সোমবার , ০২ July ২০১৮

সাতক্ষীরা সংবাদদাতা:
বর্ষা মৌসুম শুরু হওয়ার সাথে সাথেই ব্যস্ত সময় পার করছেন সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটার নৌকা তৈরীর কারিগররা। জলাবদ্বতার কারেন সাতক্ষীরার বিস্তৃর্ন এলাকা প্রায় বছর জুড়ে জলামগ্ন থাকে। ফলে চলাফেরার জন্য দেশের দক্ষিন এ জনপদে গুরুত্বপূর্ন হয়ে উঠেছে নৌকার ব্যাবহার। সে কারনে জেলার পাটকেলঘাটায় গড়ে উঠেছে অর্ধশতাধিক নৌকা তৈরির কারখানা। এখানকার তৈরীকৃত নৌকা জেলা মানুষের চাহিদা মিটিয়ে পাশ্ববর্তী জেলায় সরবরাহ হচ্ছে। আর এ শিল্পের সাথে জড়িত বৃহত একটি জনগোষ্ঠী জীবিকা নির্বাহ করে চলেছে। 
শুধু বর্ষা মৌসুম নয় বছরের ১২ মাস নৌকা তৈরী হয় সাতক্ষীরার তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা থানায়। বছর জুড়ে নৌকা তৈরীর খটখটানি শব্দের কারনে জেলায় নৌকা তৈরীর একমাত্র পল্লী নামে পরিচিতি পাটকেলঘাটার বল ফিল্ড এলাকা। খুলনা-সাতক্ষীরা মহাসড়কের পাটকেলঘাটা বল ফিল্ড মোড় থেকে কলেজ মোড় পর্যন্ত নৌকা তৈরীর এ পল্লীটি এখন নৌকার হাট নামেও বেশ পরিচিত রয়েছে। আষাঢ় থেকে ভাদ্র এই তিন মাসের মৌসূমী ব্যবসা হলেও প্রায় সারা বছরই চলে তৈরী ও বেচা-কেনা। 
আনুলিয়া গ্রামে কারিগররা আলম গাজী জানান, খই আর চম্বল কাঠ দিয়ে তৈরী প্রতিটি নৌকা বিক্রি হয় ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকায়। ডিঙি, জেলে, টাবুরি ও খেয়া নৌকার চাহিদা বেশি। এক একটি নৌকা তৈরী করতে সময় লাগে এক থেকে দুই দিন। দুই শতাধিক সুদক্ষ কারিগর অর্ধশতাধিক কারখানায় দৈনিক তৈরি করছে ২০ থেকে ২৫ টি নৌকা। ফলে এ শিল্পের সাথে জড়িত আত্মকর্ম সংস্থানের ব্যাবস্থা হয়েছে শতাধিক পরিবারের। এ শিল্পের প্রসার ঘটাতে সুদ মুক্ত ঋণ দেওয়ার আহবান জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।
সাতক্ষীরা বিসিক উপ-ব্যবস্থাপক গোলাম সাকলাইন বলেন এ শিল্পের সাথে জড়িতদের তালিকা তৈরি করে সব ধরণে সহযোগিতা করা হবে। 
সরকারি বে-সরকারি পৃষ্টপোষকতা পেলে সম্ভাবনাময় এই খাতে কর্মসংস্থান হবে আরও কয়েক হাজার মানুষের।

 সারা বাংলা থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ