শনিবার , ১৪ মার্চ ২০২০ |

বাংলা ট্রিবিউনের কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি আরিফুল ইসলামকে মধ্যরাতে বাসা থেকে তুলে নিয়ে মোবাইল কোর্টে সাজা দেওয়ার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ট্রিবিউন এর কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি আরিফুল ইসলামকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে কারাদণ্ডের আদেশ প্রদান বর্তমান সরকারের নানাবিধ অপকর্মেরই ধারাবাহিকতা। আরিফুল ইসলাম নিঃসন্দেহে প্রতিহিংসার শিকার। আমি অবিলম্বে তার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত অসত্য মামলা প্রত্যাহারসহ নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবি জানাচ্ছি।’

শনিবার রাত সোয়া নয়টার দিকে বিএনপির সহ দফতর সম্পাদক মুনির হোসেন স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘গতরাত (শুক্রবার) সাড়ে ১২টার দিকে অনলাইন নিউজ পোর্টাল বাংলা ট্রিবিউন এর কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি আরিফুল ইসলামের বাসার দরজা ভেঙে সাদা পোশাকধারীরা বাসায় প্রবেশ করে তাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করতে করতে তুলে নিয়ে যায়। আরিফুলের বাসা থেকে মাদকদ্রব্য উদ্ধারের মিথ্যা ও বানোয়াট কল্পকাহিনী সাজিয়ে তাকে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে নিয়ে গিয়ে রাত ২টার সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে এক বছরের কারাদণ্ড দিয়ে কুড়িগ্রাম কারাগারে প্রেরণ করা হয়।’

ফখরুল বলেন, ‘ন্যায়নিষ্ঠ সাংবাদিক হিসেবে সত্য সংবাদ পরিবেশনের জন্য প্রতিহিংসার শিকার আরিফুল ইসলামকে সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে কারাদণ্ড দেওয়ার ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘দেশের মানুষকে মূক ও বধির করে দোর্দণ্ড প্রতাপে দেশে জুলুমের শাসন চালিয়ে যাচ্ছে ভোটারবিহীন ক্ষমতাসীন গোষ্ঠী। দেশের সবচেয়ে বৃহত্তম ও জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল বিএনপিসহ সকল রাজনৈতিক দলের ওপর চলছে নির্যাতনের স্টিমরোলার। বর্তমান ফ্যাসিবাদী সরকার মানুষের ভোটাধিকার, বাক-ব্যক্তি স্বাধীনতাকে গায়ের জোরে হরণ করেই ক্ষান্ত হচ্ছে না, সাংবাদিকদের ওপরও বিভিন্ন কায়দায় নিপীড়নের থাবা বিস্তার করে স্বাধীন সাংবাদিকতা পেশাকে ভুলুণ্ঠিত করার নিকৃষ্ট পাঁয়তারা চালাচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘দেশে বর্তমানে আইনের শাসন নয়, বরং এক ব্যক্তির ইচ্ছা-অনিচ্ছার শাসন বলবৎ রয়েছে। জনগণ নয় বরং বন্দুকের নল ও শাসকগোষ্ঠীর মদতপুষ্ট সন্ত্রাসীদের দিয়ে দেশকে জুলুমের নগরীতে রূপান্তরের মাধ্যমে আজীবন রাষ্ট্রক্ষমতা দখলে রাখার মাস্টারপ্ল্যান বাস্তবায়নের পথে দ্রুততার সঙ্গে এগিয়ে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ সরকার।’

ফখরুল অভিযোগ করেন, ‘গুম-খুন-বিচার বহির্ভূত হত্যাকে ক্ষমতায় থাকার চাবিকাঠি জ্ঞান করছে বর্তমান সরকার। সাংবাদিকদেরকেও এক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হচ্ছে না। সরকার কিংবা প্রশাসনের কর্তাব্যক্তিদের স্বার্থপরিপন্থী সমালোচনা হলেই কাউকে রেহাই দেওয়া হচ্ছে না। মনে হয় আমরা যেন মগের মুল্লুকে বাস করছি।’

 রাজনীতি থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ