মঙ্গলবার , ১৫ অক্টোবর ২০১৯ |

ফতুল্লায় ‘জঙ্গি আস্তানা’ ঘিরে রেখেছে পুলিশ ও ডিবি, আটক ৩

অনলাইন ডেস্ক   সোমবার , ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে একটি বাড়ি ঘিরে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট ও সোয়াট। সদর উপজেলার ফতুল্লা শিয়াচর এলাকায় তক্কার মাঠ সংলগ্ন এক তলা একটি বাড়ি ঘিরে রোববার মধ্যরাতে এই অভিযান শুরু হয় বলে জেলা পুলিশের কর্মকর্তারা জানান।

কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের সহকারী কমিশনার মো. তৌহিদুল ইসলাম  বলেন, আমাদের বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দলের সদস্যেরা কাজ করছেন। প্রাথমিকভাবে আমরা যেটুকু তথ্য পেয়েছি, ওই বাড়ির ভেতরটা ল্যাবরেটরির মত সাজানো। ভেতরে ইমপ্রোভাইসড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইসও (আইইডি) রযেছে।”

ওই বাড়ির মালিক জয়নাল আবেদীন বাংলাদেশ ব্যাংকের অবসরপ্রাপ্ত একজন ডিজিএম। তার দুই ছেলে ও এক পুত্রবধূকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট।   এই তিনজন হলেন-ঢাকার আহসানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মেকানিক্যাল এবং প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের শিক্ষক ফরিদউদ্দিন রুমি, ফরিদের স্ত্রী অগ্রণী ব্যাংকের কর্মী জান্নাতুল ফোয়ারা অনু এবং ফরিদের ভাই খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুয়েট) শিক্ষক জামালউদ্দিন রফিক।

কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের সদস্যরা আগে থেকেই এই পরিবারের সদস্যদের ওপর নজর রাখছিলেন। রোববার রাতে তারা বাড়িটি ঘিরে ফেলেন এবং সকালে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল ও সোয়াট সদস্যরা আসার পর অভিযান শুরু হয়। প্রথমে রোবট বাহন পাঠিয়ে দূর নিয়ন্ত্রত ক্যামেরার মাধ্যমে ভেতরের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হয়।

তবে ওই বাড়ি দিক থেকে বিস্ফোরণ বা গোলাগুলির কোনো শব্দ পাওয়া যায়নি। বাড়ির ২০০ গজ দূর থেকে পুরো এলাকা ঘিরে রেখেছেন পুলিশ সদস্যরা। তবে সড়ক ও আশপাশের বহুতল বাড়ির ছাদে ভিড় করছে উৎসুক জনতা। জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মনিরুল ইসলাম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “অভিযান চলছে। আমরা কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটকে সহযোগিতা করছি। অভিযান শেষে বিস্তারিত বলা যাবে।” - বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

 রাজধানী থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ