বৃহস্পতিবার , ২১ নভেম্বর ২০১৯ |

থাইল্যান্ডের সহিংসতাপূর্ণ দক্ষিণাঞ্চলে সন্দেহভাজন মুসলিম বিদ্রোহীদের হামলায় কমপক্ষে ১৫ জন নিহত ও চারজন আহত হয়েছে। গত কয়েক বছরের মধ্যে এটি সবচেয়ে ভয়াবহ হামলা। বুধবার সামরিক মুখপাত্র একথা জানান। খবর এএফপি’র। মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ থাইল্যান্ডের দক্ষিণাঞ্চলে রক্তক্ষয়ী সহিংসতা অনেক বেড়ে গেছে। গত ১৫ বছরে এসব সহিংসতায় সাত হাজারের বেশি লোক প্রাণ হারিয়েছে।

থাইল্যান্ডের দক্ষিণাঞ্চলের সেনা মুখপাত্র প্রমোত প্রম-ইন এএফপি’কে বলেন, মঙ্গলবার রাতে ইয়ালা প্রদেশে জঙ্গিরা বেসামরিক প্রতিরক্ষা স্বেচ্ছাসেবকদের নিয়ন্ত্রণে থাকা দু’টি নিরাপত্তা ফাঁড়িতে ব্যাপক হামলা চালায়। প্রমোত বলেন, এতে ‘ঘটনাস্থলেই ১২ জন নিহত হয়। এছাড়া হাসপাতালে আরো দু’জন এবং আজ সকালে একজন মারা যায়।’

তিনি আরো জানান, বিদ্রোহীরা ওই দুই ফাঁড়ি থেকে এম-১৬ রাইফেল ও শটগান লুট করে নিয়ে যায়। তিনি জানান, নিরাপত্তা ফাঁড়ি দু’টির চারদিক ঘিরে রাখা হয়েছে এবং সেখানে এখন ফরেনসিক তদন্ত করা হচ্ছে।

সাংস্কৃতিকভাবে স্বতন্ত্র মালয়েশীয় সীমান্তবর্তী এ অঞ্চলের স্বায়ত্বশাসন চাওয়া বিদ্রোহীরা বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ থাইল্যান্ডের বিরুদ্ধে লড়াই করে আসছে। থাইল্যান্ডের কথিত ‘একেবারে দক্ষিণাঞ্চল’ বিষয়ক বিশেষজ্ঞ ডন পাঠান বলেন, ‘বিগত অনেক দিনের মধ্যে মঙ্গলবারের হামলা ছিল সবচেয়ে ভয়াবহ এবং পরিকল্পিত হামলার ঘটনা।’ সূত্র: বাসস

 সারাবিশ্ব থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ