শনিবার , ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

যেসব কারণে সড়কে চালকের মনোযোগ নষ্ট হয়

  শনিবার , ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

অনলাইন প্রতিবেদক

দেশে প্রায় প্রতিদিনই দুর্ঘটনায় মানুষ প্রাণ হারাচ্ছে। এছাড়া আহত হয়েও অনেকে পঙ্গুত্ব বরণ করছেন। বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় বা বুয়েটের দুর্ঘটনা গবেষণা প্রতিষ্ঠান এআরআই-এর হিসেবে ২০১৭ সাল পর্যন্ত গত দশ বছরে বাংলাদেশে ২৯ হাজার ৪৩২টি দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছে প্রায় ২৬ হাজার ৬৮৬ জন। এসব দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন ২১ হাজার ৫৪৮ জন। কিন্তু প্রশ্ন হচ্ছে কেন এতো দুর্ঘটনা ঘটছে। কেউ কেউ যানবাহন চালকদের দোষারোপ করলেও অনেকে বলছেন সাধারণ জনগণকেও এর দায় নিতে হবে। রাজধানী ঢাকায় যেসব সড়ক দুর্ঘটনা ঘটছে তার অধিকাংশই চালকদের অসচেতনতায় ঘটছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক ঠিক কোন কোন কারণে গাড়ি চালানোর সময় একজন চালকের মনোযোগ নষ্ট হতে পারে-

১। গাড়ি চালানোর সময় মোবাইল ফোন ব্যবহার করা।

২। চলন্ত অবস্থায় ড্রাইভার ভাড়া তুললে বা ভাংতি টাকা দেওয়ার চেষ্টা করা। 

৩। জানালা দিয়ে আশেপাশে নজর দেয়া বা সড়কে অন্য কোন রোড এক্সিডেন্ট বা ঘটনার দিকে নজর দেওয়া।

৪। দিবাস্বপ্ন বা ভিন্ন চিন্তায় মন চলে যাওয়া।

৫। গান শোনার জন্য রেডিওর চ্যানেল বা ভলিউম বাটন পরিবর্তন করার চেষ্টা করা।

৬। হঠাৎ ঘুম চলে আসা কিংবা চালানো অবস্থায় ঘুমিয়ে পড়া।

৭। গাড়ির ভেতরের পোকামাকড়ের (মশা, চেলাপোকা, তেলাপোকা ইত্যাদি) অবস্থান এবং তাদের দেখে আতংকিত হওয়া।

৮। গাড়িতে চালকের পাশের সিটে কেউ বসলে তার দিকে তাকিয়ে অতিরিক্ত কথা বলা। 

৯। নতুন/অচেনা গাড়ি চালানো।

১০। গাড়ির ভেতর ধূমপান করা (চলন্ত অবস্থায় লাইটার বা ম্যাচ জ্বালানো কিংবা সিগারেটের ধূয়া বা ছাই চোখে যাওয়া)

১১। পানীয় বা খাবার গ্রহণ করা।

১২। বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালানোর চিন্তা।

১৩। 'বেশি যাত্রী বেশি ভাড়া'- এই চিন্তায় অন্য বাসের সাথে প্রতিযোগিতার চিন্তা।

১৪। টেনশন দূর করতে নেশা করা এবং তারপর গাড়ি চালানো।

এছাড়া গণপরিবহনে কন্ডাকটারের সাথে যাত্রীদের ভাড়া নিয়ে বাকবিতণ্ডা চালকের মনোযোগ নষ্ট করতে পারে। 


 নগর-মহানগর থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ