মুছে যায়। দীর্ঘদিন স্মার্টফোন ব্যবহার করলে ব্রাউজার ও বিভিন্ন সাইটের বাগ জমে থেকে ফোনকে স্লো করে দেয়। ডিফল্ট সেটিং দিলে স্মার্টফোনটি আবার আগের গতি ফিরে পায়।  ফোনে থাকা ডকুমেন্টসগুলো যেনো মুজে না যায় সেজন্য অ্যান্ড্রয়েডে রয়েছে ব্যাকআপ সুবিধা। এই সুবিধাটি ভোগ করতে হলে ‘Settings > Backup & Restore’ অপশনে প্রবেশ করতে হবে। এর পর আপনার জিমেইল অ্যাকাউন্ট এর ঠিকানা লিখতে হবে নির্ধারিত স্থানে নির্দেশনা মোতাবেক। এরপর যখন আপনি আপনার ফোনটি ডিফল্ট সেটিং দিবেন তখন আপনার যাবতীয় তথ্য জিমেইলের মাধ্যমে সংরক্ষিত হবে যা পুনরায় রিস্টোর করে নিতে পারবেন।

ম্যাক্সিমাম ব্যাটারি লাইফ
দীর্ঘ মেয়াদি ব্যাটারি লাইফ পেতে অনেকেই বিভিন্ন অ্যাপ ব্যবহার করছে। অ্যান্ড্রয়েড ৬ মাশম্যালো বা এর পরবর্তী অপারেটিং সিস্টেমে ব্যাটারিসেভার অপশনটি রয়েছে। এই সুবিধাটি পেতে হলে অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে প্রবেশ করতে হবে। এর পর ‘Settings > Battery > Battery Saver’ অপশনের মাধ্যমে আপনি পেতে পারেন ব্যটারি সেভার সুবিধাটি। বাজারে বিভিন্ন মডেলের স্মার্টফোন রয়েছে। মডেল ভেদে অপারেটিং মেন্যু আলাদা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যেমন ধরুন- স্যামসাং নোট ৮ এর ক্ষেত্রে এ বিষয়টি সম্পূর্ণ আলাদা। তাদের নিজস্ব সিস্টেমেই রয়েছে কুল ব্ল্যাক স্ক্রিন সুবিধা। এছাড়াও সুপার অ্যামোলেড ডিসপ্লে সমৃদ্ধ স্মার্টফোনগুলোতে ওএলইডি সুবিধা। বর্তমানের প্রায় সকল স্যামসাং স্মার্টফোন ও নেক্সসাস ফোনগুলোতে ‘ওএলইডি’ প্রযুক্তির ডিসপ্লে ব্যবহার করা হচ্ছে।

পুশ বাটন শর্টকার্টস
স্মার্টফোনে অল্প কয়েকটি বোতাম রয়েছে। পাওয়ার অফ/অন, ভলিউয়াম আপ/ডাউন ব্যতীত তেমন কোনো বোতাম নজরে আসে না। এই বোতামগুলোর মধ্যে অনেক প্রোগ্রাম বা ফাংশন কাজ করানো যায়। অ্যান্ড্রয়েড ফোনটির সেটিং মেন্যুতে গিয়ে বিভিন্ন ধরনের সেটিং করে নেয়া যায় ইচ্ছে মতো। যেমন ধরুন আপনি ফোনে কথা বলার পর কল কেটে দিতে স্মার্টফোনে থাকা তিনটি বাটনের একটি ব্যবহার করতে চাচ্ছেন। তাহলে আপনাকে Settings > Accessibility > Answering andEndingCalls’ ফাংশনে প্রবেশ করতে হবে। এখান থেকে আপনার পছন্দ মতো আপনি সেট করে নিন আপনি যা চাচ্ছেন। এছাড়াও আপনি ক্যামেরার কিছু শর্টকার্ট সেট করে নিতে পারেন। এজন্য আপনাকে ‘Settings > Advanced Features’ এই অপশনে প্রবেশ করতে হবে। এখান থেকে আপনি কোন ক্যামেরাটি শর্টকার্টে সেট করতে চান তা চিহ্নিত করুন।  এছাড়াও কিছু কিছু স্মার্টফোনে ভলিউয়াম ডাউন বাটন দিয়ে ক্যামেরার ক্যাপচারের কাজটি করানো সম্ভব হয়।

টেক্সট -টু- স্পিস
বার্তা আদান প্রদানের জন্য শুধু লিখতে হবে আসলে তা-না। বার্তা আদান-প্রদানের জন্য ভয়েসকেও ব্যবহার করা যায়। এটাকে আপনি দুই প্রক্রিয়াতে ব্যবহার করতে পারেন আর তা হলো- লিখিত বার্তাটি আপনি ভয়েস আকারে শুনতে পারেন আবার ভয়েস থেকে লিখিত বার্তায় পরিণত করতে পারেন। এজন্য আপনাকে অ্যান্ড্রয়েডের সেটিং অপশনে গিয়ে ‘Text-to-SpeechOutput’  অপশনটি চালু করে দিতে হবে।

গেস্ট মুড
আপনি যদি কিছু সময়ের জন্য আপনার স্মার্টফোনটি কারো কাছে দিয়ে থাকেন তাহলে আপনার ফোনে থাকা বিভিন্ন তথ্য লুকিয়ে রাখতে আপনি গেস্ট মুডটি ব্যবহার করতে পারেন। এই সুবিধাটি পেতে হলে আপনাকে অপারেটিং সিস্টেমের সেটিং মেন্যুতে প্রবেশ করতে হবে। এর পর Settings >Users and accounts >Users > Guest’ এই অপশন গুলোতে ধাপে ধাপে প্রবেশ করতে হবে। মডেল ভেদে এই অপশনটি আলাদা হতে পারে। যেমন ধরুন লেটেস্ট স্যামসাং মোবাইলগুলোতে এই অপশনটি দেখা যায় না। স্যামসাংয়ে এই সুবিধাটির পরিবর্তে পাসওয়ার্ডের মাধ্যমে ফোল্ডার সুরক্ষিত রাখার সুবিধা রয়েছে। এছাড়াও কিছু মডেলের স্মার্টফোনে এই সুবিধাটি প্যাটার্ন লক এর মাধ্যমে ভোগ করা যায়। ওই সেটগুলোর জন্য ফোল্ডার সুরক্ষা বা অ্যাপস লকের পদ্ধতি হলো- ‘Settings > Security > Screen pinning’ ।

জুম-ইন
অনেক সময় উচ্চ রেজুলেশনের কারণে স্মার্টফোনে টেক্সট ম্যাসেসগুলো ছোট আকারে প্রদর্শিত হয়। এই সমস্যারও সমাধান রয়েছে আপনার স্মার্টফোনেই। এজন্য আপনাকে নির্দেশনা মোতাবেক ‘Settings > Accessibility> Magniication>Magniication Gestures’ প্রবেশ করতে হবে।  আপনি যদি এই সুবিধাটি ভোগ করতে না চান তাহলে ফিচারটি ডিজঅ্যাবল করে রাখতে পারেন।

 তথ্য প্রযুক্তি থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ