সোমবার , ০৯ July ২০১৮

সফিকুল ইসলাম, লক্ষ্মীপুর:
লক্ষ্মীপুরে মো. হানিফ নামে এক যুবকের বঁটির কোপে মৃত্যুবরণ করেছেন তার আপন চাচা হাফিজ উল্যাহ (৩০)। জানা গেছে, নারিকেল পাড়াকে কেন্দ্র করে ঘটনার সূত্রপাত ঘটে। রোববার (৮ জুলাই,১৮) দুপুরে পৌরসভার সাহাপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 
এসময় বিলকিছের নেছা ও আব্দুল মতলব নামে আরো দুজনকে কুপিয়ে জখম করা হয়। তারা নিহতের মা ও বড় ভাই। বর্তমানে নিহতের মরদেহ সদর হাসপাতাল মর্গে রয়েছে। এছাড়া আহতদেরও ওই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে শহর ফাঁড়ি পুলিশ।
অভিযুক্ত মো: হানিফ সাহাপুর গ্রামের বাসিন্দা এবং নিহত হাফিজ উল্যাহর আপন বড় ভাই আব্দুল মালেকের ছেলে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, লক্ষ্মীপুর পৌরসভার সাহাপুর গ্রামের আলী আহম্মদের ছেলেদের মাঝে দীর্ঘদিন যাবত জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছে। ঘটনার দিন দুপুরে বিরোধকৃত জমির নারিকেল গাছ থেকে নারিকেল পাড়তে যান আলী আহম্মদের স্ত্রী ও নিহতের মা বিলকিছের নেছা। এসময় আব্দুল মালেকের পরিবারের লোকজন বাধা দেয়। খবর পেয়ে হাফিজ উল্যাহ ও আব্দুল মতলব ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। এরপর উভয় পক্ষের মাঝে তুমুল বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে আব্দুল মালেকের ছেলে মো. হানিফ বঁটি দিয়ে তার চাচা হাফিজ উল্যাহকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান হাফিজ উল্যাহ। একই সময় বিলকিছের নেছা ও আব্দুল মতলবকেও কুপিয়ে জখম করা হয়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক হাফিজ উল্যাকে মৃত ঘোষণা করেন।
নিহতের স্বজনদের দাবী, অনতিবিলম্বে হত্যাকারী মো. হানিফকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক।
শহর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ সোলাইমান বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে এবং মরদেহটি ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্তরা পলাতক রয়েছে। তাদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যহত রয়েছে বলে জানান  পুলিশ কর্মকর্তা। 

 সারা বাংলা থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ