বুধবার , ০১ নভেম্বর ২০১৭

খুলনার তেরখাদা উপজেলায় ধান ভাঙানোর মেশিনে জড়িয়ে এক স্কুলছাত্রীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে।বুধবার সকাল নয়টার দিকে উপজেলার পানতিতা গ্রামে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত স্কুলছাত্রীর নাম সুপ্রিয়া (১০)। সে ওই গ্রামের কৃষক মোহাম্মদ আলীর মেয়ে এবং পানতিতা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী।তেরখাদা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে জানান, বুধবার সকালে সুপ্রিয়া তার মায়ের সঙ্গে বাড়ির পাশে মোর্শেদের ধানকলে ধান ভাঙাতে যায়। মেশিন চলাকালে পাশে থাকা অবস্থায় প্রথমে তার ওড়না পেঁচিয়ে যায়। মুহূর্তের মধ্যে তার মাথাও মেশিনে জড়িয়ে গেলে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়।পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।সুপ্রিয়ার এই অকাল মৃত্যুতে পানতিতা গ্রামে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। চোখের সামনে মেয়ের এই মৃত্যুতে বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছেন মা। বারবার তিনি মূর্ছা যাচ্ছিলেন।সুপ্রিয়ার বাবা মোহাম্মদ আলী কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘এখন থাইকা আমি আর কারে মা বলে ডাকব। এমন হবে জানলে কখনোই মেয়েকে ধান ভাঙানোর জন্য পাঠাতাম না। এই যন্ত্রনা আমি কী করে সইব। কী এমন পাপ করেছি আল্লা আমারে এতবড় একটা শাস্তি দিলো।’

 কৃষিসংবাদ থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ