মঙ্গলবার , ১৫ অক্টোবর ২০১৯ |

‘টপ ফুটবলারদের মানসিকতা নিয়ে খেলতে হবে বাংলাদেশকে’

দেশকাল স্পোর্টস ডেস্ক:   বুধবার , ০৯ অক্টোবর ২০১৯

র‌্যাঙ্কিং ও যোগ্যতায় যোজন যোজন এগিয়ে থাকা কাতারকে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে রুখে দিতে চায় বাংলাদেশ। রাত পোহালেই ম্যাচ। ঘরের মাঠে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে আতিথ্য দেবে লাল-সবুজরা। এশিয়ান গেমসে জয়ের অনুপ্রেরণার সঙ্গে ১৫ দিনের প্রস্তুতি কাতারকে রুখে দিবে এমনটাই প্রত্যাশা কোচ জেমি ডের।

বাস্তবতা মেনে লড়াই করার মানসিকতা নিয়েই মাঠে নামতে চায় কোচ জেমি, ‘টপ প্লেয়ারদের অ্যাপ্রোচ চায় জেমি ডে, কাতার দলের খেলোয়াড়রা উচ্চমানের। আমাদের প্লেয়াররাও দেশের প্রেক্ষাপটে টপ প্লেয়ার। সেই অ্যাটিচিউড নিয়ে খেলতে হবে আমাদের।’

এমন মানসিকতা থেকেই এশিয়ার চ্যাম্পিয়নদের রুখে দিয়েছে ভারত। দোহায় কাতারের মাটিতে স্বাগতিকদের সঙ্গে পয়েন্ট নিয়ে ঘরে ফিরেছে সুনীল ছেত্রীরা। মানসিকতার সঙ্গে এশিয়ান গেমসের কাতার বধের অভিজ্ঞতা অনুপ্রেরণা যোগাবে এমনটাই আশা কোচের, ‘অনুপ্রেরণা যোগাবে অবশ্যই। তবে অনূর্ধ্ব-২৩ আর জাতীয় দল এক নয়। দুইটার লেভেল দুই রকমের। টপ লেভেলের প্লেয়াররা জাতীয় দলে খেলছে। এশিয়ান গেমসের জয়টা অবশ্যই আমাদের মানসিকতা বদলাতে সাহায্য করবে যে আমরা কাতারকে হারাতে পারি।’

অনুমেয়ভাবে কাতার আক্রমাণত্মক ভঙ্গিতে খেলবে। সেটা সামলানোর জন্য রক্ষণভাগকে বিশেষ প্রস্তুতি দিয়ে তৈরি করেছে জেমি। ইয়াসিন-রাফিদের নিয়ে সেটারই প্রস্তুতি চলেছে। সঙ্গে কাউন্টার অ্যাটাকে গোল আদায় করার পরিকল্পনা নিয়েই মাঠে নামতে চায় জামাল ভূঁইয়ারা। দলে রায়হান হাসানের থ্রো সেক্ষেত্রে ট্রাম্প কার্ড হিসেবে ব্যবহৃত হতে পারে। জেমির কথায়, ‘প্রত্যেক দলের লম্বা থ্রো করার খেলোয়াড় আছে। বিশেষ করে এটা দিয়ে আক্রমণ করার সুযোগ থাকে। অবশ্যই এটা একটা অস্ত্র। এটা দিয়ে আমাদের আক্রমণ করার সুযোগ আছে। আমরা তাদের বক্সে সুযোগ কাজে লাগাতে পারি।’

কোচিং ক্যারিয়ারে জেমির সবচেয়ে বড় ম্যাচ হতে চলেছে কাতার। এর আগে ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে ৬০ এর ঘরে থাকা কোনও দলের সঙ্গে খেলা হয়নি জেমির, ‘অবশ্যই। কাতার এশিয়ান কাপ চ্যাম্পিয়ন। বিশ্বকাপের আয়োজক দেশও তারা। এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন দলটার সঙ্গে খেলা অবশ্যই একটা বড় অভিজ্ঞতা। আমি এটার জন্য মুখিয়ে আছি। টপ ক্লাস দলের টপ ক্লাসের কোচের বিপক্ষে ম্যাচের অভিজ্ঞতাটা নতুন কিছু যোগাবে অবশ্যই।

 খেলাধুলা থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ