সোমবার , ২৩ July ২০১৮

নীলফামারী প্রতিনিধি:
নীলফামারী জেলাধীন ডিমলা উপজেলার ৫নং গয়াবাড়ী ইউনিয়নের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে গত ২২ জুলাই রবিবার সকাল ১০.৩০ ঘটিকার সময় নাউতারা ইউনিয়নের মহাজন পাড়া হালিমুরের প্রতিবন্ধী স্ত্রী রিতা বানু (২৫) কে ল্যাম্ব গ্রামকর্মী সি.এস.ডবিøউ রেনুফা বেগম বাচ্চা প্রসব করার জন্য গয়াবাড়ী স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্রে নিয়ে আসেন। এর পর কর্তব্যরত ল্যাম্ব সি.এস.বিএ ডলি রানী রায় প্রতিবন্ধী রিতা বানুকে প্রসব করার পর নবজাতকের নাভি সঠিক ভাবে কাটতে না পারায় নবজাতকের নাভি থেকে রক্ত প্রবাহিত শুরু হয়। এমতাবস্থায় প্রতিবন্ধী রিতা বানু ও তার নবজাতক শিশুকে ল্যাম্ব কর্তৃপক্ষ চিকিৎসার ছাড়পত্র ছাড়াই ডিমলা সদর হাসপাতালে পাঠান। এর পর ডিমলা সদর হাসপাতলের কর্তব্যরত ডাক্তার অনুপ কুমার নবজাতককে দেখার পর রংপুর সদর হাসপাতালে রেফার্ড করেন। রংপুর সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার দিনগত রাত ৮ টার সময় নবজাতকের মৃত্যু ঘোষনা করেন। এ বিষয়ে ল্যাম্ব ম্যানেজার নজরুল ইসলামের সাথে মুঠোফোনে কথা বললে তিনি বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার পায়তারা করেন। সংবাদকর্মীরা সরেজমিনে গিয়ে ল্যাম্ব অফিসে তালাবদ্ধ অবস্থায় দেখতে পায়।  
রিপোর্টটি লেখা পর্যন্ত নবজাতকের কোন অভিভাবক থানায় অভিযোগ দেন নি।

 সারা বাংলা থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ