বুধবার , ২৩ জানুয়ারী ২০১৯ |

দুলাল বিশ্বাস, গোপালগঞ্জ
: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ার জনসভায় যোগ দেন আওয়ামীলীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তার নিজের নির্বাচনী আসনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনী প্রথম জনসভা করছেন তিনি। এর মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে এবারের নির্বাচনি প্রচারে নামলেন তিনি।
কোটালীপাড়া উপজেলার শেখ লুৎফর রহমান আদর্শ ডিগ্রি কলেজ মাঠে আয়োজিত জনসভায় গতকাল বুধবার বিকেল চারটায় বোন শেখ রেহেনাকে সঙ্গে নিয়ে সভামঞ্চে ওঠেন শেখ হাসিনা।
জনসভার উদ্যেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০১৪ সালে মানুষ ভোট দিয়ে আওয়ামীলীগকে জয়ী করেছিল বলেই বাংলাদেশ এখন সারা বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। সারাদেশের মানুষের কাছে আহব্বান নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে আগুন-সন্ত্রাসীদের ক্ষমতায় আসার পথ বন্ধ করুন। দেশের মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করা আমার একমাত্র লক্ষ্য। আবারো জনগনের সেবা করতে নৌকায় ভোট দিন।
এদিকে নির্বাচনী জনসভা শুরু হওয়ার আগে সমবেশস্থল কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে যায় সব শ্রেনীর মানুষের। সকাল থেকে দূর-দূরান্তের মানুষ সমাবেশ স্থলে আসতে থাকে। অনেকে ঢাকঢোল বাদ্যযন্ত্র বাজিয়ে দীর্ঘপথ হেঁটে সমাবেশ স্থলে পৌঁছান। নৌকা-নৌকা স্লোগানে চারিদিকে প্রকম্পিত করে তুলেছেন তারা।
এর আগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
বুধবার সকাল ৮টা ২৫ মিনিটে সড়কপথে গণভবন থেকে গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়ার উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেন প্রধানমন্ত্রী। তবে এই প্রচারকাজে তিনি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে কোনো রকম সরকারি সুবিধা নেবেন না বলে দলীয় সূত্রে জানানো হয়েছে।
টুঙ্গিপাড়ায় নিজ বাড়িতে রাতযাপন করে শেখ হাসিনা আগামীকাল সকাল ১০টায় সড়কপথে ঢাকার উদ্দেশে রওনা হবেন। ফেরার পথে তিনি ফরিদপুরের ভাঙ্গা মোড়, রাজবাড়ী রাস্তার মোড়, পাটুরিয়া ঘাট, মানিকগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড, ধামরাই রাবেয়া মেডিকেল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতাল প্রাঙ্গণ এবং সাভার বাসস্ট্যান্ডে নির্বাচনী প্রচার কর্মসূচিতে অংশ নেবেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুভাষ জয়ধরের সভাপতিত্বে স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ বক্তব্য দেন। কেন্দ্রীয় নেতাদের মধ্যে সভাপতি মন্ডলীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম, কর্নেল (অব.) ফারুক খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আফম বাহাউদ্দিন নাছিম, বিএম মোজাম্মেল হক, শ্রম সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, ধর্ম সম্পাদক শেখ আব্দুল্লাহ, ত্রাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, ডা. রোকেয়া সুলতানা, আব্দুস সবুর, এস এম কামাল, এবিএম রিয়াজুল কবির কায়সার, মারুফা আক্তার পপি, যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী, স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি মোল্লা আবু কাওসার, ছাত্রলীগের সভাপতি রেজানুল হক চৌধুরী শোভন, সাধারণ সম্পাদক গোলাম রব্বানী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
কোটালিপাড়ার জনসভা শেষে টুঙ্গিপাড়ায় নিজ বাড়িতে রাত কাটিয়ে আগামীকাল বৃহস্পতিবার সড়কপথে ঢাকায় ফিরবেন তিনি। বৃহস্পতিবার (১৩ ডিসেম্বর) সড়ক পথে ঢাকা ফেরার পথে ফরিদপুরের ভাঙ্গা মোড়, ফরিদপুর মোড়, রাজবাড়ী মোড়, পাটুরিয়া ফেরিঘাট, মানিকগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড, ধামরাই রাবেয়া মেডিক্যাল কলেজ অ্যান্ড হাসপাতাল মাঠে ও সাভার বাসস্ট্যান্ডে নির্বাচনি প্রচার কর্মসূচিতে অংশ নেবেন বলেও জানা যায়।

 জাতীয় থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ