মঙ্গলবার , ১২ নভেম্বর ২০১৯ |

আসলে চুনোপুঁটি ধরা হচ্ছে: মান্না

অনলাইন ডেস্ক   সোমবার , ০৭ অক্টোবর ২০১৯

মূল দুর্নীতিবাজদের বাদ দিয়ে চুনোপুঁটি ধরা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না। বলেন, মূল দুর্নীতিবাজদের বাদ দিয়ে যাদের ধরা হচ্ছে, তারা আসলে চুনোপুঁটি। জাতীয় স্বার্থ বিকিয়ে দিয়ে ভারতের সঙ্গে চুক্তি করে যে অপরাধ সরকার করেছে, সম্রাটকে গ্রেপ্তারের মধ্যে দিয়ে তা ঢাকা যাবে না। এক ঘটন দিয়ে আরেক ঘটনাকে ধামাচাপা দেওয়ার এই অস্ত্র বারংবার ব্যবহারে ভোঁতা হয়ে গেছে।’

সোমবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদুর রহমান মান্না এসব কথা বলেন। বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে নাগরিক ঐক্যের সমন্বয়ক শহীদুল্লাহ কায়সার, সদস্য মমিনুল ইসলাম, মোফাখখারুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। ভারতের সঙ্গে চুক্তি নিয়ে মান্না বলেন, ‘জাতীয় স্বার্থ এত বড় মাপে বিকিয়ে দিয়ে আর কখনো এ রকম চুক্তি হয়নি। জনগণকে সংঘবদ্ধ করে প্রতিবাদ হওয়া উচিত। আমরা এ জন্য প্রতিবাদ কর্মসূচি দিতে ঐক্যফ্রন্টকে প্রস্তাব দেবো।’

চলমান অভিযানের বিষয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের এই শরিক নেতা বলেন, ‘চুনোপুঁটিদের সরদারদের ধরতেও সরকার অবিশ্বাস্য গড়িমসি দেখিয়েছে। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটকে গ্রেপ্তারের জন্য সর্বোচ্চ পর্যায়ের সংকেতের অপেক্ষা করতে হয়েছে, এমন প্রতিবেদন দেখা গেছে।’

‘দেশের আইন এবং বিচার ব্যবস্থা কতটুকু দেউলিয়া হলে, কতটুকু সরকারি দলের আজ্ঞাবহ হলে সম্রাটকে ধরার জন্য সবুজ সংকেতের অপেক্ষা করতে হয়, সেটা বোঝাই যায়। অবশেষে সম্রাট গ্রেপ্তার হয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই গ্রেপ্তার এখন মজা করার বিষয়ে পরিণত হয়েছে।’

এক সময় আওয়ামী লীগের নেতা মান্না আরও বলেন, ‘সরকার সত্যিকার অর্থে দুর্নীতিবিরোধী শুদ্ধি অভিযানের কথা যদি ভাবত, তাহলে সেটা হতো একটা চলমান প্রক্রিয়া।’ ক্ষমতায় আসার পর থেকে ধাপে ধাপে এ অভিযান চললে বাংলাদেশ আজকের এ পর্যায়ে এসে পৌঁছাত না। দুর্নীতি রোধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি, বরং রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পর্যায়ে থাকা মানুষগুলোর সরাসরি পৃষ্ঠপোষকতায় দ্রুতগতিতে দুর্নীতি বেড়েছে।’

 রাজনীতি থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ