রবিবার , ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি:
 চুয়াডাঙ্গার জীবননগরের কর্চাডাঙ্গা গ্যাংপাড়া গামী  লতিফের ইটভাটার উত্তর পাশে তিন রাস্তার মোড়ে  গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আন্তজেলা ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য জাহিদুল ইসলাম (২৭) কে গতরাত ৮টার দিকে  আটক করে চুয়াডাঙ্গা ডিবি পুলিশের চৌকস দল।
তথ্যসুত্রে জানা যায়,আটককৃত জাহিদুল জীবননগর উপজেলার আন্দুলবাড়ীয়া কর্চাডাঙ্গার লাইন পড়ার মৃত মকবুল হোসেনের ছেলে। সে এলাকার অস্ত্রধারী চিহ্নিত একজন সক্রিয় ডাকাত সদস্য। এছাড়া সে বিভিন্ন সন্ত্রাসীমুলক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত রয়েছে। এবং সে উদ্ধার কৃত অস্ত্র দ্বারা চাদাবাজি ,ছিনতাই ,ডাকাতি ,চুরি ও বিভিন্ন সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে বলে জানা যায়। 
ঘটনার বিবরনে, জেলা গোয়েন্দা পুলিশের দায়িত্বরত এস আই আশরাফুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, পুলিশের মাদক বিরোধী বিশেষ অভি্যান ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারে জন্য জীবননগর এলাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে টহল দিতে থাকি। 
এমতাবস্থায় টহলদল যখন জীবননগর কর্চাডাঙ্গার গ্যাংপাড়ার লতিফ ইট ভাটার উত্তর পার্শ্ব হইতে তিন রাস্তার মোড় হয়ে পাকা গ্রামের দিকে যাচ্ছিলো তখন জাহিদুল পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। সে সময় আমার সাথে থাকা এস আই আবুবকর সিদ্দিক,  এ এস আই শহিদুল ইসলাম, এ এস আই ছানোয়ার হোসেন কনস্টেবল আদম আলী ও মানিক হাসান  তাকে আটক করতে সমর্থ হন।
এসময় তার শরীর তল্লাশী চালিয়ে লুঙ্গীতে অত্যাধুনিক পদ্ধতিতে কাঠের বাট যুক্ত লোহার তৈরী একটি কাটা বন্দুক  গুজে রাখা অবস্থায় আটক করি।
বন্দুকটি আনুমানিক ২৪ ইঞ্চি হতে পারে এবং ব্যবহারের সুবিধার্থে মাঝখান থেকে দুই ভাগে বিভক্ত করা যায়। তাকে আটকের পর জীবননগর থানায় অবৈধ আগ্নেয় অস্ত্র রাখা ও ব্যাবহারের কারনে  একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

 আইন-শৃংখলা থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ