সোমবার , ০২ July ২০১৮

নারায়ণগঞ্জে খুন হওয়া শিশু আশিকুর রহমান রিফাত (১১) হত্যা মামলায় দুইজনের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ রবিউল আউয়াল এ আদেশ দেন। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- মহিউদ্দিন হাসানাত ও সাইফুল ইসলাম। রায় ঘোষণার সময় সাইফুল ইসলাম আদালতে উপস্থিত থাকলেও মহিউদ্দিন হাসনাত পলাতক রয়েছেন।

আদালতের অতিরিক্ত পিপি ফজলুল রহমান মৃত্যুদণ্ডের আদেশের সত্যতা নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান, আদালত সাক্ষ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে এ রায় দিয়েছেন।

২০১২ সালের ১০ আগস্ট আপন বোনের স্বামী (দুলাভাই) ও তার ভাড়াটে রিফাতকে গলাকেটে হত্যা করে। রিফাত ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার তোফাজ্জেল হোসেনের ছেলে।

নিহতের পরিবার ও মামলা সূত্রে জানা যায়, নলছিটির ব্যবসায়ী তোফাজ্জেল হোসেন তার একমাত্র ছেলে আসিকুর রহমান রিফাতকে নিয়ে ঢাকার মিরপুর-২ নম্বরের মনিপুর এলাকায় বাসা ভাড়া করে বসবাস করেন। তাদের সঙ্গে মেয়ে ও মেয়ের জামাতাও থাকতেন। তোফাজ্জেল হোসেনের স্ত্রী ঝর্ণা বেগমের সঙ্গে সামান্য কথা কাটাকাটি হয় জামাতা মহিউদ্দিন হাসানাতের। এতে শ্বশুরবাড়ির লোকজনের ওপর ক্ষিপ্ত হয় জামাতা হাসানাত। এরই জের ধরে ২০১২ সালের ১০ আগস্ট বাসার পাশের গলিতে বিকেল ৩টার দিকে খেলার সময় রিফাতকে ঘুরতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে মাইক্রোবাসে ওঠায় হাসানাত। দুলাভাই হাসানাত এবং ৩০ হাজার টাকায় ভাড়া করা দুই খুনি সাইফুল ইসলাম ও মিঠু শিশু রিফাতকে অপহরণ করে নারায়ণগঞ্জ সিদ্ধিরগঞ্জ থানা এলাকার নাভানা ভূঁইয়া সিটিতে নিয়ে যায়। নির্জন ওই স্থানে রাতে রিফাতের হাত-পা বেঁধে ধারালো ছুরি দিয়ে গলা কেটে হত্যা করে তারা।

 আদালত থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ