শনিবার , ০৯ জুন e ২০১৮

 চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি:চুয়াডাঙ্গার জীবননগরের কয়া গ্রামের বটতলায় গরুর বাধন খুলে দেওয়ার তুচ্ছ ঘটনা কে কেন্দ্র করেউভয় পক্ষের চারজন আহত সংবাদটিকে কিছু সুবিধাবাদী লোকজন  ভিন্নখাতে নেওয়ার বৃথা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। কয়া গ্রামের আনার শেখের ছেলে রুজু গ্রামের বটতলায় গরুর বাধন খুলে দেওয়ার কারনে তার ওপর প্রতিবেশি তক্কেল মন্ডলের ছেলে আব্দুল করিম ও তার ভাই রাহেল (৫০) তেলু(৩২)ও বেধড়ক মারপিট শুরু করে।
ঘটনাটি গত বুধবার দুপুরে সংঘটিত হয়। এমতাবস্থায় রুজু প্রান রক্ষার্থে বাড়িতে পালিয়ে গেলে আবারও প্রতিপক্ষরা তার নিজ বাড়িতে গিয়ে রুজুর  ওপর হামলা করে। সেসময় রুজু তার বাড়িতে থাকা ঘাসকাটার কাচি  এলোপাতারি চালাতে থাকলে ঘটনায় করিম ,তেলু ও রাহেল আহত হয়। 
এমতাবস্থায় প্রত্যক্ষদর্শীরা  আহতদেরকে উদ্ধার করে জীবননগর সহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করেন। এখন তারা সকলেই শঙ্কামুক্ত রয়েছেন বলে এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে।
রুজু জানায় এই বিষয়টি নিয়ে তক্কেল মন্ডলের ছেলেরা স্থানীয় সাংবাদিকদের কাছে মিথ্যা তথ্য প্রদান করে । আমাকে মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে প্রামাণ করার জন্য ঘটনাটি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করে এলাকায় আমার সুনাম ক্ষুন্ন করারব্যার্থ চেষ্টা চালিয়েযাচ্ছেন। ঘটনাটি নিয়ে স্থানীয় মাথাভাঙ্গা ও সময়ের সমীকরন পত্রিকায় আমাকে মাদক ব্যবসায়ী বলে খবর ছাপা হয়েছে।
এরকম খবর ছাপানোর কারনে আমিসহ ও আমার পরিবারে সুনাম নষ্ঠ হয়েছে। আমি এমন সংবাদ পরিবেশনের জন্য সাংবাদিক ভাইদের কাছে দাবী জানায় প্রকৃত সত্য তুলে ধরার জন্য। বটতলায় গরু বেধে রাখার কারনে উচ্ছিষ্ট ও গোবর বসার জায়গাকে নষ্ট করে বিধায় আমি করিমদের গরুর বাধন খুলে দেই।এতে তারা তিন ভাই ক্ষিপ্ত হয়ে আমার ওপর হামলা চালায় । 
আমি জখম হলে বাড়িতে পালিয়ে যাই তার পরও তারা বাড়িতে গিয়ে আবার হামলা করে প্রতিবাদে আমি কাচি তুলে তাদেরকে পাল্টা আঘাত করি এতে তারাও জখম হয়। কিন্তু স্থানীয় সংবাদপত্রেআমার নামে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশন করা হয়। আমার নাকি মাদকের ব্যবসা আছে আমি মাদক সেবন করে তাদের কে হামলা করেছি । আমি এহেন সংবাদের তীব্র পতিবাদ জানাচ্ছি।
 এ ব্যাপারে সীমানন্ত ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড মেম্বার মমিন উদ্দীন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন ঘটনাস্থলটি ঝিনাইদহ মহেশপুর উপজেলার কুশোডাঙ্গা মৌজার  হলেও সেখানকার বাসিন্দারা আমাদের ইউনিয়নের ভোটার আহতদের মধ্যে জীবননগর সহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এ ঘটনায় রুজরু বিরুদ্ধে তক্কেল মন্ডলের ছেলেরা বাদী হয়ে একটি মামলা চুয়াডাঙ্গা জেলা জজ আদালতে মামলা দায়ের করে।

 সারা বাংলা থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ