মঙ্গলবার , ২৩ July ২০১৯ |

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
সংবাদ সম্মেলনে নিজেদের আসল দাবি করে ২০১৯ সালের ৩০-৩১ আগস্ট ও ১ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কে আরো একাটি ফোবানা সম্মেলনের ঘোষণা দিয়েছে ফেডারেশন অব বাংলাদেশি অ্যাসোসিয়েশনস ইন নর্থ আমেরিকা নামে একটি সংগঠন। এবারের ফোবানা সম্মেলন আয়োজনের দায়িত্ব পেয়েছে নিউইয়র্কের সাংস্কৃতিক সংগঠন ড্রামা সার্কল। স্থানীয় সময় শনিবার দুপুরে নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের পালকি পার্টি সেন্টারে জনাকীর্ণ সংবাদ সম্মেলনে ফোবানার ৩৩তম সম্মেলনের ঘোষণা দেওয়া হয়। এই সংবাদ সম্মেলনের মাত্র ৪৮ ঘণ্টা আগে জ্যাকসন হাইটসে আরেকটি সংবাদ সম্মেলন করেছিল বাংলাদেশি আমেরিকান ফ্রেন্ডশিপ সোসাইটি নামে একটি সংগঠন, যারা একই সময়ে নিউইয়র্কে ফোবানার ৩৩তম সম্মেলনের ঘোষণা দিয়েছে। এর ফলে ফোবানার দ্বিধাবিভক্তি আবারো প্রকাশ্য রূপ নিলো। তবে ড্রামা সার্কলের মত স্বনামধন্য একটি সাংস্কৃতিক সংগঠন কেন দ্বিধাবিভক্ত ফোবানা আয়োজনের সঙ্গে যুক্ত হলো তা নিয়ে সর্বত্র আলোচনা শুরু হয়েছে।
শনিবারের সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে জানতে চাইলে ড্রামা সার্কলের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা এবং ফোবানার একাংশের আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক নার্গিস আহমেদ বলেছেন, তারা দায়িত্ব পাবার আগ মুহূর্ত পর্যন্ত ফোবানা ঐক্যবদ্ধ ছিল। কিন্তু পরে সেটা বিভক্ত হয়েছে। এই দ্বিধাবিভক্ত আগে জানলে তিনি এর সঙ্গে জড়িত হতেন না। এর আগে এই সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ফোবানা একাংশের নির্বাহী সচিব জাকারিয়া চৌধুরী বলেন, গত ৩২ বছরে ৩২টি ফোবানা সম্মেলন হয়েছে বিভিন্ন সিটিতে। সেগুলোর আলোকে ৩৩তম সম্মেলন সফল করতে ২৫টি স্টান্ডিং কমিটি মাঠে রয়েছে। তবে সবকিছু নির্ভর করছে গণমাধ্যমের সহায়তার ওপর।
তিনি বলেন, ‘ফোবানা হচ্ছে উত্তর আমেরিকায় সব সংগঠনের আমব্রেলা সংগঠন। ফোবানা হচ্ছে মার্কিন আইন অনুযায়ী ৫০১ সি (৩) এর আওতায় একটি অলাভজনক করপোরেশন। এছাড়া, ইউএস পেটেন্ট অ্যান্ড ট্রেডমার্ক অফিস কর্তৃক রেজিস্টার্ড একটি সংগঠন। তাই আইনগতভাবে এ কমিটি ব্যতিত অন্য কেউ ফোবানা এবং তার লোগো ব্যবহার করতে পারবেন না।’
সংবাদ সম্মেলনে আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক নার্গিস আহমেদ ও সদস্য সচিব আবির আলমগীর জানান, আগামী বছর নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ডের নাসাউ কলোসিয়ামে ফোবানা সম্মেলন হবে। বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যের ৮০টিরও বেশি সংগঠনের সদস্য ও কর্মকর্তারা এতে অংশ নেবেন।
সংবাদ সম্মেলনে স্বাগত বক্তব্য দেন ফোবানার নির্বাহী চেয়ারম্যান মীর এইচ চৌধুরী। আরও উপস্থিত ছিলেন ফোবানার কর্মকর্তা শাহ হালিম, মাহাবুব রেজা রহিম আতিকুর রহমান, নাহিদ চৌধুরী মামুন ও বেদারুল ইসলাম বাবলা, জসীম উদ্দিন, রবিউল করিম বেলাল, গোলাম ফারুক ভূইয়া, শহিদুল মল্লিক বাঁধন, নাহিদা আলী ও কবির কিরণ, আয়োজক কমিটির প্রেসিডেন্ট ড. দেলওয়ার হোসেন এবং চিফ কো-অর্ডিনেটর জহির মাহমুদ।
উল্লেখ্য, স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার জ্যাকসন হাইটসের বেলোজিনা পার্টি হলে সংবাদ সম্মেলন করে আগামী বছরের ৩০-৩১ আগস্ট এবং ১ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কের লাগোর্ডিয়া ম্যারিয়ট হোটেলে ফোবানা সম্মেলনের ঘোষণা দেয়। এই সংবাদ সম্মেলনেও দাবি করা হয় তারাই আসল ফোবানা।

 সারাবিশ্ব থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ