বুধবার , ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ |

অনলাইন ডেস্ক :
রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সদস্য দেশের স্বার্থ সমুন্নত রাখতে সর্বোচ্চ নিষ্ঠা, আন্তরিকতা ও পেশাদারিত্বের মনোভাব নিয়ে দায়িত্ব পালন করতে বিজিবি সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২০ ডিসেম্বর) বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ দিবস-২০১৮ উপলক্ষ্যে বুধবার এক বাণীতে এ আহ্বান জানান। রাষ্ট্রপতি এ বাহিনীর সব সদস্যকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।
তিনি বলেন, সীমান্তের অতন্দ্র প্রহরী’ বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ দু’শ ২৩ বছরের একটি ঐতিহ্যবাহী আধা-সামরিক বাহিনী। মহান মুক্তিযুদ্ধে এ বাহিনীর অবিস্মরণীয় অবদান জাতি চিরদিন শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে। মুক্তিযুদ্ধে বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ শেখ এবং বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফসহ এ বাহিনীর ৮১৭ জন অকুতোভয় সদস্য আত্মোৎসর্গ করে দেশপ্রেমের অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। রাষ্ট্রপতি হামিদ বলেন, মুক্তিযুদ্ধে গৌরবময় অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ এ বাহিনীকে ২০০৮ সালে স্বাধীনতা পদকে ভূষিত করা হয়। মুক্তিযুদ্ধসহ দেশমাতৃকার প্রয়োজনে বিভিন্ন সময়ে বিজিবির যে সব সদস্য আত্মত্যাগ করেছেন তিনি তাঁদের গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন। তিনি তাঁদের আত্মার মাগফেরাত ও শান্তি কামনা করেন।
আবদুল হামিদ বলেন, সীমান্ত এলাকায় চোরাচালান, মাদক, নারী ও শিশু পাচার প্রতিরোধসহ সন্ত্রাস দমন, শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষা ও দুর্যোগকালীন উদ্ধার কর্মকাণ্ডে ‘বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ’ এর ভূমিকা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। বিজিবিকে একটি আধুনিক সীমান্ত রক্ষীবাহিনী হিসেবে গড়ে তুলতে সরকার প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। ‘বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ আইন-২০১০’ পাশের মাধ্যমে এ বাহিনীর সার্বিক কর্মকাণ্ডে গতি সঞ্চারিত হয়েছে। এছাড়া সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ বিজিবি’র অব্যাহত অগ্রগতি ও সমৃদ্ধিতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে। রাষ্ট্রপতি বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ-এর অব্যাহত সাফল্য কামনা করেন। বাসস।

 জাতীয় থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ