বুধবার , ১৩ নভেম্বর ২০১৯ |

উপাচার্য অপসারণ আন্দোলন

জাবিতে আন্দোলনকারী ও ভিসিপন্থীদের সংঘর্ষ

অনলাইন ডেস্ক   মঙ্গলবার , ০৫ নভেম্বর ২০১৯

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) উপাচার্যের (ভিসি) পদত্যাগের দাবিতে মঙ্গলবার ক্যাম্পাসে আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থী এবং ‘ভিসি পন্থী শিক্ষক ও ছাত্রলীগ কর্মীদের’ সংঘর্ষে অসংখ্য আহত হয়েছেন।

দুর্নীতির বিভিন্ন অভিযোগে এনে উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলনে থাকা শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা সোমবার সন্ধ্যা থেকে ভিসির বাসভবনের সামনে অবস্থান নেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মঙ্গলবার বেলা ১২ টার দিকে ভিসি পন্থী শিক্ষক ও ছাত্রলীগ কর্মীরা ভিসির বাসভবনের সামনে অবস্থান নেয়া আন্দোলনকারীদের উঠিয়ে দিতে আসে। কিন্তু এরপরও স্থান ত্যাগ না করায় ভিসি পন্থী শিক্ষক ও ছাত্রলীগ কর্মীরা আন্দোলনকারীদের এলোপাতাড়ি মারধর শুরু করে।

এর আগে, ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ ব্যানারে সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে একটি মিছিল বের করে আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। মিছিলটি উপাচার্যের বাসভবনের সামনে গিয়ে অবস্থান নেয়। উপাচার্যের বাসভবনের সামনে বক্তব্য দেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট (মার্কসবাদী) জাবি শাখার সভাপতি মাহাথির মুহাম্মদ।

তিনি বলেন, ‘আমরা উপাচার্যকে অনেক সময় দিয়েছি। কিন্তু তিনি কোনো কর্ণপাত করেননি। উল্টো আন্দোলন দমাতে তিনি ৪০-৫০ জনকে অজ্ঞাত করে মিথ্যা মামলা দিয়েছেন। এর আগেও তিনি ৫৪ শিক্ষার্থীর নামে মামলা দিয়েছিলেন। এই মামলাবাজ উপাচার্যকে হঠাতেই আমরা আজকে এখানে বসতে বাধ্য হয়েছি।’

‘এই দুর্নীতিবাজ উপাচার্যকে জাবিতে আর দেখতে চায় না। কারণ তিনি নিজে মিথ্যা কথা বলেন, তার শিক্ষকরা মিথ্যা কথা বলেন এবং তার প্রশাসনও মিথ্যা কথা বলেন। তাই উপাচার্য পদে তার থাকার কোনো নৈতিক অধিকার নেই। এখন যদি তাকে বাসা থেকে বের হতে হয় তাহলে আমাদের ওপর দিয়ে বের হতে হবে। আর তিনি যখন এখান থেকে বের হবেন তখন তিনি আর এই বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য থাকবেন না,’ যোগ করেন তিনি।

এর আগে সংকট সমাধানে রবিবার রাতে শিক্ষামন্ত্রীর সাথে আলোচনা হয় আন্দোলনকারী শিক্ষকদের। মন্ত্রী আন্দোলনকারীদের কাছে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ চেয়েছেন এবং আন্দোলন স্থগিত করতে আহ্বান জানিয়েছেন। তবে দৃশ্যমান কোনো অগ্রগতি না দেখা পর্যন্ত আন্দোলন চলবে বলে জানিয়েছেন আন্দোলনকারী শিক্ষক- শিক্ষার্থীরা।

 শিক্ষা থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ