সোমবার , ২৬ আগষ্ট ২০১৯ |

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় সাঁওতাল পল্লীতে অগ্নিসংযোগ ও হত্যা মামলার অভিযোগপত্র দিয়েছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। রবিবার সকালে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিট্রেট আদালতে এই অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাকিল আহম্মেদ বুলবুল, ইউপি সদস্য শাহ আলম, রংপুর চিনিকলের মহাব্যবস্থাপক (অর্থ) নাজমুল হুদা, চিনিকল শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান দুলাল, মোশারফ আইয়ুব আলী সহ ৯০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্রটি দাখিল করেন পিবিআই গাইবান্ধার এএসপি আব্দুল হাই সরকার।

পিবিআই জানায়, ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর গোবিন্দগঞ্জ বাগদা ফার্ম এলাকায় আদিবাসী পল্লী উচ্ছেদ করতে যায় রংপুর চিনিকল কর্তৃপক্ষ। এসময় দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এক পর্যায়ে চিনিকলের মহাব্যবস্থাপক (অর্থ) নাজমুল হুদা ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শাকিল আকন্দ বুলবুলের নেতৃত্বে লোকজন ও পুলিশ সাঁওতালদের ঘরবাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে এবং গুলি চালিয়ে হটিয়ে দেয়। এসময় চারজন আদিবাসী গুলিবিদ্ধ হন। তাদের মধ্যে তিনজনের মৃত্যু হয়। এছাড়া আদিবাসীদের ছোড়া তীরে ৯ পুলিশ সদস্যও আহত হয়।

এ ব্যাপারে ২০১৬ সালের ২১ নভেম্বর আদিবাসী স্বপন মুর্মু ও থমাস হেমব্রম বাদী হয়ে গোবিন্দগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে আদালতের নির্দেশে মামলার তদন্তভার দেয়া হয় পিবিআই গাইবান্ধার ওপর। দীর্ঘ দুই বছরের বেশি সময় তদন্তের পর রবিবার ৯০ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করে পিবিআই।



 আইন-আদালত থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ