রবিবার , ২৬ আগষ্ট ২০১৮

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: গোপালগঞ্জের মুকসুদপুর উপজেলায় ডাকাতি রোধে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের দুই পাশের জঙ্গল স্বেচ্ছায় পরিষ্কার অভিযান শুরু হয়েছে। মুকসুদপুর উপজেলার কানুরিয়া পল্লীমঙ্গল ক্লাবের উদ্যোগে পরিষ্কার অভিযান শুরু করা হয়। ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের মুকসুদপুর উপজেলার রাঘদী থেকে দিগনগর পর্যন্ত প্রায় পাঁচ কিলোমিটারে প্রতিনিয়তই ডাকাতি, ছিনতাই ও খুনের ঘটনা ঘটে। রবিবার দুপুরে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের দুই পাশের জঙ্গল স্বেচ্ছায় পরিষ্কার অভিযানে মুকসুদপুরের সিন্দিয়াঘাট পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক আলমগীর হোসেন, দিগনগর ইউপি চেয়ারম্যান হাজী মোহাম্মদ আলী, রাঘদী ইউপি চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন, এএসআই ইসলাম সরদার, কানুরিয়া পল্লীমঙ্গল ক্লাবের সভাপতি আলমগীর হোসেনসহ ক্লাবের সদস্যরা ও এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন। এলাকাবাসী জানায়, ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের দুই পাশের ফাঁকা জায়গা বন-জঙ্গলে ঘেরা থাকায় ডাকাতরা বিভিন্ন যানবাহনের চালক ও যাত্রীদের উপর হামলা করে মূল্যবান সম্পদ ডাকাতি করে আসছে। সড়কের দুই পাশের জঙ্গল পরিষ্কার করলে ডাকাতিরোধ করা সসম্ভব হবে। তাই এলাকাবাসী পরিষ্কার অভিযানে অংশ নিয়েছে। কানুরিয়া পল্লীমঙ্গল ক্লাবের সভাপতি আলমগীর হোসেন জানান, বিগত এক বছরে ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের রাঘদী থেকে দিগনগর পর্যন্ত পাঁচ কিলোমিটার এলাকা ফাঁকা ও বন-জঙ্গল ঘেরা। ডাকাতরা ডাকাতির আগে সড়কের পাশের জঙ্গলের মধ্যে লুকিয়ে থাকে। পরে সুযোগ পেয়ে পথচারী, বাস, ট্রাক চালকদের উপর হামলা চালায়। ফলে এখানে প্রায় সময় ডাকাতি, ছিনতাই ও খুনের ঘটনা ঘটে। তাই ডাকাতিরোধে মহাসড়কের দুই পাশের জঙ্গল স্বেচ্ছায় পরিষ্কার অভিযানের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সিন্দিয়াঘাট পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক আলমগীর হোসেন জানান, কানুরিয়া পল্লীমঙ্গল ক্লাব যে উদ্যোগ নিয়েছে, তা প্রসংশনীয়। পুলিশ তাদের সঙ্গে থেকে অভিযান সফলের চেষ্টা করছে।

 বিশেষ খবর থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ