শনিবার , ১১ জানুয়ারী ২০২০ |

কামরাঙ্গীরচরে ধর্ষণের পলাতক আসামিকেও গ্রেপ্তার

অনলাইন ডেস্ক   শনিবার , ১১ জানুয়ারী ২০২০

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ধর্ষণের ঘটনায় ক্ষোভ-বিক্ষোভের মধ্যে কামরাঙ্গীরচরে কিশোরী ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটেছে।

ঢাকার কামরাঙ্গীরচরে কিশোরীকে ধর্ষণের পলাতক আসামিকেও গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। ওই কিশোরীর মায়ের করা মামলার ছয় আসামির মধ্যে পাঁচজন আগেই ধরা পড়েছিলেন। পলাতক রতনকে (১৮) শনিবার সকালে ঢাকার সাভার এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে র‌্যাবের লালবাগ ক্যাম্পের কমান্ডার মেজর মো. আনিসুজ্জামান জানিয়েছেন।

তিনি আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন, “রতনসহ মোট পাঁচজন মিলে ওই কিশোরীকে বৃহস্পতিবার রাতে ধর্ষণ করে। চারজন গ্রেপ্তার হলেও রতন পলাতক ছিলেন।” ধর্ষণের আসামি হাসান, সিফাত, সবুজ ও রনি নামে চারজনকে আগে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের সঙ্গে গ্রেপ্তার করা হয় ওই কিশোরীর এক বান্ধবীকে, যিনি ধর্ষণে সহযোগিতা করেছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

কামরাঙ্গীরচর থানার ওসি মশিউর রহমান আমাদের প্রতিনিধিকে বলেছিলেন, ধর্ষণের শিকার কিশোরীকে তার বান্ধবী তাদের রসুলপুরের বাসার কাছে একটি নির্মাণাধীন ভবনে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে রতনসহ তার পাঁচ বন্ধু পালাক্রমে ধর্ষণ করে ওই কিশোরীকে।

ধর্ষিত কিশোরী ও আসামিদের সবাই ওই এলাকার বস্তির বাসিন্দা। র‌্যাব কর্মকর্তা আনিসুজ্জামান বলেন, প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় বন্ধুদের নিয়ে রতন ওই কিশোরীকে ধর্ষণ করে।

ওই কিশোরী এখন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাকে পরীক্ষা করে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে বলে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান সোহেল মাহমুদ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।

 রাজধানী থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ