শনিবার , ১৪ July ২০১৮

শরীয়তপুর জেলা প্রতিনিধি ঃ
শরীয়তপুর জেলাঃ নড়িয়া, ঘড়িসার ইউনিয়, সিংহলমুড়ী গ্রামে গত ১৮ জুন তারিখে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে হামলার স্বীকার হন। চর লাউলানী দিল মোহাম্মদ খান এর ছেলে চুন্নু মিয়া খান ও তার মেয়ে হালইসার নন্দনসার উচ্চ বিদ্যায়ের দশম শ্রেনীর ছাত্রী রুপা আক্তার এর উপর হামলা চালায় মাস্টার সোহেল এর নেত্রীত্বে ডালিম, বাসার, আনোয়ার ও বিউটি সহ আরোও অনেকে ঘটনায় মাস্টার সোহেল কে ০১ নং আসামী করি । নড়িয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। ও স্কুলের ছাত্র-ছাত্রী এলাকাবাসী তার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তিার দাবিতে একটি মানব বন্ধন ও বিক্ষোব মিছিল করেন। ঘটনা সূত্রে  দিল মোহাম্মদ খান বলেন ০১ নং আসামী ৬৫ নং চর মোহন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আঃ আলিম সোহেল আমার মেয়ে রুপালী আক্তার (১৬) কে তলপেটে লাথি মারে ও শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করেন। মামলাটি আদালতে চলমান আছে। কিন্তু আসামীরা সবাই জামীনে এসে মামলা তোলার জন্য  বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। আমার ছেলে চাঁন মিয়া কে তুলে নিয়ে হালইসার উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নিয়ে মোয়াজ্জেম মাস্টারের বিরোদ্ধে মিথ্যা কথা বলিয়ে মোবাইলে ভিডিও করে। না বলতে চাইলে তাকে প্রান নাসের হুমকী দেয় আমি এখন পরিবার নিয়ে আতংকে বসবাস করছি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক স্কুল মাস্টার বলেন আঃ আলিম সোহেরল মাস্টার তিনি রাজনীতির সাথে জড়িত অনিয়মিত স্কুল করেন। এ ঘটানা আমরা তিব্রনিন্দা জানাই এবং এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উপজেলা শিক্ষা অফিস ও জেলা শিক্ষা অফিস কে লিখিতভাবে অবগত করি। 

 আইন-শৃংখলা থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ