সোমবার , ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯ |

পকেট কমিটি দিয়ে দল ভারী করা চলবে না: কাদের

অনলাইন ডেস্ক   সোমবার , ০২ ডিসেম্বর ২০১৯

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের কর্মীরা ঠিক আছে, নেতাদের মধ্যেই সব সমস্যা বলে মনে করেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। দলকে ঢেলে সাজানোর অংশ হিসেবে বিভিন্ন জায়গায় যে কমিটি হচ্ছে সেখানে কোনো ‘পকেট কমিটি’ না করতে দলীয় নেতাদের প্রতি হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

সোমবার পটুয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে বক্তব্য দিচ্ছিলেন ওবায়দুল কাদের। নেতাকর্মীদের উদ্দেশে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘শ্লোগান দিয়ে পোস্টার লাগিয়ে নেতা হওয়া যায় না। কর্মীরা সব ঠিক আছে, আসল গোলমালের উৎস হচ্ছে মঞ্চ।’

দল ভারী করা নেতাদের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘নেতারা ঘরের মধ্যে ঘর করে মশারির মধ্যে মশারি আত্মীয়করণ করে চৌদ্দপুরুষকে নিয়ে পকেট কমিটি করে। পকেট কমিটি চলবে না, কমিটি করতে গিয়ে খারাপ লোকদের নিয়ে দল ভারী করা যাবে না।’

দলের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘অনেক ত্যাগী কমিটিতে জায়গা পায়নি, তাদের জায়গা করে দিতে হবে। ত্যাগী কর্মীদের কোণঠাসা করলে আওয়ামী লীগ বাঁচবে না।’ মন্ত্রী বলেন, ‘গণতন্ত্রকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে, বাংলাদেশের উন্নয়নকে বাঁচাতে হলে শেখ হাসিনাকে বারবার ক্ষমতায় আনতে হবে। কারণ গত ৪৪ বছরে সাহসী রাজনীতিকের নাম শেখ হাসিনা, সবচেয়ে সফল প্রশাসকের নাম শেখ হাসিনা।’

দুপুরে শহরের শহীদ আলাউদ্দিন শিশুপার্কে বেলুন, শান্তির পায়রা আর জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে সম্মেলন উদ্বোধন করেন পার্বত্য শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ।’

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও পটুয়াখালী-১ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য  মো. শাহজাহান মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য দেন দলের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, আব্দুর রহমান, তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক মো. আফজাল হোসেন, উপদপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, সদস্য গোলাম রাব্বানী চিনু প্রমুখ।

সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কাজী আলমগীর হোসেনকে সভাপতি, পটুয়াখালী সরকারী কলেজের সাবেক ভিপি আব্দুল মান্নানকে সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা চেয়ারম্যান গোলাম সরোয়ার ও বাউফল পৌরসভার মেয়র জিয়াউল হক জুয়েলকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে ঘোষণা দেন কেন্দ্রীয় নেতারা।

সম্মেলনে পটুয়াখালী-২ বাউফল আসনের সংসদ সদস্য আ স ম ফিরোজ, পটুয়াখালী-৪ (কলাপাড়া-দশমিনা) আসনের সংসদ সদস্য মো. মহিব্বুর রহমান, পটুযাখালীর সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য অধ্যাপিকা কাজী কানিজ সুলতানা হেলেন, পটুয়াখালী-৩ (গলাচিপা-দশমিনা) আসনের সংসদ সদস্য এসএম শাহজাদা, পটুয়াখালী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান মোহন মিয়াসহ আওয়ামী লীগ ও অংগসংগঠনের সব স্তরের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। সম্মেলন সঞ্চালনা করেন জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক কাজী আলমগীর হোসেন।

 রাজনীতি থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ