বুধবার , ১৩ নভেম্বর ২০১৯ |

জীবপ্রযুক্তি খাতে তাত্ত্বিক জ্ঞানের পাশাপাশি উদ্ভাবনের দিকে মনযোগী হতে বিজ্ঞানীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান। শুক্রবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু নভোথিয়েটারে জাতীয় জীবপ্রযুক্তি মেলার উদ্বোধন করতে এসে তিনি এই আহ্বান জানান।

ইয়াফেস ওসমান বলেন, “আজকে জীবপ্রযুক্তি খাতে আধুনিক যন্ত্রপাতি এসে নানা কিছু বদলে দিয়েছে। যারা এই খাতে জড়িত বা ভবিষ্যৎ প্রজন্মের মধ্যে যারা এতে যুক্ত হব্নে, তাদের কাছে আমার সনির্বন্ধ অনুরোধ, আসুন কিছু করে দেখাই। থিওরি নয়, প্র্যাকটিকালি কিছু করে দেখাতে হবে।”

জীবপ্রযুক্তি খাতের বিকাশে আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে নেওয়া নানা উদ্যোগ ও প্রকল্পের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, “আগে যারা সরকার চালিয়েছেন, তারা এ বিষয়ে ভাবতে পারেননি।” প্রযুক্তিতে তরুণদের উদ্ভাবন আন্তর্জাতিক পর্যায়ে স্বীকৃতি পাওয়ায় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী তাদের আরও উৎসাহ দিতে চান। পাশাপাশি তরুণদের বিকাশ নিয়ে ‘ভ্রান্ত ধারণা’ পরিহার করতে অভিভাবকদের প্রতি তিনি অনুরোধ জানান।

“আমরা সব সময় বলছি যে এখন আর আগের মতো লেখাপড়া হয় না। এ কথাটি একেবারে ভ্রান্ত। তার প্রমাণ আজকের ডিজিটাল বাংলাদেশ। তারা বাংলাদেশে জন্মালেও তারা পৃথিবীর সম্পদ। এ কথা যেন আমরা ভুলে না যাই। আমাদের চিন্তার পরিবর্তন ঘটাতে হবে। তাদের উৎসাহ দিতে হবে।”

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব বায়োটেকনোলজির মো. সলিমুল্লাহ অনুষ্ঠানে বলেন, দেশে বিদ্যমান উদ্ভিদ, প্রাণী, মৎস্য, অণুজীব- ইত্যাদির জেনেটিক রিসোর্সগুলো সংরক্ষণের জন্য সরকার ইতোমধ্যে ন্যাশনাল জিন ব্যাংক তৈরির প্রকল্প অনুমোদন করেছে।

“ন্যাশনাল জিন ব্যাংক তৈরি হলে জেনেটিক রিসোর্সগুলো কেন্দ্রীয়ভাবে সংরক্ষণ, এদের বৈশিষ্ট্য নির্ণয় ও সমৃদ্ধ ডাটাবেইস প্রণয়ন সম্ভব হবে।” অন্যদের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব নজিবুর রহমান এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সচিব আনোয়ার হোসেন অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন।

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব বায়োটেকনোলজির (এনআইবি) উদ্যোগে আয়োজিত এ মেলার ৬৭টি স্টলে এবার দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নিজেদের উদ্ভাবনগুলো তুলে ধরেছেন। জীবপ্রযুক্তি বিষয়ক শিক্ষা, গবেষণা ও ব্যবসা সম্প্রসারণের পাশাপাশি সচেতনতা গড়ে তুলতে আয়োজিত এ মেলা শনিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত চলবে।

সূত্র: বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম

 তথ্য প্রযুক্তি থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ