রবিবার , ২৬ মে ২০১৯ |

নিজস্ব প্রতিবেদক, 
দেশের ব্যাংকিং খাতের নাজুক পরিস্থিতির ব্যাপকতা বোঝাতে গিয়ে অর্থনীতিবিদ ওয়াহিদ উদ্দিন মাহমুদ বলেছেন, গত কয়েক বছরে এ খাতের নিয়মনীতি স্থূলভাবে লঙ্ঘিত হয়েছে। তিনি বলেছেন, গত কয়েক বছরে ব্যাংকিং খাতে উন্নয়নের বদলে অবনতি হয়েছে। গুলশানের একটি হোটেলে শনিবার বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ (সিপিডি) আয়োজিত ‘বাংলাদেশের ব্যাংকিং খাতে কী করণীয়’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। সভায় বক্তাদের কাছ থেকে নতুন সরকার গঠনের পর দেশের ব্যাংকিং খাত ঢেলে সাজানোর জন্য একটি কমিশন গঠনের প্রস্তাব এসেছে।
সভার প্রধান অতিথি ওয়াহিদ উদ্দিন মাহমুদ ব্যাংকিং খাতের নিয়ম লঙ্ঘনের চিত্র তুলে ধরে বলেন, “দেশের ভিতরে আমি এই প্রথম দেখেছি সাধারণ মানুষ, ব্যাংকের আমানতকারীরা প্রশ্ন করতে শুরু করেছে যে কোন ব্যাংকে রাখলে তার আমানত নিরাপদ থাকবে। এর আগে কখনোই আমি এই প্রশ্নের সম্মূখীন হইনি।” রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের সমস্যার বিষয়ে এই অর্থনীতিবিদ বলেন, “রাষ্ট্রায়ত্ত লোকসানি প্রতিষ্ঠানগুলোর লোকসান বহন করতে হয় এই ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে এবং কিছু রাজনৈতিক প্রভাবশালী এই ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে অনৈতিকভাবে নিয়মবহির্ভূতভাবে যে ঋণ নেন সে ঋণ পরিশোধ না করে পার পেয়ে যান।”
তবে সব রাজনৈতিক প্রভাবশালীই ঋণ খেলাপী হন না বলে মন্তব্য তার। অন্যদিকে কোনো ধরনের নিয়ন্ত্রণ কাঠামো ঠিক না করেই বেসরকারি ব্যাংকের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল বলে মত দেন তিনি।

 সারা বাংলা থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ