বুধবার , ১৩ নভেম্বর ২০১৯ |

গর্ভাধারণ কালে যেসব খাবার এড়ানো ভালো

ফিচার ডেস্ক   শুক্রবার , ১৮ অক্টোবর ২০১৯

ছবি: রয়টার্স।

নারীদের জীবনে একটা গুরুত্বপূর্ণ ও জটিল সময় গর্ভধারণ। তাই এই সময় খাদ্যাভ্যাস ও জীবনযাপনের প্রতি গুরুত্ব দিতে হবে। বিশেষজ্ঞদের মতামত নিয়ে স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে জানানো হল বিস্তারিত।

ভারতের ইন্টারন্যাশনাল ফার্টিলিটি সেন্টারের জ্যেষ্ঠ স্ত্রীরোগ ও এইভিএফ বিশেষজ্ঞ ডা.রিতা বক্সি বলেন, “গর্ভধারণ কালে অবশ্যই পুষ্টিকর খাবার যাতে রয়েছে ভিটামিন, খনিজ, লৌহ এবং অন্যান্য পুষ্টি উপাদান যা শিশুর বৃদ্ধিতে সহায়তা করে এমন খাবার খাওয়া উচিত। এছাড়াও সুস্থ শিশু জন্ম দিতে, শিশুর কম ওজন এড়াতে ও বুদ্ধির সঠিক বৃদ্ধি এবং হৃদরোগ-জাতীয় সমস্যা এড়াতে মায়ের পুষ্টিকর খাবার খাওয়া প্রয়োজন।”

যে কোনো ধরনের খাবার খাওয়ার ইচ্ছা হতেই পারে। তাই বলে আজেবাজে খাবার খাওয়া ঠিক নয়। শিশুর শরীরের জন্য উপযোগী ও স্বাস্থ্যকর এমন ধরনের খাবার খাওয়া উচিত। এড়াতে হবে ক্ষতিকর খাবার।

উচ্চ মার্কারি সমৃদ্ধ মাছ: সুস্থ গর্ভাবস্থায় জন্য ওমেগা-থ্রি সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া ভালো ও নিরাপদ। কিন্তু পারিপার্শিক অবস্থা ও দূষণ বৃদ্ধির কারণে এই সকল মাছ খাওয়ার জন্য অনুপোযোগী। সমুদ্র ও লেকের মাছে মার্কারি পাওয়া যায় যা মানব শরীরে ‘মিথাইল মার্কারি’তে রূপান্তরিত হয়। এটা একটা নিউরোটক্সিন যা শিশুর মস্তিষ্ক বৃদ্ধিতে ক্ষতি সাধন করে।

তাই গর্ভাবস্থায় নারীদের মার্কারি সমৃদ্ধ মাছ না খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়।     

কম চর্বি সমৃদ্ধ দুধ:
পুষ্টি ঘাটতি পূরণের জন্য পাস্তুরিত দুধ না খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। কারণ এতে প্রয়োজনীয় পুষ্টি থাকে না। এই ধরনের খাবার ‘অ্যান্ড্রোজেন্স’ সমৃদ্ধ, যা হরমোনের স্বাভাবিকতায় বাধা সৃষ্টি করে এবং ঋতুচক্রে অনিয়মিত করে। গর্ভবতী মায়েরা যেন, অপাস্তুরিত দুধ-জাতীয় খাবার না গ্রহণ করে সেদিকেও খেয়াল রাখা জরুরি।

স্মোকড সামুদ্রিক খাবার: সামুদ্রিক ‘স্মোকড’ খাবার খাওয়া হলে তাতে মানব শরীরে ব্যাক্টেরিয়া বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। একই সঙ্গে শিশুর হৃদযন্ত্রে নানান সমস্যা দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা থাকে। গর্ভপাতের মতো ঘটনাও ঘটতে পারে। এছাড়াও এতে উচ্চ মাত্রায় লবণ থাকে। ফলে রক্তচাপ বেড়ে যায় এবং শিশু ও মায়ের শরীরে প্রদাহ দেখা দেয়।

ক্যাফেইন: অনেক গবেষণায়ই দেখা গেছে, গর্ভধারণের ইচ্ছে থাকলে নারীদের ক্যাফেইন গ্রহণ করা উচিত নয়। সামান্য পরিমাণ ক্যাফেইন গ্রহণযোগ্য। তবে যারা ক্যাফেইনে আসক্ত তারা নির্দিষ্ট সময় পর পর কফি খেয়ে থাকেন। এতে শরীর অসুস্থ হয়ে পড়ে। যে সকল নারী গর্ভধারণের চেষ্টা করছেন তাদের জন্য ক্যাফেইন এড়িয়ে চলাই ভালো। কফি ও কোলাজাতীয় পানীয়তে প্রচুর পরিমাণে ক্যাফেইন থাকে। তাই সুস্থ শিশু জন্ম দিতে এসব খাবার এড়িয়ে চলুন।

 ফিচার থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ